1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

সিরিয়ায় শেষকৃত্যের মিছিলে নিরাপত্তা বাহিনীর গুলিবর্ষণ

সিরিয়ার শোকাহত মানুষের ওপর শনিবার গুলিবর্ষণ করেছে নিরাপত্তা বাহিনী৷ এতে অন্তত ৮ জন প্রাণ হারিয়েছে৷ শুক্রবারের নিহতদের শেষকৃত্যে মানুষের যোগদান প্রতিহত করতেই গুলিবর্ষণ করা হয়েছে বলে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন৷

default

নিহতদের দাফন অনুষ্ঠানে জনতার ঢল

শুধু নিরাপত্তা বাহিনী নয়, শোকাহত মানুষের শেষকৃত্য মিছিলে স্নাইপাররাও গুলি বর্ষণ করেছে৷ রাজধানীর শহরতলী দউমাতে স্নাইপারদের গুলিতে অন্তত ৩ জনের প্রাণ হারানোর খবর পাওয়া গেছে৷ এই সব ঘটনা ঘটেছে শুক্রবারে নিহত প্রায় ৯০ জনের শেষকৃত্য অনুষ্ঠানে যোগদানরত সাধারণ মানুষের ওপরে৷ এই নিয়ে শুক্রবার থেকে এই পর্যন্ত নিহতের সংখ্যা ১ শ'তে পৌঁছে গেছে৷ তবে শেষকৃত্য শেষ হবার পরে বিক্ষোভ আবারো দানা বাঁধবে এবং সহিংসতাও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে৷

প্রত্যক্ষদর্শী একজন মানবাধিকার কর্মী এএফপিকে টেলিফোনে জানিয়েছেন, শেষকৃত্য মিছিল কবরস্থানে যাবার পথে রাজধানীর শহরতলী দউমাতে ভবনের ছাদের ওপর থেকে বন্দুকধারীরা মিছিলের ওপরে গুলি ছোড়ে৷ দউমার একটি মসজিদ থেকে শেষকৃত্য মিছিলে অংশ নেন লাখ লাখ মানুষ৷

এছাড়া দক্ষিণাঞ্চলীয় শহর ইজরাতেও, সাধারণ মানুষের শেষকৃত্যে যোগদান প্রতিহত করতে সিরিয়ার নিরাপত্তা বাহিনী শোকাহত মানুষের ওপরকে গুলিবর্ষণ করেছে৷ এই খবর রয়টার্সকে জানিয়েছেন একজন প্রত্যক্ষদর্শী৷

Syria.jpg

বিক্ষোভকারীদের একাংশ

রাজনৈতিক মুক্তি এবং দুর্নীতি অবসানের দাবিতে সিরিয়ার সর্বত্র সরকার বিরোধী বিক্ষোভে ফেটে পড়েছে মানুষ৷ সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদ তাঁর ১১ বছরের শাসনামলের সবচেয়ে খারাপ সময়ের মুখোমুখি হয়েছেন৷ দেশটির দক্ষিণাঞ্চলীয় শহর দিরাতে গত ১৮-ই মার্চ শুরু হওয়া বিক্ষোভ প্রতিবাদে এই পর্যন্ত ৩ শতাধিক মানুষ প্রাণ হারিয়েছেন বলে মানবাধিকার কর্মীরা বলছেন৷

এদিকে সিরিয়ার সরকার বিরোধী বিক্ষোভে নিরাপত্তা বাহিনীর গুলিতে শুক্রবার প্রায় ৯০ জনের মৃত্যুর ঘটনায় বিশ্বব্যাপী তীব্র প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে৷ ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র ও ফ্রান্স৷ বিক্ষোভকারীদের ওপর দমন-পীড়ন এখনই বন্ধ করতে হবে বলে পরিষ্কার জানিয়ে দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা৷ শুক্রবারের সহিংসতার নিন্দা জানিয়ে ওবামা সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট আসাদকে ইরানের সাহায্যপ্রার্থী বলে অভিযুক্ত করেছেন৷

এক বিবৃতিতে ওবামা বলেন, ‘‘বিক্ষোভ দমনে বর্বরোচিত সহিংসতা এখনই বন্ধ হওয়া দরকার''৷ তিনি বলেন,‘‘নিজ দেশের জনগণের কথা শোনার চেষ্টা না করে প্রেসিডেন্ট আসাদ অন্য দেশকে দোষারোপ করছেন৷ সিরিয়ার গণজাগরণ দমাতে ইরানের সাহায্য নেওয়ার চেষ্টা করছেন, যারা বর্বরোচিত পন্থায় নিজ দেশে গণজাগরণ দমন করেছিল''৷

প্রতিবেদন: ফাহমিদা সুলতানা

সম্পাদনা: হোসাইন আব্দুল হাই

সংশ্লিষ্ট বিষয়