1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিজ্ঞান পরিবেশ

সুনামির মত ধেয়ে আসছে মোটাসোটারা

মোটাসোটা মানুষেরা বিশ্বজুড়ে সংখ্যায় বহুগুণ বেড়ে চলেছে৷ এতটাই যে তাই নিয়ে রীতিমত উদ্বিগ্ন বিজ্ঞানীরা৷ মোটা মানুষদের মৃত্যুহারও অনেক বেশি৷ বলছে সাম্প্রতিক এক সমীক্ষা৷

মোটা, ওবেসিটি, সুনামি, প্রবণতা, অ্যামেরিকা, মধ্যপ্রাচ্য, অস্ট্রেলিয়া, নরনারী, মহিলা, পুরুষ

ওবেসিটির শিকার এক ভারতীয়

শুরু হয়েছিল বছর ত্রিশ আগে৷ সেই ১৯৮০ সাল থেকে৷ তখন থেকেই মোটারা আকারে আর সংখ্যায় বাড়তে শুরু করেছে৷ তারপর এখন পরিস্থিতি এমন যে ইতিমধ্যেই প্রতি নয়জন বিশ্ব নাগরিকের মধ্যে একজন করে নারী পুরুষ এই মোটা হওয়ার রোগ বা ওবেসিটির শিকার৷ ফলে ইতিমধ্যেই আমাদের চারপাশে তারা বেশ দৃশ্যমান৷ বিশ্বজুড়ে এই ওবেসিটি বা মোটাত্বের শিকারদের মোটমাট সংখ্যাটা এখন আধ বিলিয়ন৷ মানে হল গিয়ে ৫০ কোটি!

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা, লন্ডনের ইম্পিরিয়াল কলেজ এবং হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকদের সমীক্ষার এই ফলাফল জানিয়ে বিশেষজ্ঞরা মোটের ওপর দুশ্চিন্তাতেই পড়েছেন এবং দুশ্চিন্তা ধরিয়ে দিয়েছেন গোটা বিশ্বের৷ তাঁদের ভাষাতেই বলা হচ্ছে, মোটারা ধেয়ে আসছে সুনামির মত দ্রুতবেগে৷ যে মোটারা মোটামুটি সবাই ওই ওবেসিটির শিকার৷ সমীক্ষা বলছে, মোটের ওপর বিশ্বজুড়ে মোটারা সংখ্যায় বাড়লেও তাদের সবচেয়ে বেশি বাড়বাড়ন্ত ধনী দেশগুলোয়৷ দেখা গেছে, মহিলাদের মধ্যে মোটা হওয়ার তালিকায় প্রথমে রয়েছে অ্যামেরিকা, তারপরেই নিউজিল্যান্ড এবং অস্ট্রেলিয়া৷ আর পুরুষদের মধ্যে সেই মোটা তালিকায় প্রথম দেশ ব্রিটেন, তারপর রয়েছে অস্ট্রেলিয়া৷ আর মধ্যপ্রাচ্যের পরিস্থিতি আবার অন্য৷ সেখানে আধুনিকতা আর নগরায়নের সঙ্গে সঙ্গে দ্রুত ছড়িয়ে পড়ছে এই মোটা হওয়ার রোগ৷

Gesundheit Ernährung Übergewicht Frau schwimmt im Meer

মহিলাদের মধ্যে মোটা হওয়ার প্রবণতা বেশি

মোটা হওয়া বলতে শুধুই ওবেসিটি নয়, রয়েছে বেশি ওজনের সমস্যাও৷ গবেষকদের বক্তব্য, ত্রিশ বছর বয়স পর্যন্ত শরীরের ওজন প্রয়োজনের বেশি হলে সেটাকে বলা যায় অতি ওজন৷ কিন্তু ত্রিশ পেরোলেই সেই রোগ দাঁড়ায় গিয়ে ওবেসিটিতে৷ যে রোগের কবলে পড়ে মৃত্যু দ্রুতগামী হয় কারণ শরীরের বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গপ্রত্যঙ্গ তাদের কাজ ঠিকমত করতে পারেনা৷ আর যেহারে এই ওবেসিটির বাড়বাড়ন্ত ঘটছে তাতে আগামী কয়েক বছরের মধ্যে মোটাদের সংখ্যা বেশ অনেকটাই বেড়ে যাবে৷

তাহলে উপায়টা কী? গবেষকদল এবং বিজ্ঞানীদের পরামর্শ, এই ওবেসিটি নামের দানবকে ঠেকাতে হলে সরকারকে সচেতন হতে হবে৷ নাগরিকদের খাদ্যাভ্যাস এবং জীবনযাত্রা নিয়ন্ত্রণে, ওবেসিটির বিরুদ্ধে প্রচারে এবং তার ক্ষতিকারক দিক সম্পর্কে সকলকে সচেতন করার দায় সেই সরকারেরই৷

সরকার না হয় তার চেষ্টা করল৷ কিন্তু তারপরেও ব্যক্তিমানুষ যদি নিজে উদ্যোগী না হয়, তার ফল কিন্তু হবে মারাত্মক৷ মোটাদের সুনামিতে ভরে যাবে এই গ্রহের পথঘাট৷ তাই এখন থেকেই সাধু সাবধান৷

প্রতিবেদন: সুপ্রিয় বন্দ্যোপাধ্যায়

সম্পাদনা : হোসাইন আব্দুল হাই

সংশ্লিষ্ট বিষয়