1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

সিরিয়া প্রশ্নে কঠোর হলেও সাবধানী ওবামা

জর্জ ডাব্লিউ বুশ আর বারাক ওবামার মধ্যে বড় একটা পার্থক্য আছে৷ বুশ আক্রমণাত্মক, তুলনায় ওবামা অনেক সহনশীল৷ এ কথাটা যে ভুল নয় সিরিয়া প্রশ্নে আবারো বোঝা গেল৷ ওবামা জানিয়েছেন, সিরিয়ার ব্যাপারে সিদ্ধান্তের আগে সব খতিয়ে দেখবেন৷

বিদ্রোহীদের বিরুদ্ধে প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদের অনুগত বাহিনী রাসায়নিক অস্ত্র ব্যবহার করেছে – এই তথ্য নিয়ে কয়েকদিন ধরেই বেশ তোলপাড় চলছে৷ মার্কিন গোয়েন্দাদের এই তথ্যকে ব্রিটেনও অমূলক বলছে না৷

US President Barack Obama speaks during the Organizing for Action dinner on March 13, 2013 at the St. Regis Hotel in Washington, DC. AFP PHOTO/Mandel NGAN (Photo credit should read MANDEL NGAN/AFP/Getty Images)

মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা

সিরিয়া রাসায়নিক অস্ত্র ব্যবহার করেছে এমন তথ্য তাদের কাছেও আছে বলে দাবি করেছে দেশটি৷ তবে সীমান্তের বাইরে নয়, ব্যবহৃত হয়েছে সিরিয়ার ভেতরে৷ তবে বাশার আল-আসাদ সরকারের বাহিনী নাকি বিদ্রোহীরা ব্যবহার করেছে, কবে করেছে, কীভাবে করেছে – এসব সম্পর্কে যুক্তরাষ্ট্র বা ব্রিটেন একেবারেই নিশ্চিত নয়৷ তথ্যে এই ফাঁকগুলোর কথা স্বয়ং ওবামাও বলেছেন৷ মঙ্গলবার তিনি বলেন, এসব বিষয়ে নিশ্চিত হওয়ার আগে সিরিয়ার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থার দিকে তিনি বা তাঁর দেশ যাবে না৷ অর্থাৎ বিদ্রোহীরা যুক্তরাষ্ট্রের কাছ থেকে যে অস্ত্র চাইছে, তা পাওয়ার সম্ভাবনা আপাতত নেই৷ রাসায়নিক অস্ত্র ব্যবহার করলে সিরিয়ার জন্য সেটা হবে শেষ সীমা লঙ্ঘন – বেশ আগেই দেয়া ওবামার এ হুমকির কারণে যাঁরা এক্ষুনি যুক্তরাষ্ট্রের সিরিয়া আক্রমণের সম্ভাবনা দেখছিলেন, তাঁদের অনুমানও আপাতত সত্যি হচ্ছে না৷

অথচ ওবামার পূর্বসূরি জর্জ ডাব্লিউ বুশ হলে কী হতো! পারমানবিক অস্ত্র আছে – এই অজুহাতে তাঁর আমলে ইরাকে হামলা চালিয়েছিল যুক্তরাষ্ট্র৷ পরে কিন্তু ইরাকে তেমন কিছুই পাওয়া যায়নি৷ বারাক ওবামা এবার অন্তত সেই পথে হাঁটছেন না৷

এসিবি/ডিজি (এএফপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন