1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সিরিয়া

‘সিরীয় হলেই শরণার্থীর আবেদন গ্রহণ করতে হবে এমন নয়'

যুদ্ধ থেকে বাঁচতে সিরিয়া থেকে জার্মানিতে আসা সবাইকে জেনেভা কনভেনশন অনুযায়ী শরণার্থী হিসেবে গ্রহণ করতেই হবে এমন নয়, বলছেন জার্মানির এক আদালত৷

২০১৫ সালে সিরিয়ার ৪৮ বছর বয়সি এক ব্যক্তি জার্মানিতে এলে তাঁকে ‘সাবসিডিয়ারি প্রোটেকশন' দেয়া হয়৷ কিন্তু তিনি মনে করেছিলেন, সিরিয়া থেকে আসার কারণে জেনেভা কনভেনশন অনুযায়ী তাঁর শরণার্থী হিসেবে থাকার সুযোগ পাওয়া উচিত৷ এই অধিকার পেতে তিনি নর্থরাইন ওয়েস্টাফালিয়া রাজ্যের ম্যুনস্টার শহরের প্রশাসনিক আদালতে আপিল করেন৷ আদালত তাঁর পক্ষে রায় দিলেও উচ্চ আদালতের বিচারকরা তা বাতিল করে দেন৷ তাঁরা বলেন, সিরীয়রা দেশে ফিরে গেলে যে তাঁদের উপর নিপীড়ন চালানো হবে, এমন কোনো প্রমাণ নেই৷ কাউকে শরণার্থী হিসেবে বিবেচনা করতে হলে তিনি যে তাঁর রাজনৈতিক মতবাদ কিংবা ধর্মের কারণে নিজ দেশে নিপীড়িত হতে পারেন, সেরকম প্রমাণ থাকতে হবে৷ এছাড়া কাউকে যদি তাঁর নিজ দেশে ফেরত পাঠালে তাঁর বিরুদ্ধে মানবাধিকার লঙ্ঘিত হওয়ার আশঙ্কা থাকে, তাহলে তাঁকে শরণার্থী হিসেবে গ্রহণ করা যেতে পারে বলেও মত দেন উচ্চ আদালত৷

উল্লেখ্য, সাবসিডিয়ারি প্রোটেকশন পাওয়া ব্যক্তিরা জার্মানিতে এক বছর থাকার ভিসা পান৷ আর যাঁরা শরণার্থী হিসেবে বিবেচিত হন, তাঁদের দীর্ঘমেয়াদি ভিসা দেয়া হয় এবং তাঁরা জার্মানিতে পরিবার নিয়ে আসার সুযোগ পান৷

এদিকে, উচ্চ আদালতের এই রায়কে প্রশাসনিক আদালতগুলোর বিচারকদের জন্য একটি শক্তিশালী সংকেত হিসেবে দেখা হচ্ছে৷ কারণ, শুধু নর্থরাইন ওয়েস্টফালিয়া নামের একটি রাজ্যের প্রশাসনিক আদালতগুলোতেই ১২ হাজারেরও বেশি আপিল জমা হয়েছে, যেখানে সিরীয়রা সাবসিডিয়ারি প্রোটেকশনের বিরুদ্ধে আপিল করেছেন৷

সিরিয়া নিয়ে শান্তি আলোচনা

জাতিসংঘের উদ্যোগে প্রায় ১০ মাস পর জেনেভায় শান্তি আলোচনা শুরু হতে যাচ্ছে৷ সিরিয়ার সরকার ও বিরোধীরা চতুর্থ রাউন্ডের এই আলোচনায় অংশ নেবেন৷ শেষ আলোচনা হয়েছিল গত এপ্রিলে৷ সেই সময় সিরিয়ায় সংঘাত বেড়ে যাওয়ায় কথাবার্তা বন্ধ হয়ে গিয়েছিল৷ এরপর সিরিয়ার সরকার বিদ্রোহীদের হাত থেকে বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ এলাকার নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নিতে সমর্থ হন৷ এর মধ্যে সরকারের সবচেয়ে বড় সাফল্য ছিল আলেপ্পোর নিয়ন্ত্রণ নেয়া৷

জেডএইচ/এসিবি (কেএনএ, ডিপিএ, এপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়