1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

সিরিয়া শান্তি সম্মেলনে বাধা

বিশ্বাসযোগ্য বিরোধী দল না পেলে জেনেভায় সিরিয়া শান্তি সম্মেলন হবে না৷ সাফ জানিয়ে দিলেন সিরিয়া বিষয়ক জাতিসংঘ-আরব লিগের দূত লাখদার ব্রাহিমি৷ যদিও রোববার আরব লিগ প্রধান নাবিল আল-আরাবি জানান যে, ২৩ নভেম্বর সম্মেলন হবে৷

সিরিয়ায় গত প্রায় ৩১ মাস ধরে সংঘর্ষ-সহিংসতা চলছে৷ মানবাধিকার সংগঠনগুলোর দেয়া তথ্য অনুযায়ী, এ পর্যন্ত সহিংসতায় প্রাণ হারিয়েছে ১ লাখ ১৫ হাজার মানুষ৷ সংকট সমাধানে পশ্চিমা বিশ্ব, আরব লিগ ও জাতিসংঘ গত বছর থেকে সিরিয়ার সরকার ও বিরোধী দল এবং আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের উপস্থিতিতে একটি শান্তি সম্মেলন আয়োজনের চেষ্টা করে যাচ্ছে৷ তবে এ পর্যন্ত নানা ইস্যুতে বেশ কয়েকবার বাতিল হয়েছে সম্মেলনটি৷

সম্মেলন আদৌ হবে কিনা – তা ঠিক করতে রোববার কায়রোতে আলোচনায় বসেছিলেন আরব লিগের প্রধান নাবিল আল-আরাবি এবং জাতিসংঘ-আরব লিগের বিশেষ দূত লাখদার ব্রাহিমি৷ এরপর সংবাদ সম্মেলনে আরাবি জানিয়েছিলেন যে, ২৩ নভেম্বর জেনেভায় এই শান্তি আলোচনার জন্য প্রস্তুতি চলছে৷

কিন্তু ব্রাহিমি এবার বললেন ভিন্ন কথা৷ বিশ্বাসযোগ্য বিরোধী দল অংশ না নিলে সম্মেলন আয়োজনের কোনো যৌক্তিকতা নেই বলে জানালেন তিনি৷ বললেন, সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদের বিরোধী একটি দল যারা সিরিয়ার সাধারণ মানুষের দাবিকে তুলে ধরবে, এমন দলের অংশগ্রহণ ছাড়া এ সম্মেলন অনুষ্ঠান হবে না৷ সম্মেলনের কোনো আনুষ্ঠানিক তারিখ নির্ধারণ হয়নি বলেও জানিয়েছেন তিনি৷ তবে তিনি আশা করছেন যে, নভেম্বর মাসেরই কোনো এক সময় এটি অনুষ্ঠিত হবে৷

Arab League Secretary-General Nabil Elaraby (R) listens as U.N.-Arab League envoy for Syria Lakhdar Brahimi speaks during a news conference at the Arab League headquarters in Cairo October 20, 2013. REUTERS/Mohamed Abd El Ghany (EGYPT - Tags: POLITICS)

শান্তি সম্মেলন হবে না জানালেন লাখদার ব্রাহিমি৷আর রোববার আরব লিগ প্রধান নাবিল আল-আরাবি জানান যে, ২৩ নভেম্বর সম্মেলন হবে৷

এই বাধা দূর করতেই হয়ত মঙ্গলবার লন্ডনে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরি ফ্রেন্ডস অফ সিরিয়া বৈঠকে অংশ নিচ্ছেন৷ এছাড়া, সংকট সমাধানে ব্রাহিমি খুব শিগগিরই মধ্যপ্রাচ্য সফরে যাচ্ছেন৷ কাতার, তুরস্ক, ইরান এবং সিরিয়া সফরও করবেন তিনি৷ দামেস্কের স্থানীয় পত্রিকা আল-ওয়াতান জানিয়েছে, আগামী সপ্তাহেই সিরিয়া সফরে যাচ্ছেন ব্রাহিমি৷

আগামী বছরের জুনের মধ্যে সিরিয়ার সরকার তাদের সব রাসায়নিক অস্ত্র ধ্বংস করে দিতে রাজি হওয়ার পর যুক্তরাষ্ট্র ও রাশিয়া এ সম্মেলন আয়োজনের ব্যাপারে ব্যাপক সচেষ্ট৷

আল-ওয়াতান আরো বলেছে, সিরিয়া ইস্যুতে মধ্যস্থতাকারী হিসেবে দামেস্ক ব্রাহিমিকে স্বাগত জানাতে প্রস্তুত৷ তবে আসাদকে পদত্যাগ করার শর্ত নিয়ে তারা কোনো আলোচনাতে যাবে না বলে সাফ জানিয়েছে সিরিয়া কর্তৃপক্ষ৷ তারা এও জানিয়ে দিয়েছে যে, কোনো স্বশস্ত্র বাহিনীর সাথে তারা আলোচনায় বসতে রাজি নয়৷ অন্যদিকে, বিদ্রোহী বেশ কয়েকটি দল এরই মধ্যে জানিয়েছে যে তারা এই সম্মেলনে অংশ নিতে আগ্রহী নয়৷

এদিকে, সিরিয়ার বিরোধী দল ন্যাশনাল কোয়ালিশন আম্ব্রেলা জানিয়েছে যে, আগামী কয়েকদিনের মধ্যে তারা আলোচনা করে ঠিক করবে যে তারা সম্মেলনে যোগ দেবে কিনা৷ অন্যদিকে, সিরিয়ান ন্যাশনাল কাউন্সিল জানিয়েছে, ঐ দল সম্মেলনে যোগ দিলে তারা এতে অংশ নেবে না৷

ওদিকে, সিরিয়ায় অব্যাহত রয়েছে সহিংসতা৷ রোববার হামা শহরে একটি ট্রাক বোমা বিস্ফোরণে ৩২ বেসামরিক নাগরিকসহ ৪৩ জন নিহত হয়েছে বলে জানিয়েছে সিরিয়ান অবজারভেটরি ফর হিউম্যান রাইটস৷ এর আগের দিন দামেস্কে একটি তল্লাশি চৌকির কাছে জিহাদি গ্রুপ আল-নোসরার চালানো গাড়ি বোমা হামলায় ১৬ সেনা নিহত হয়েছিল৷

এপিবি/ডিজি (এএফপি/এপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন