1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

সীমান্ত হত্যাকাণ্ডের মূল কারণ গরুর ব্যাবসা

বিজিবি-র মহাপরিচালক মনে করেন, বাংলাদেশ-ভারত সীমান্তে হত্যাকাণ্ডের প্রধান কারণ গরু ব্যাবসা৷ তিনি জানান, গত পাঁচ বছরে সীমান্তে ২১৪ জন বাংলাদেশি নিহত হয়েছেন৷ তবে এর পরেও সীমান্ত সম্পর্কের উন্নয়ন হয়েছে বলে দাবি করেছেন তিনি৷

বিজিবি-র মহাপরিচালক মেজর জেনারেল আজিজ আহমেদ বুধবার ঢাকায় এক সংবাদ সম্মেলনে জানান, চলতি বছরের ২০শে জুন পর্যন্ত পাঁচ বছরে সীমান্তে ২১৪ জন বাংলাদেশি নিহত হয়েছেন৷ আহত হয়েছেন ৩২৩ জন৷ আর এই সীমান্ত হত্যাকাণ্ডের মূল কারণ নাকি গরুর ব্যাবসা৷ তিনি জানান, যে কারণেই হত্যাকাণ্ড ঘটুক না কেন প্রতিটি হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় প্রতিবাদ জানানো হয়েছে৷ এই বছরেই ২৩শে জুন পর্যন্ত ৪৫টি প্রতিবাদপত্র পাঠানো হয়েছে বিএসএফ-এর কাছে৷ জানুয়ারি থেকে মে মাস পর্যন্ত বিএসএফ-এর সঙ্গে বিজিবি ২ হাজার ২২০টি পতাকা বৈঠক করেছে বিভিন্ন বিষয় নিয়ে৷ তবে তিনি মনে করেন, বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে সীমান্ত সম্পর্কের উন্নয়ন ঘটেছে৷

মেজর জেনারেল আজিজ আহমেদ জানান, বাংলাদেশের সঙ্গে ভারতের ৫০০ কি.মি. অরক্ষিত সীমান্ত রয়েছে৷ ঐ সীমান্তে টহল দিতে পারে না বিজিবি৷ বাংলাদেশ-ভারত সীমান্তে ৯৩৫ কি.মি. সড়ক নির্মাণের পরিকল্পনা হাতে নেয়া হয়েছে৷ তিন বছরের মধ্যেই এই সড়ক নির্মাণ শেষ হবে৷

TO GO WITH Bangladesh-India-border-history-enclaves,FEATURE by Shafiq AlamIn this photograph taken on December 10, 2010, an Indian security official opens the gate of Indian ruled Rangpur some 350 kms north from Dhaka. Little bits of India are in Bangladesh, and little bits of Bangladesh are in India. The existence of 'enclaves' on either side of the border is a bizarre anomaly that might finally be solved by a swap. The islands of land result from ownership arrangements made centuries ago between local princes, surviving partition of the sub-continent in 1947 after British rule, and Bangladesh's 1971 war of independence with Pakistan. AFP PHOTO (Photo credit should read STRDEL/AFP/Getty Images)

মেজর জেনারেল আজিজ আহমেদ মনে করেন, বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে সীমান্ত সম্পর্কের উন্নয়ন ঘটেছে৷

এদিকে আইন ও শালিস কেন্দ্রের পরিচালক নূর খান ডয়চে ভেলেকে বলেন, বিজিবি মহাপরিচালকের দেয়া পরিসংখ্যানই প্রমাণ করে যে বাংলাদেশ-ভারত সীমান্ত সম্পর্কের উন্নয়ন ঘটেনি৷ সীমান্তে হত্যাকাণ্ড অব্যাহত আছে৷ ভারতের সর্বোচ্চ রাষ্ট্রীয় পর্যায় থেকে বার বার সীমান্ত হত্যাকাণ্ড শূন্যের কোঠায় নামিয়ে আনার প্রতিশ্রুতি দেয় হলেও, তা কার্যকর হয়নি৷ তিনি বলেন, গরুর চোরাচালানির কারণে সীমান্তে হত্যাকাণ্ড ঘটছে – এটা বহু পুরনো কথা৷ ভারত থেকে বাংলাদেশে গরু রপ্তানির ব্যাবসা নিয়ন্ত্রিত৷ তাই দুই সরকারের উচিত আলাপ-আলোচনার মাধ্যমে এই ব্যাবসার ব্যাপারে ইতিবাচক সিদ্ধান্ত নেয়া৷ তিনি মনে করেন, গরু ব্যাবসাকে পুরোপুরি বৈধ করে দেয়া উচিত৷

নূর খান মনে করে,ন সীমান্ত হত্যাকাণ্ডের অন্যতম কারণ ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তে অবাঙালি বিএসএফ সদস্য নিয়োগ৷ ভাষা এবং সংস্কৃতির দূরত্বের কারণে ভুল বোঝাবুঝির সৃষ্টি হয়৷ তাই পাকিস্তান সীমান্তে কাজ করার মেজাজ নিয়ে বাংলাদেশ সীমান্তে কাজ করলে পরিস্থিতির উন্নতি হবে না৷

তিনি মনে করেন, সীমান্ত এলাকায় ব্যাবসা-বাণিজ্য, হাট-বাজার, যোগাযোগ এবং আত্মীয়-স্বজনের সঙ্গে দেখা সাক্ষাতের ব্যাপারে পাসপোর্ট ভিসার বিকল্প কোনো পদ্ধতি চালু করা যেতে পারে৷ এটা হতে পারে স্থানীয়ভাবে কোনো ধরণের অনুমতির ব্যবস্থা৷ এতে পরিস্থিতির উন্নতি হবে৷

ওদিকে বিজিবি মহাপরিচালক জানান, চলতি বছরের ১১ই জুন পর্যন্ত বাংলাদেশের সীমান্তরক্ষী বাহিনী ২ হাজার ৮৬৮ জন রোহিঙ্গাকে আটক করেছে৷ এদের মধ্যে ২ হাজার ৮৫৭ জনকে ‘পুশব্যাক' করা হয়েছে মিয়ানমারে৷ আর ১১ জনকে দেয়া হয়েছে পুলিশের হাতে৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়