1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিজ্ঞান পরিবেশ

সুন্দর দম্পতিদের মেয়ে হয় বেশি

প্রথম বাচ্চাটি কী চান, ছেলে নাকি মেয়ে? কেউবা ছেলে আবার কেউবা মেয়ে চান৷ তবে সুন্দর দম্পতিদের জন্য মেয়ে হওয়ার সম্ভাবনাই নাকি বেশি৷ সম্প্রতি এক ব্রিটিশ গবেষক এমন তথ্য জানিয়েছেন৷

default

গত বছরের মিসেস জার্মানি ক্যাথরিন ডুরাকোভিচ ও তার মেয়ে শিওনা

লন্ডন স্কুল অব ইকোনমিক্স এর মনোবিজ্ঞানী ড. শাতোশি কানাজাওয়া দীর্ঘদিন গবেষণার পর এই সিদ্ধান্তে পৌঁছেছেন যে যেসব দম্পতি দেখতে সুন্দর ও আকর্ষণীয় তাদের সন্তান ছেলের চেয়ে মেয়ে হওয়ার সম্ভাবনা থাকে বেশি৷ তিনি তাঁর এই গবেষণার জন্য ১৭ হাজার ব্রিটিশ শিশুর ওপর নজর রেখেছেন যাদের কারো কারো জন্ম ১৯৫৮ সাল পর্যন্ত৷ এসব শিশুর সৌন্দর্য ও আকর্ষণের ওপর তিনি তাদের বাছাই করেছেন৷ এসব শিশুরা যখন পূর্ণবয়স্ক হয়েছে তখন দেখা গেছে যারা বেশি আকর্ষণীয় তাদের বেশিরভাগ সন্তানই মেয়ে৷ এই থেকে ড. শাতোশি কানাজাওয়া মনে করছেন যে সুন্দর দম্পতিদের মেয়ে হওয়ার সম্ভাবনাই বেশি৷

এর বাইরে আরও একটি বিষয় তিনি লক্ষ্য করেছেন৷ তা হলো, যেসব নারী দেখতে সুন্দর তাদের সম্পর্ক দীর্ঘদিন টিকে থাকে৷ কারণ পুরুষরা সুন্দর নারীদের সঙ্গে স্থায়ী সম্পর্ক গড়ে তুলতে আগ্রহী৷ অন্যদিকে আকর্ষণীয় পুরুষদের সঙ্গে নারীরা স্থায়ীর বদলে অস্থায়ী এবং স্বল্প মেয়াদে সম্পর্ক গড়ে তুলতেই বেশি আগ্রহী৷ সেই হিসেবে বলতে হয় তুলনামুলক কম সুন্দর পুরুষরাই ভাগ্যবান৷ তবে কেবল পুরুষের চেহারা নয়, যোগ্যতা এবং সামাজিক অবস্থান অবশ্যই একটা বড় ভূমিকা রাখে দাম্পত্য সম্পর্কের বেলায়৷

এদিকে, সুন্দর নারীরা দাম্পত্য সম্পর্কের বেলায় সুবিধা পায়, এবং এই সৌন্দর্য প্রভাব ফেলে তাদের প্রজনন ক্ষমতার ওপর৷ যার ফলে দেখা যায় তারা মেয়ে সন্তান জন্ম দেয় বেশি, এমনটিই মতামত মনোবিজ্ঞানী ড. শাতোশি কানাজাওয়া৷

তবে তাঁর এই মতকে এখনই স্বতসিদ্ধ হিসেবে গ্রহণ করতে রাজি নন অন্যান্য বিজ্ঞানীরা৷ কারণ দেখা যায় অনেক সুন্দর দম্পতির শুধুই ছেলে সন্তান৷ উদাহরণ হিসেবে ফুটবল তারকা ডেভিড বেকহামের কথা বলতে হয়৷ তবে এই নিয়ে যে বিতর্ক শুরু হয়েছে সেটা বলা যায়৷

প্রতিবেদন: রিয়াজুল ইসলাম

সম্পাদনা: হোসাইন আব্দুল হাই