1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

সিরিয়ায় ভোটগ্রহণ, আসাদের জয় অনেকটাই নিশ্চিত

গত তিন বছর ধরে গৃহযুদ্ধ চলা সিরিয়ায় এখন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের ভোটগ্রহণ চলছে৷ সেদেশের মূল বিরোধী দল নির্বাচন বয়কট করেছে৷ আর শক্তিশালী বিরোধী পক্ষ ভোটাভুটিতে না থাকায় আসাদের জয় অনেকটাই নিশ্চিত৷

সিরিয়ার সরকার নিয়ন্ত্রিত এলাকায় মঙ্গলবার সকালে ভোটগ্রহণ শুরু হয়৷ সেদেশের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, দেড় কোটির বেশি মানুষকে ভোটাভুটিতে অংশ নেয়ার আহ্বান জানানো হয়েছে৷ তবে দামেস্ক সরকারের বিরোধী পক্ষ এই নির্বাচনকে ‘অবৈধ' আখ্যা দিয়েছে৷ রাজনৈতিক অ্যাক্টিভিস্টদের হিসাবে, দেশটিতে গৃহযুদ্ধে গত তিন বছরে এক লাখ ষাট হাজারের বেশি মানুষ প্রাণ হারিয়েছে৷

মঙ্গলবারের নির্বাচনে বর্তমানে ক্ষমতায় থাকা প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদের পুনরায় জয় লাভের বিষয়টি অনেকটা নিশ্চিত হয়ে গেছে৷ তবে সিরিয়ায় গত ৫০ বছরের ইতিহাসে এই প্রথম প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে একাধিক প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন৷ ২০০৭ সালে দ্বিতীয়বারের মতো সাত বছরের জন্য প্রেসিডেন্টের আসনে বসেন আসাদ৷ সেবার গণভোটের আয়োজন করা হয়, যেখানে আসাদের কোনো প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন না৷

Wahlen in Syrien Assad 03.06.2014

স্ত্রী আসমাকে নিয়ে ভোট দিতে যাচ্ছেন বাশার আল আসাদ

এবার দু'জন অপরিচিত ব্যক্তি প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে অংশ নিতে গত এপ্রিলে সিরিয়া সংসদের অনুমতি লাভ করেন৷ মাহের হাজ্জার এবং হাসান আল-নওরি গত এপ্রিলে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের প্রার্থী হন৷ তবে দেশটির পশ্চিমা সমর্থিত বিরোধী দল ‘ন্যাশনাল কাউন্সিল' নির্বাচন বর্জন করেছে এবং সেদলের নেতা আহমেদ আল-জেরবা ভোটের দিন সবাইকে ‘ঘরে অবস্থানের' আহ্বান জানিয়েছেন৷

মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন ক্যারি গত মাসেই সিরিয়ার নির্বাচনকে ‘সাজানো প্রহসন, একধরনের অপমান এবং জালিয়াতি' হিসেবে আখ্যা দেন৷ জার্মানিসহ এগারো দেশের সমন্বয়ে তৈরি ‘ফ্রেন্ডস অফ সিরিয়া গ্রুপ' এক যৌথ বিবৃতিতে এই নির্বাচনকে ‘গণতন্ত্রের প্যারোডি' হিসেবে অভিহিত করেছে৷

প্রসঙ্গত, সিরিয়ায় দীর্ঘদিন ধরে গৃহযুদ্ধ চলায় মঙ্গলবারের নির্বাচনে দেশটির অনেক অঞ্চলের মানুষ অংশ নিতে পারছেন না৷

Wahlen in Syrien

ভোট দিচ্ছেন এক সাধারণ ভোটার

শুধুমাত্র সরকার নিয়ন্ত্রত এলাকাগুলোর বাসিন্দারা ভোট দেওয়ার সুযোগ পাচ্ছেন৷ বিদ্রোহীদের দখলে থাকা রাজধানী দামেস্কের একাংশ, আলেপ্পো এবং উত্তরাঞ্চল ও দক্ষিণাঞ্চলের অনেক এলাকায় কোনো ভোটাভুটি হচ্ছে না৷

তবে গৃহযুদ্ধের কারণে দেশের বাইরে লেবানন এবং জর্ডানে অবস্থানরত অনেক সিরীয়কে ভোট দিতে আমন্ত্রণ জানিয়েছে সিরিয়ার সরকার৷

৪৮ বছর বয়সি বাশার আল আসাদ ২০০০ সালে তাঁর বাবা হাফেজের কাছ থেকে প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব নেন৷ সাত বছর মেয়াদি এই পদে তৃতীয়বারের মতো অবস্থান করতে মঙ্গলবারের নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন তিনি৷

এআই / ডিজি (এএফপি, এপি, রয়টার্স)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়