1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিজ্ঞান পরিবেশ

সাংবাদিক এবং অ্যাক্টিভিস্টদের রক্ষায় ‘প্যানিক বাটন'

আক্রমণের মুখে পড়া সাংবাদিক কিংবা অ্যাক্টিভিস্টরা যাতে দ্রুত সাহায্য চাইতে পারেন, সে জন্য এক বিশেষ মোবাইল অ্যাপ তৈরি করেছে অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল৷ সাংবাদিকরা এই উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন, তবে ঝুঁকিও আছে৷

বয়োজ্যেষ্ঠদের কাছে ‘প্যানিক বাটন' নতুন নয়৷ সাধারণত জরুরি চিকিৎসা সহায়তার জন্য এই বোতাম টেপেন তারা৷ তবে সেটা তাদের স্মার্টফোনে নয় বরং হাতে বাঁধা কোনো যন্ত্রে থাকে৷ আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংগঠন অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল এবার এই ‘প্যানিক বাটন' নিয়ে এসেছে সাংবাদিক এবং অ্যাক্টিভিস্টদের কাছে৷ স্মার্টফোনে থাকা বিশেষ বোতাম টিপে সাহায্য চাইতে পারবেন তারা৷

অ্যামনেস্টি এ জন্য তথ্য প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান আইআইল্যাবসহ কয়েকটি প্রতিষ্ঠানের সহায়তা নিয়েছে৷ তাদের তৈরি অ্যাপটি অনেকটা নীরবেই ব্যবহারকারীর বিপদের কথা তিনটি জরুরি নম্বরে মেসেজ আকারে পাঠাতে সক্ষম৷ এ জন্য শুধু ফোনের অন/অফ বোতাম নির্দিষ্ট নিয়মে কয়েকবার চাপতে হবে৷ এরপরই ফোন থেকে ব্যবহারকারীর জিপিএস লোকেশনসহ মেসেজ চলে যাবে কাঙ্খিত গন্তব্যে৷ আর অ্যাপটি স্মার্টফোনে অনেকটা গোপনই থাকে৷ সহজে সেটিকে সনাক্ত করাও সম্ভব নয়৷

আপাতত শুধু অ্যান্ড্রয়েডের জন্য রয়েছে এই অ্যাপ৷ গুগল স্টোর থেকে সেটা বিনা খরচায় ডাউনলোড করা যাবে৷ তবে একই ধরনের নামে আরো কয়েকটি অ্যাপস রয়েছে স্টোরে৷ তাই আইআইল্যাবের তৈরি অ্যাপটি বেছে নিতে অনুরোধ করেছে অ্যামনেস্টি৷ সংগঠনটির কর্মকর্তা তানিয়া ও'ক্যারল বলেন, ‘‘আমরা বর্তমানে ষোলটি দেশের অ্যাক্টিভিস্টদের অ্যাপটির বিষয়ে প্রশিক্ষণ দিচ্ছি৷''

Panic Button App von Amnesty International

এবার এই ‘প্যানিক বাটন' আসছে সাংবাদিক এবং অ্যাক্টিভিস্টদের কাছে

তবে সংকটপূর্ণ এলাকায় স্মার্টফোন ব্যবহারের ঝুঁকিও রয়েছে৷ তাই এই অ্যাপ ব্যবহারের জন্য ফোন চালু করে বিপদেও পড়তে পারেন সাংবাদিক কিংবা অ্যাক্টিভিস্টরা৷ সাংবাদিক এবং আলোকচিত্রী ডানিয়েল এটার এই বিষয়ে বলেন, ‘‘কয়েকবছর আগে আমি যখন প্রথম সিরিয়া গিয়েছিলাম, তখন কখনোই ফোন চালু করিনি৷''

এটার সে সময় সিরিয়ার বেশ কয়েকটি ঝুঁকিপূর্ণ এলাকায় একাধিকবার গেছেন এবং সেখান থেকে রিপোর্ট করেছেন৷ নিজের ব্যক্তিগত ফোন চালু না করায় নিজের পরিচয় গোপন রাখা সহজ হয়েছিল বলে মনে করেন তিনি৷ কেননা সিরিয়ার মোবাইল নেটওয়ার্কে কোনো বিদেশি ফোন শনাক্ত হলেই সে দেশের শাসকরা সেই ফোনের উৎস সন্ধান শুরু করে এবং সেটিকে নজরদারিতে রাখে৷ এমনকি ফোনের বাহককে আটকও করা হয়৷

এমন ঝুঁকি সত্ত্বেও বিপদের সময় স্মার্টফোন ব্যবহারের পক্ষে অবস্থান অনেকের৷ আর পুলিশ কিংবা সন্ত্রাসী যারাই আটক বা অপহরণের চেষ্টা করুক না কেন – সে খবর দ্রুত ছড়িয়ে দিতে সহায়তা করবে ‘প্যানিক বাটন৷' এটারও মনে করেন ঝুঁকিপূর্ণ অঞ্চলে কাজ করা সাংবাদিকদের রক্ষায় অ্যাপটি সহায়তা করতে পারে৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়