1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

অন্বেষণ

সাগর, ম্যানগ্রোভ অরণ্য, কোরাল রিফ

কেনিয়ার মিডা ক্রিক উপহৃদ আর তার সামনের খোলা সমুদ্রের মধ্যে রয়েছে এক কোরাল রিফ৷ এই ম্যানগ্রোভ অরণ্যকে সাগরের ঢেউ থেকে বাঁচাচ্ছে কোরাল রিফ৷ আবার সেই কোরাল রিফকে মাটি ধুয়ে আসা বালি থেকে রক্ষা করছে ম্যানগ্রোভ অরণ্য৷

default

কেনিয়ার মিডা ক্রিক উপহৃদ

এরই নাম প্রকৃতির ভারসাম্য৷ কিন্তু মানুষ তার কতটা বোঝে? মিডা ক্রিকের মৎস্যশিকারি কাতানা গোনা৷ বাড়িতে তাঁর অপেক্ষায় রয়েছেন কাতানার তিন স্ত্রী ও ২৬টি সন্তান৷ অথচ জালে আগের মতো মাছ উঠছে না৷ কাতানার ভাষ্যে:

‘‘আগে আমরা নৌকা নিয়ে বেরিয়ে ৫০ থেকে ৬০ কিলো মাছ ধরতাম৷ তা বেচে আমার পরিবারের স্বচ্ছন্দে তিন-চারদিন কেটে যেত৷ আজকাল সারাদিন মাছ ধরে বড়জোর তিন বা চার কিলো মাছ হয়৷ মাঝে মাঝে তাও নয়৷''

অন্য জেলেরা সূক্ষ্ম বুনোটের জাল দিয়ে সব কচি মাছ তুলে ফেলেছে৷ মিডা ক্রিক আসলে উপহৃদ, জোয়ারের সময় সাগরের পানির সঙ্গেও পর্যাপ্ত পরিমাণ মাছ ঢোকে না৷ আজ যেমন কাতানার জালে শুধু একটিমাত্র মাছ পড়েছে৷ সেটিও আবার বিষাক্ত মাছ৷

মিডা ক্রিকের সামনেই খোলা সমুদ্র, যার ঢেউয়ের প্রকোপ থেকে উপহৃদকে বাঁচায় একটি কোরাল রিফ বা প্রবাল শৈলশিরা৷ বেঞ্জামিন কাউবার্ন ও তাঁর সঙ্গীটি কাজ করেন ‘আ রশা' নামধারী একটি আন্তর্জাতিক পরিবেশ সংগঠনের হয়ে৷ প্রবালগুলির পরিস্থিতি ও উপহৃদে কী পরিমাণ মাছ আছে, তাই নিয়ে তাদের গবেষণা৷ বেঞ্জামিন বলেন:

‘‘দু'টি হ্যাবিট্যাট পরস্পরের সঙ্গে পরিপূর্ণভাবে যুক্ত৷ মাছ ছোট থাকার সময় হ্রদের জলে থাকে, পরে বড় হয়ে প্রবাল শৈলশিরার দিকে চলে যায়৷

এছাড়া এমন সব প্রজাতির মাছও আছে, যারা ভিন্ন ভিন্ন সময়ে রিফ ও হৃদে তাদের খাবারের খোঁজ করে৷ কাজেই ও দুটি পরিবেশ সম্পূর্ণভাবে পরস্পরের সঙ্গে জড়িত এবং তাদের একটি অন্তর্হিত হলে, অন্যটিও ক্ষতিগ্রস্ত হবে৷''

কয়েক মাস যাবৎ গবেষকরা কোরাল রিফ-এর কী পরিমাণ ক্ষতি হয়েছে, সে বিষয়ে তথ্য সংগ্রহ করছেন৷ কোরাল রিফ আর মিডা ক্রিক লাগুন যে পরস্পরের উপর কতটা নির্ভরশীল, অধিকাংশ উপকূলবাসীর তা জানা নেই৷ সেই কারণে কাছাকাছি গ্রামগুলোর শিশুদের ইতিমধ্যেই পরিবেশ সম্পর্কে ক্লাস করানো হচ্ছে৷ শিক্ষক স্ট্যানলি বায়া মিডা ক্রিক ও কোরাল রিফের সংযোগসূত্রটি বোঝাতে গিয়ে বলেন:

‘‘এখানে একটা ভারসাম্য আছে; এই পরিবেশ প্রণালীর প্রতিটি অঙ্গ অপর অংশগুলির উপর নির্ভর৷ ম্যানগ্রোভ অরণ্যকে ক্ষয়ের হাত থেকে বাঁচাচ্ছে প্রবাল শৈলশিরা৷ সেই ম্যানগ্রোভ গাছগুলো আবার কোরাল রিফ-কে রক্ষা করছে৷ কেননা বর্ষায় মাটি ধুয়ে যে বালি এসে পড়ে, ম্যানগ্রোভ গাছগুলোর ঠেসমূল তাকে ধরে রাখছে, কাজেই সে বালি প্রবাল অবধি পৌঁছাতে পারছে না৷''

ভাটায় নানা ধরণের স্পঞ্জ, স্টারফিশ ও কাঁকড়া দেখা – এমনকি ধরাও যায়৷ এভাবেই ছোটরা তাদের নিজেদের উত্তরাধিকার, তাদের নিজেদের সম্পদকে রক্ষা করতে শেখে৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

ইন্টারনেট লিংক