1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিজ্ঞান পরিবেশ

সেপসিস বা রক্তদূষণ, একটি বড় রকমের ঝুঁকি

বাহুতে একটা লম্বা লালচে দাগ, এটাই কী রক্তদূষণ বা সেপসিস-এর লক্ষণ? বিষয়টি এত সহজ নয়৷ কারণ সেপসিস শনাক্তকরণ বেশ কঠিন৷ তার ওপর মাঝে মাঝে এটি ধরা পড়তে অত্যন্ত দেরি হয়ে যায়৷ যার পরণতিতে হতে পারে মৃত্যুও৷

সেপসিস সাথে সাথে ধরা পড়লে বাঁচার সম্ভাবনা প্রায় ৮০ শতাংশ৷ তবে ছয় ঘণ্টা পর এই সম্ভাবনা কমে ৩০ শতাংশ হয়ে যায়৷ সর্বশেষ পরিসংখ্যান অনুযায়ী, জার্মানিতে প্রতিবছর ৬০ হাজার মানুষ মারা যায় রক্তদূষণের কারণে৷ বিশ্বব্যাপী সংখ্যাটা আট মিলিয়নের মতো বলে অনুমান করা হয়৷

দুর্বল ইমিউন সিস্টেম ঝুঁকির মুখে

সেপসিস হলো এক ধরনের সংক্রমণ, যাতে রোগ জীবাণু রক্ত প্রবাহে ঢুকে অঙ্গপ্রত্যঙ্গ আক্রমণ করে৷ সাধারণত শরীরের নিজস্ব প্রতিরোধ ক্ষমতা এই আক্রমণকে প্রতিহত করতে পারে৷ কিন্তু বয়োবৃদ্ধ ও কঠিন অপারেশনের পর ইমিউন সিস্টেম দুর্বল হয়ে যাওয়া মানুষের পক্ষে এই ধকল সামলানো কঠিন৷ এছাড়া ক্যানসারের থেরাপিতে দুর্বল হয়ে যাওয়া রোগীরাও ঝুঁকির মুখে৷

বেশিরভাগ ক্ষেত্রে নির্দিষ্ট কোনো অঙ্গপ্রত্যঙ্গ সংক্রমিত হয়৷ যেমন ফুসফুসের সংক্রমণ৷ অ্যান্টিবায়োটিক নিলে কয়েকদিনের ভালো হয়ে যেতে পারে এই সংক্রমণ৷ কিন্তু ঝুঁকিতে থাকা রোগীদের অবস্থা কয়েক ঘণ্টার মধ্যে মারাত্মক হয়ে যায়৷ প্রাথমিক স্থান থেকে জীবাণু অন্য জায়গায় চলে যায়৷ যেমন পায়ের বুড়ো আঙুলের সংক্রমণ থেকে রক্তপ্রবাহে ঢুকে অন্যান্য অঙ্গপ্রত্যঙ্গ আক্রমণ করে বিকল করে দিতে পারে জীবাণু৷ এই অবস্থায় প্রায়ই মূল্যবান সময় পার হয়ে যায়৷ তাই সঠিক রোগটি শনাক্ত করতে প্রচুর অভিজ্ঞতার প্রয়োজন৷

মানসিক সমস্যা দেখা দেয়

নিবিড় পর্যবেক্ষণ বিভাগে সেপসিস রোগীকে বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই কৃত্রিম কোমায় রাখা হয়৷ কোমা থেকে জাগানো হলে প্রায়ই রোগীর মধ্যে প্যানিক অ্যাটাক দেখা দেয়৷ তাঁরা ভোগেন ‘পোস্ট-ট্রমাটিক স্ট্রেস ডিসঅর্ডার'-এ৷ দেখা দেয় পেশি ও স্নায়ুর দুর্বলতা৷ স্মৃতিশক্তি হ্রাস পায় বলেও লক্ষ্য করা যায় এক্ষেত্রে৷

সেপসিস-এর কবল থেকে উদ্ধার পাওয়া রোগী রোল্ফ থিল জানান, ‘‘কোনো বাক্যের অনুসঙ্গ বুঝতে হলে আমার দুই তিনবার পড়তে হয়৷ মস্তিষ্কও আগের মতো কাজ করে না, অনেক দুর্বল মনে হয়৷''

অধিকাংশ দেখা দেয় হাসপাতালে

প্রায় দুই তৃতীয়াংশ সেপসিস-ই দেখা দেয় হাসপাতালে৷ বড় বড় অপারেশনের পর ক্ষত সারতে অনেকদিন লেগে যায়৷ এটা যেন জীবাণুদের জন্য এক উর্বর স্থান৷ আর দুর্বল ইমিউন সিস্টেম বা রোগ প্রতিরোধের ক্ষমতা কম হলে তো কথাই নেই৷ রক্তদূষণের পথ খুলে যায়৷ এ কারণে হাসপাতালের স্বাস্থ্যরক্ষার দিকে নজর রাখাটা অত্যন্ত জরুরি৷ এতে করে ২০ শতাংশ সেপসিস প্রতিরোধ করা সম্ভব বলে মনে করেন ইয়ানা ইউনিভার্সিটি ক্লিনিকের ড. ফ্রাংক মার্টিন ব্রুংকহোর্স্ট৷ এ ব্যাপারে হাসপাতালের কর্মীদের ভালো প্রশিক্ষণ দেওয়া উচিত৷ এছাড়া টিকা দেওয়ার ওপর জোর দিতে হবে, যাতে ফ্লু ও ফুসফুসের সংক্রমণের মতো রোগব্যাধি আদৌ দেখা না দেয়৷ এই পরামর্শ ড. ব্রুংকহোর্স্টের৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন