1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

‘সিদ্ আমার বয়ফ্রেন্ড নয়’ হাঁড়ি ভাঙলেন দীপিকা

সবটাই ছিল অফিসিয়াল৷ লোক টানতে আর ঝোল টানতে৷ ‘সিদ্ আমার বয়ফ্রেন্ড নয়৷’ বলিউডের চুলবুলি কন্যে দীপিকা একথা বলার পর মাল্যপুত্র কী খুশি হবেন? নাঃ! কিছুতেই না৷

default

বলিউড অত্রিনেত্রী দীপিকা

দীপিকা রাজি নন৷ শিল্পপতি বিজয় মাল্যর পুত্র সিদ্ বা সিদ্ধার্থ যে দীপিকার বিশেষ বান্ধব নন, সেকথা জানিয়ে দেওয়ার পর সিদ্ধার্থ কী আদৌ খুশি? শোনা যাচ্ছে, যে প্রেমের ঘোষণা হয়েছিল অনেক ঢাকঢোল পিটিয়ে, তা আসলে নাকি ব্যাবসায়িক কায়দা৷

ভারতের আকাশে তো বটেই, বিশ্বের বিভিন্ন দেশে বিমান উড়িয়ে সফল শিল্পপতি ড. বিজয় মাল্যর একমাত্র পুত্র সিদ্ধার্থ মাল্য তাঁর বাবার রঙিন ইমেজের খোলসে নিজেকে মুড়তে চেষ্টা করেই নাকি বলিউডি নায়িকা দীপিকাকে নিজের প্রেমিকা বলে ঘোষণা করে দিয়েছিলেন৷ তাই নিয়ে সংবাদমাধ্যম থেকে শুরু করে সর্বত্রই বেশ জোরালো আলোচনা চালু হয়েছিল, কিন্তু সেই নয় প্রেমের ঘুড়ির সুতো কেটে দিয়েছেন দীপিকা নিজেই৷

কেন এই নিষ্ঠুর প্রত্যাখ্যান? ‘লাভ আজকাল'-এর নরমসরম নায়িকার জবাব, ‘দেখুন সোজা কথা সোজা করে বললেই ভালো৷ সিদ্ ভালো ছেলে৷ আমার সঙ্গে একটু আধটু ফস্টিনস্টিও করেছে৷ কিন্তু সিদ্-এর সঙ্গে প্রেম করাটা আমার পক্ষে সম্ভব নয়৷ কারণ আমি একটা অন্য জীবন কাটাই আর ওর জীবনটা আলাদা৷ পরিবারেও মিলব না আমরা৷ তাছাড়া আমাকে মানুষ ভালোবাসে আমি যা তার জন্যই৷ আমার প্রেমিকের জন্য তো নয়...তাই...'

তো, তাই এই প্রত্যাখ্যান৷ সিদ্ধার্থ মাল্যর জবাব শোনা যায়নি৷ শোনা যাবেও না আর৷ বাবা বিজয়ের মত বলিউডে পা দিয়েই নিজেকে বিজয়ী ঘোষণা করা আর হল না মাল্যপুত্রর৷ দীপিকারও হল না ভারতের ধনী শিল্পপতি ঘরের বৌ হওয়ার সুযোগ৷

আসলে রণবীর কাপুরের সঙ্গে সম্পর্কটা ভেঙে যাওয়ার পর থেকে দীপিকা একটু মনমরা হয়ে আছে, বলেছে ওর বন্ধুরা৷ রণবীর আরও পাঁচটা মেয়ের সঙ্গে সম্পর্ক গড়েও দীপিকাকে ধরে রাখতে চেয়েছিল৷ সেটা কেনই বা দীপিকা মেনে নেবে? তারপর থেকেই এই মনমরা ভাব৷

তবে বলিউডের মিষ্টি নায়িকা এখন বয়ফ্রেন্ডের সন্ধানে আছে৷ কিংবা মাল্যকে ফিরিয়ে দিয়ে অন্তত বয়ফ্রেন্ডের জায়গাটা খালি রেখেছে৷ যোগ্য প্রার্থীরা চেষ্টা করে দেখতে পারেন৷

প্রতিবেদন : সুপ্রিয় বন্দ্যোপাধ্যায়

সম্পাদনা: আব্দুল্লাহ আল -ফারূক