1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

সাইবার সেলিব্রিটি মেল্টডাউন

রয়টার্সে দেখা গেল কথাটা৷ অর্থ বুঝতে আরো কিছুটা সময় লাগল৷ তারকাদের ওয়েবে গালিগালাজ, চেঁচামেচি, এই হল নাকি সর্বাধুনিক অনলাইন হিট৷

default

চার্লি শীন

মার্কিন মুলুকের তারকা চার্লি শীন যেটা প্রমাণ করে দিয়েছেন৷ গত এক বছর ধরে তাঁর চিকিৎসা চলেছে মাদক এবং সুরা আসক্তি থেকে মুক্তি পাবার জন্য৷ ‘টু এ্যান্ড এ হাফ মেন'-এর মতো জনপ্রিয় টিভি সিটকম লাটে উঠে গেল চার্লি শীনের দৌরাত্ম্যে৷ উল্টে এখন সেই ওয়ার্নার ব্রাদার্সের বিরুদ্ধেই দশ কোটি ডলার ক্ষতিপূরণের মামলা করে বসে আছেন চার্লি শীন৷

ওদিকে চার্লি শীন সিনেমা, টেলিভিশন ছেড়ে আজ ওয়েব-দুনিয়ার স্টার, কেননা তিনি নিজেই তাঁর ওয়েবকাস্টগুলো তৈরি করে অনলাইনে পোস্ট করেন৷ নাম দিয়েছেন ‘শীনস কর্নার'৷ অনলাইনে সেলিব্রিটিদের পতন, প্রকাশ্যে ফ্যানদের কাছে ক্ষমাপ্রার্থনা, ‘পুনর্বাসন' কেন্দ্রে যাত্রা, এ'সব কিছুই নতুন নয়৷ কিন্তু চার্লি শীন এবার সেটাকে ‘পিপল' ম্যাগাজিন কিংবা অপ্রা উইনফ্রে'র সাক্ষাৎকারে শেষ হতে না দিয়ে, ব্যাপারটাকে একটা নতুন পর্যায়ে নিয়ে গেছেন৷

শীন যেভাবে তাঁর ফ্যানদের খোলা এ্যাক্সেস দিয়েছেন তাঁর দুঃস্বপ্নের, তাঁর গোলমেলে আবেগ-অনুভূতির জগতে, ‘ওয়ায়'আর্ড' ম্যাগাজিনের সম্পাদিকা ন্যান্সি মিলার তার নাম দিয়েছেন: সেলিব্রিটি মেল্টডাউন - আণবিক চুল্লীতে বিস্ফোরণ ঘটলে যেমন চারদিকে তেজস্ক্রিয়তা ছড়িয়ে পড়ে, এ' হল অনেকটা সেরকম৷ শীন'এর এখন টুইটারে বিশ লক্ষ অনুগামী৷ তাঁর ওয়েবকাস্ট দেখা হয়েছে সাত লক্ষ বারের বেশি৷ তা'তে দেখা যাবে ৪২ বছর বয়সী শীন তাঁর নাকের ফুটো দিয়ে সিগারেট খাচ্ছেন, যথেচ্ছ মুখ খারাপ করছেন, আর একই কথা বার বার বলছেন - চিত্রনাট্য ছাড়া অভিনেতাদের যে দশা হয় আরকি!

প্রতিবেদন: অরুণ শঙ্কর চৌধুরী

সম্পাদনা: জাহিদুল হক