1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

সরকার বিরোধী বিক্ষোভে উত্তাল সিরিয়া

মধ্যপ্রাচ্যের একের পর এক দেশে শুরু হওয়া সরকার বিরোধী বিক্ষোভে নতুন করে যোগ হয়েছে সিরিয়া৷

default

লন্ডনভিত্তিক একটি মানবাধিকার গ্রুপের বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা এএফপি জানিয়েছে, সিরিয়া ২০০ জনেরও বেশি রাজনৈতিক বন্দীকে মুক্তি দিয়েছে৷

শুক্রবার জুম্মার নামাজের পর সিরিয়ায় বিক্ষোভকারী এবং নিরাপত্তা বাহিনীর মধ্যে বিভিন্ন সঙ্ঘর্ষে অন্তত ২৩ জন মানুষের প্রাণ যায় বলে প্রকাশ৷ এতেকরে সিরিয়ায় সরকার বিরোধী বিক্ষোভ আরও ছড়িয়ে পড়েছে৷

দক্ষিণের ডেরা শহরে বিক্ষোভ আরও তীব্র হচ্ছে৷ শান্তিপূর্ণ মিছিলের ওপর পুলিশের গুলি চালানোর খবরের পর আন্তর্জাতিক মহল শনিবার এর তীব্র নিন্দা করেছে৷ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র বলেছে, সিরিয়া প্রশাসন নির্মম দমননীতির ব্যবহার করছে বিক্ষোভ প্রশমন করতে৷ জাতিসংঘের মহাসচিব বান কি মুনও সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল আসাদকে সংযম প্রদর্শনের অনুরোধ জানিয়েছেন৷ সিরিয়ায় প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদ আর তাঁর পিতা হাফেজ আল-আসাদ চালাচ্ছে দীর্ঘদিনের কায়েমি শাসন৷ কিন্তু নিরাপত্তা বাহিনী দক্ষিণ সিরিয়ায় বেশ কয়েকজন আন্দোলনকারীদের হত্যা করার পর থেকেই সিরিয়ার মানুষদের ভয় এবং আতঙ্কের বাঁধ ভেঙে গেছে৷ গত বুধবার ডেরায় সংঘর্ষে ৩৭ জন নিহত হয়৷ তারপর থেকে দামেস্ক এবং হামা শহরে বিক্ষোভ শুরু হয়৷ অন্যদিকে বিক্ষোভ শুরুর পাশাপাশি বাড়তে থাকে নিরাপত্তা বাহিনীর কঠোর দমন অভিযান৷

এদিকে ইয়েমেনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবু বকর আল কারবী শনিবার বলেছেন, এখন সালেহ কিভাবে শান্তিপূর্ণ উপায়ে ক্ষমতা ছাড়তে পারেন, তা নিয়ে আলোচনা চলেছে৷ এরআগে ইয়েমেনের প্রেসিডেন্ট আলি আবদুল্লাহ সালেহ পদত্যাগের ঘোষণা করেছেন৷ এক সপ্তাহ আগে বন্দুকধারীরা সরকার বিরোধী আন্দোলনকারীদের উপর গুলি চালিয়ে ৫২ জন মানুষের প্রাণ নেয়৷ সে সময় থেকেই সালেহ চাপের মুখে ছিলেন৷ তার পর আবার এক পর্যায়ে কূটনীতিক, উপজাতীয় নেতা এবং বিশেষ করে মুখ্য জেনারেল আলি মোহসেনসহ সামরিক বাহিনীর জেনারেলরা সালেহ'র পক্ষ বর্জন করেছিলেন৷

প্রতিবেদন: জান্নাতুল ফেরদৌস

সম্পাদনা: সুপ্রিয় বন্দোপাধ্যায়

সংশ্লিষ্ট বিষয়