1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

সারাদেশে সমাবেশের ঘোষণা হেফাজতের

সরকার অনুমতি না দেয়ায় মঙ্গলবার ঢাকার মহাসমাবেশ স্থগিত করা হয়েছে, বলে দাবি হেফাজতের৷ তবে পুলিশ বলছে হেফাজত নিজ থেকেই সমাবেশ স্থগিত করেছে৷ তাদের সমাবেশ করতে না দেয়ার ব্যাপারে কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি৷

তবে ঢাকায় সমাবেশ করতে না পারলেও সারাদেশে সমাবেশ করবে বলে জানিয়েছে হেফাজতে ইসলাম৷

সংগঠনটি তাদের ১৩ দফা দাবি আদায়ে ঢাকার শাপলা চত্বরে মহাসমাবেশের কর্মসূচি দিয়েছিল ২৪ ডিসেম্বর মঙ্গলবার৷ কিন্তু ঢাকায় এই সমাবেশের অনুমতি না পাওয়ার দাবি করে সোমবার এক সংবাদ সম্মেলনে সমাবেশ স্থগিতের ঘোষণা দেন সংগঠনের নেতারা৷ হেফাজতের নায়েবে আমির এবং ঢাকা মহানগরের আহ্বায়ক নূর হোসাইন কাসেমী বারিধারায় জামেয়া মাদানিয়া মাদ্রাসায় সংবাদ সম্মেলনে বলেন, যাবতীয় প্রস্তুতি থাকার পরও সরকারের বাধার কারণে তারা সমাবেশ করতে পারছেন না৷ তিনি জানান পুলিশের বাধার কারণে হেফাজতে ইসলামের আমির মাওলানা শাহ আহমেদ শফি ও মহাসচিব জুনায়েদ বাবুনগরী চট্টগ্রামের হাটহাজারি থেকে ঢাকায় রওয়ানা হতে পারেননি৷

হাটহাজারির সহকারী পুলিশ সুপার আ ফ ম নিজাম উদ্দিন জানান মাওলানা শাহ আহমেদ শফি ও জুনায়েদ বাবুনগরী চট্টগ্রামের হাটহাজারি বড় মাদ্রাসা থেকে সকাল ১১টার পর ঢাকায় যাওয়ার জন্য বের হন৷ তখন পুলিশের একটি দল তাদের ঢাকায় না যেতে অনুরোধ করলে তারা মাদ্রাসায় ফিরে যান৷

তবে এই ঘটনার পর হাটহাজারি মাদ্রাসার ভিতরে এক সংবাদ সম্মেলনে জুনায়েদ বাবুনগরী দাবি করেন পুলিশি বাধার কারণে তিনি এবং হেফাজতের আমির ঢাকা যেতে পারেননি৷ ঢাকায় সমাবেশ করতে না দেয়া হলে সারাদেশে জেলায় জেলায় সমাবেশ করা হবে বলে তিনি ঘোষণা দেন৷

এদিকে হেফাজতের দুই শীর্ষ নেতাকে পুলিশ ঢাকা যেতে দেয়নি এই খবরে হাটহাজারি মাদ্রাসার ছাত্রদের মধ্যে কিছুটা উত্তেজনা দেখা দেয়৷ তারা পুলিশের সঙ্গে বাকবিতন্ডা শুরু করে৷ কিন্তু শেষ পর্যন্ত পুলিশ তাদের শান্ত করতে সক্ষম হয়৷ অন্যদিকে ঢাকায় জামেয়া মাদানিয়া মাদ্রাসার চারপাশে ব্যাপক পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে৷ এই মাদ্রাসাটি পরিচালনা করেন হেফাজতের নায়েবে আমির নূর হোসাইন কাসেমী৷

হেফাজতে ইসলাম ঢাকার শাপলা চত্বরে মঙ্গলবারের সমাবেশের জন্য সরকার ও বিরোধী দল উভয়ের সহায়তা চেয়েছিল৷ সরকারের কাছে সমাবেশের অনুমতি ও নিরাপত্তা এবং বিরোধী দলের কাছে অবরোধ প্রত্যাহারের আবেদন জানিয়েছিল৷

তবে ঢাকা মহানগর পুলিশের যুগ্ম কমিশনার মনিরুল ইসলাম ডয়চে ভেলেকে বলেন, হেফাজত নিজে থেকেই সমাবেশ স্থগিত করেছে৷ বিরোধী দল অবরোধ প্রত্যাহার না করায় তাদের পক্ষে সমাবেশ করা সম্ভব ছিল না৷ সরকার হেফাজতকে সমাবেশের অনুমতি দেয়নি এই দাবি সঠিক নয়, বলে তিনি মন্তব্য করেন৷ তিনি বলেন হেফাজতকে সমাবেশ করতে অনুমতি দেয়া হবে কিনা সে সিদ্ধান্ত তারা নেননি৷ সিদ্ধান্ত নেয়ার আগেই তারা সমাবেশ স্থগিত করেছেন৷

গত ফেব্রুয়ারি মাসে মানবতাবিরোধী অপরাধে জামায়াত নেতা কাদের মোল্লার যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের পর এর প্রতিবাদে সর্বোচ্চ শাস্তির দাবিতে ব্লগারদের নেতৃত্বে গণজাগরণ মঞ্চ গড়ে ওঠে৷ আর এর পরই হেফাজতে ইসলাম সক্রিয় হয়৷ তারা ব্লগারদের ‘নাস্তিক ও মুরতাদ' ঘোষণা দিয়ে তাদের ফাঁসিসহ ১৩ দফা দাবিতে আন্দোলন শুরু করে৷ গত ৫ মে হেফাজতের ঢাকা অবরোধ এবং শাপলা চত্বরে সমাবেশকে কেন্দ্র করে ঢাকায় ব্যাপক নাশকতা এবং তান্ডবের ঘটনা ঘটে৷ বিপুল সম্পদের ক্ষতি ছাড়াও ১২ জন নিহত হয় ঐ ঘটনাকে কেন্দ্র করে৷ মতিঝিলের শাপলা চত্বরে র‌্যাব, পুলিশ অভিযান চালিয়ে তাদের হটিয়ে দেয়৷

যুগ্ম কমিশনার মনিরুল ইসলাম বলেন, অতীতে সমাবেশের নামে হেফাজত ঢাকায় ব্যাপক নাশকতা করেছে৷ তাই তাদের আবার পরিস্থিতি ঘোলাটে করার সুযোগ দেয়া যায় না৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়