1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিজ্ঞান পরিবেশ

সুস্থ থাকতে চাইলে ঠিক ৭ ঘন্টা ঘুমান

ভেবে বলুনতো, আপনি দিনে কত ঘন্টা ঘুমান? পাঁচ, ছয়, সাত নাকি আট ঘন্টা৷ নাকি তার চেয়েও বেশি বা কম৷ উত্তরটা যদি হয় সাত, তাহলে একদম ঠিক আছে৷ আর তা না হলেই বিপদ৷ এমনটাই আভাস দিচ্ছে একটি গবেষণার ফলাফল৷

default

যুদ্ধের ফাঁকে সেনাদের ঘুম

যুক্তরাষ্ট্রে হয়েছে গবেষণাটি৷ ওয়েস্ট ভার্জিনিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা ছিলেন এর পেছনে৷ আর যে ম্যাগাজিনে গবেষণাটি ছাপা হয়েছে সেটির নাম ‘স্লিপ' অর্থাৎ ঘুম৷ প্রায় ত্রিশ হাজার বয়স্ক মানুষের তথ্য পর্যালোচনা করে বের করা হয়েছে ফলাফল৷

কিন্তু কী আছে সেই ফলাফলে? বলা হয়েছে, সাত ঘন্টার কম বা বেশি যারা ঘুমায় তাদের বিভিন্ন ধরনের হৃদরোগে আক্রান্ত হবার সম্ভাবনা বেশি থাকে৷ যারা দিনে পাঁচ ঘন্টার কম ঘুমান তাদের হৃদরোগে আক্রান্ত হবার সম্ভাবনা, যারা সাত ঘন্টা ঘুমান তাদের চেয়ে দুই গুন বেশি৷

আর যারা নয় ঘন্টা বা তার বেশি সময় ঘুমান তাদের হৃদরোগে আক্রান্ত হবার ঝুঁকি, সাত ঘন্টা যারা ঘুমান তার চেয়ে দেড়গুন বেশি৷

তবে সবচেয়ে বেশি ঝুঁকিতে রয়েছেন ৬০ বছর বয়সের নিচে যারা, তারা৷ কারণ গবেষণা থেকে জানা যাচ্ছে, এই বয়সের লোকদের হৃদরোগে আক্রান্ত হবার সম্ভাবনা, সাত ঘন্টা ঘুমানো মানুষের চেয়ে তিনগুন বেশি৷

সবচেয়ে কম বা সবচেয়ে বেশি সময় ঘুমের কারণে স্ট্রোক হবার সম্ভাবনা থাকে বলে জানা গেছে৷

তবে একই ম্যাগাজিনে আরও একটি বিষয়ে গবেষণা প্রকাশ পেয়েছে৷ তাতে বলা হয়েছে, যারা দিনের পর দিন রাতে চার ঘন্টার কম সময় ঘুমানোর সুযোগ পান তারা যদি পরে কোন সময় ৯ বা ১০ ঘন্টার মত ঘুমানোর সুযোগ পায় তাহলে সেটা বরং উপকারী হবে৷ এই গবেষণাটি করেছে যুক্তরাষ্ট্রেরই পেনসিলভেনিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের মেডিসিন বিভাগ৷ ১৪২ জনের ওপর করা হয়েছে গবেষণাটি৷

প্রতিবেদন: জাহিদুল হক

সম্পাদনা: রিয়াজুল ইসলাম

সংশ্লিষ্ট বিষয়