1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

ভারত

সেনা তহবিলে টাকা দিতে বাধ্য করা কেমন দেশপ্রেম?

বলিউড ফিল্মে পাকিস্তানি শিল্পীদের নেবার ‘প্রায়শ্চিত্ত' হিসেবে সেনা তহবিলে ৫ কোটি টাকা চাঁদা  দিতে বাধ্য করেছে মহারাষ্ট্র নব নির্মাণ সেনার সর্বাধিনায়ক রাজ ঠাকরে৷ জোর করে টাকা আদায়ে সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে আপত্তি জানানো হয়৷

বলিউড ফিল্মে পাকিস্তানি শিল্পীদের নেবার ‘প্রায়শ্চিত্ত' হিসেবে সেনা তহবিলে ৫ কোটি টাকা চাঁদা  দিতে বাধ্য করেছে মহারাষ্ট্র নব নির্মাণ সেনার সর্বাধিনায়ক রাজ ঠাকরে৷ এভাবে জোর করে টাকা আদায়ে অবশ্য সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে আপত্তি জানানো হয়েছে৷

ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে উরি এবং পাঠানকোট জঙ্গি হামলার জেরে বলিউড ছবির প্রযোজক করণ জোহরকে তাঁর ‘অ্যায় দিল হ্যায় মুশকিল' ছবিতে পাকিস্তানের অভিনেতা ফাওয়াদ খানকে অভিনয়ের সুযোগ দেবার ‘প্রায়শ্চিত্ত' হিসেবে ছবিটির মুক্তিলগ্নে সেনা বাহিনীর কল্যাণ তহবিলে পাঁচ কোটি টাকা দিতে বাধ্য করে মহারাষ্ট্র নব নির্মাণ সেনার সর্বাধিনায়ক রাজ ঠাকরে৷ ছবিটির ‘মুক্তিপণ' হিসেবে এই টাকা না দিলে করণ জোহরের ছবি চলতে দেওয়া হবে না, সিনেমা হলে বা মাল্টিপ্লেক্সে ছবিটি দেখানো হলে ভাঙচুর চালানো হবে- এমন হুমকি ছিল৷

পাকিস্তানী তারকা ফাওয়াদ খান ও বলিউড অভিনেত্রী দীপিকা পাদুকোন

পাকিস্তানী তারকা ফাওয়াদ খান ও বলিউড অভিনেত্রী দীপিকা পাদুকোন

২৮শে অক্টোবর ছবিটি মুক্তি পাওয়ার কথা৷ তার আগে এই নিয়ে তুমুল শোরগোল, আপত্তি, প্রতিবাদ৷ সংস্কৃতিমনস্ক নাগরিক সমাজ তো বটেই, খোদ সেনাবাহিনীর তরফেও এই রকম জোর করে সেনা কল্যাণ তহবিলের জন্য টাকা আদায়ে তীব্র আপত্তি জানানো হয়েছে৷ সেনা বাহিনীর বর্তমান এবং অবসরপ্রাপ্ত পদস্থ অফিসাররা সংবাদ মাধ্যমের কাছে বলেছেন, ভারতীয় সেনাবাহিনী অ-রাজনৈতিক এবং ধর্মনিরপেক্ষ প্রতিষ্ঠান৷ সেনা ত্রাণ তহবিলের নামে জোর করে বা ভয় দেখিয়ে টাকা তোলাটা জাতীয় সংবেদনশীলতাকে কাজে লাগিয়ে মহারাষ্ট্র নব নির্মাণ সেনার মতো দলগুলির নিছক রাজনৈতিক ফায়দা তোলার চেষ্টা৷ তাঁরা বলেন, সেনাবাহিনীকে অর্থের জন্য হাত পাততে হয় না৷ যদি কেউ স্বেচ্ছায় দিতে চান, তাহলে অন্যসব নাগরিকের মতো দিতে পারেন৷ নব নির্মাণ সেনার এই কায়দা মেনে নেওয়া যায় না৷

 উল্লেখ্য, সম্প্রতি সেনা কর্তৃপক্ষ যুদ্ধকালীন হতাহতদের ত্রাণ সাহায্যের জন্য ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট খুলেছে৷ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে বলা হয়েছে, এই তহবিলে দান করা সম্পুর্ণ স্বেচ্ছাধীন৷ এই দান আয়করমুক্ত করার কথা বিবেচনা করা হচ্ছে৷ দেশের সংস্কৃতিমনস্ক নাগরিক সমাজের কেউ কেউ রাজ ঠাকরের হুমকি দিয়ে এভাবে টাকা আদায় করাকে এক ধরণের রাজনৈতিক তোলাবাজি বলে মনে করছেন৷ ভারত-পাকিস্তানের মধ্যে বিরোধ থাকার সঙ্গে দুই দেশের শিল্প সংস্কৃতির স্বাভাবিক সংযোগ থাকতে পারে না৷ থাকলে সন্ত্রাসীরা আরো আস্কারা পেয়ে যাবে৷ পাশাপাশি, বলিউড ফিল্ম ইন্ডাষ্ট্রিজকে রাজ ঠাকরে বা তাঁর দল যেভাবে হুমকি দিচ্ছে, তা এক বিপজ্জনক সংকেত দেয়৷ নিজের রুচি ও পছন্দমতো সৃষ্টিশীল কাজ করা এদেশে ক্রমশই কঠিনতর হতে পারে৷ এটাকে কি বলা যায় ? ফ্যাসিবাদ ?

আঙুল উঠেছে মহারাষ্ট্রের বিজেপি মুখ্যমন্ত্রী ফাড়নাবিসের ভূমিকা নিয়ে৷ কেন তিনি রাজ ঠাকরের মতো জনভিত্তিহীন এক নেতাকে প্রশ্রয় দিলেন ? গত বিধানসভা নির্বাচনে রাজ ঠাকরের মহারাষ্ট্র নব নির্মাণ সেনার জায়গা হয়েছিল সবথেকে নীচে৷ সেদিক থেকে তাঁকে কেউকেটা নেতা মনে করার কারণ নেই৷ কারণ নেই তাঁর হুমকিকে আমল দেবার৷ তাহলে মুখ্যমন্ত্রী এই বিবাদের মধ্যস্থতা করতে গেলেন কেন ? আইন শৃংখলা রক্ষায় রাজ ঠাকরের  বিরুদ্ধে উপযুক্ত ব্যবস্থা নিলেন না কেন ? 

অনেকের মতে, বলিউড ফিল্ম থেকে পাকিস্তানিদের তাড়ানোটা চুড়ান্ত দেশপ্রেমের প্রমাণ হয়না৷ পাকিস্তানকে কূটনৈতিক দিক থেকে একঘরে করার সঙ্গেও এর কোনো সম্পর্ক নেই৷ দ্বিতীয়ত, ফাওয়াদ খানের বৈধ ভিসা আছে৷ কেন্দ্রীয় সরকার তাঁর ভিসা বাতিল করেননি৷ ফাওয়াদ খানের বিরুদ্ধে কোনোরকম বেআইনি কাজের অভিযোগ নেই৷ তা ছাড়া যখন তিনি ‘অ্যায় দিল হ্যায় মুশকিল' ছবির শুটিং করছিলেন, তখন অর্থাৎ গত বছরের ডিসেম্বরে প্রধানমন্ত্রী মোদী তখন গিয়েছিলেন লাহোরে৷ মোদী সরকারের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং স্পষ্টভাবে বলেছেন, পাকিস্তানি শিল্পীদের ভিসা বাতিল করা হবে না৷ দেশের বিভিন্ন প্রেক্ষগৃহে ছবি রিলিজ করার সময় যাতে কোনোরকম গন্ডগোল না হয় তারজন্য সরকা সব রকম নিরাপত্তার ব্যবস্থা নেবে৷ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বোঝাতে চেয়েছেন, মোদী সরকার কতটা সহিষ্ণু ও উদার৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়