সাগরের পরিমাপ চলছে ১০০ বছর ধরে! | অন্বেষণ | DW | 21.11.2016
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

অন্বেষণ

সাগরের পরিমাপ চলছে ১০০ বছর ধরে!

জার্মানির উত্তরে হেলিগোল্যান্ড, যা উত্তর সাগরের একটি দ্বীপপুঞ্জ৷ গত ১০০ বছরের বেশি সময় ধরে হেলিগোল্যান্ডের উপকূলে সাগরের পানির নমুনা সংগ্রহ করা হচ্ছে ও নানা তথ্য নথিবদ্ধ করা হচ্ছে, যা গবেষকদের কাছে অমূল্য৷

Nordsee Insel Helgoland (imago/H. Feddersen)

জার্মানির উত্তরে হেলিগোল্যান্ড দ্বীপপুঞ্জ

হেলিগোল্যান্ডের বন্দর ছেড়ে কারেন উইল্টশায়ার ও তাঁর সতীর্থেরা উত্তর সাগরে পানির নমুনা নিতে যাচ্ছেন৷ ওশেনোগ্রাফারদের সাগরে ভয় করলে চলে না৷ এছাড়া তাদের ধৈর্য থাকা চাই৷ সাগরের পরিবর্তন একদিনে চোখে পড়ে না৷ গবেষকরা বহু প্রজন্ম ধরে হেলিগোল্যান্ডের উপকূলে উত্তর সাগরের উপর নজর রেখে চলেছেন৷

কারেন উইল্টশায়ার জানালেন, ‘‘আমরা গত একশ' বছর ধরে এখানে পানির তাপমাত্রা মেপে আসছি৷ প্রত্যেক দিন সকালে ওপরের দিকের পানির তাপমাত্রা মাপা হয়, এই ধরুন এক মিটার গভীরে৷ বলতে কি, ঠিক একই থার্মোমিটার দিয়ে৷ আমরা যে মেপেছি, সেটা ভালোই, কেননা তা থেকে দেখা গেছে যে, তাপমাত্রা বেড়েছে৷''

গবেষকরা প্ল্যাঙ্কটনও পরীক্ষা করে দেখেন৷ পানির তাপমাত্রা বাড়ার অর্থ, পানির নীচে জীবজগতেরও পরিবর্তন ঘটছে৷ যেমন সাম্প্রতিক কয়েক বছরে ব্রাউন অ্যালজি, অর্থাৎ বাদামি শ্যাওলার পরিমাণ বেড়েছে৷'' এই সব খুঁটিনাটি থেকে সাগরের অবস্থা যাচাই করা যায়৷ আর সাগরের অবস্থার উপর গোটা পৃথিবীর অবস্থা নির্ভরশীল৷ কারেন উইল্টশায়ার বলেন, ‘‘সাগর না থাকলে জমিতেও আবহাওয়া সম্পূর্ণ অন্যরকম হতো৷ কাজেই সাগর কীভাবে কাজ করে তা বোঝা অত্যন্ত জরুরি – বিশেষ করে এখন, যখন সমস্তই বদলে যাচ্ছে, পৃথিবীর চারপাশে বায়ুমণ্ডল যেভাবে বদলে যাচ্ছে, কার্বন ডাই-অক্সাইডের পরিমাণ বাড়ছে, বিশ্বের উষ্ণায়ন বেড়ে চলেছে৷ কাজেই আমাদের বুঝতে হবে, সাগরে তার প্রতিক্রিয়া কী হবে৷''

সাগরের পানির নমুনা নেওয়া ওশেনোগ্রাফারদের কাজের একটা বড় অংশ৷ বোট ফিরল হেলিগোল্যান্ডে৷ পানির নমুনাগুলো এবার পরীক্ষাগারে যাবে৷ এতদিন ধরে সাগরের একই অংশের পানির নমুনা বিশ্বের আর কোথাও নেওয়া হয়েছে বলে জানা নেই৷

একটি দরজার পিছনে রয়েছে তথাকথিত ‘ফেরি বক্স'৷ ফেরি বক্স হলো একটি স্বয়ংক্রিয় পরিমাপ পদ্ধতি, যা দিনরাত কাজ করে৷ গত দশ বছর ধরে এখানে দিনরাত সাগরের পানি পাম্প করা হচ্ছে৷ তাপমাত্রা, লবণের মাত্রা, পিএইচ ভ্যালু – এ সব কিছু বাড়ছে না কমছে, কখন বা কোন মরসুমে, তা গবেষকরা জানতে পারেন ফেরি বক্সের সংগৃহীত তথ্য থেকে৷

প্রতিবেদন: মাবেল গুন্ডলাখ/এসি

সম্পাদনা: দেবারতি গুহ

নির্বাচিত প্রতিবেদন

ইন্টারনেট লিংক

সংশ্লিষ্ট বিষয়