1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

সরকারের সঙ্গে সংলাপের দাবি ইচ্ছাকৃত গুজব: মোল্লা ওমর

ই-মেল বিবৃতিতে তালেবান নেতা মোল্লা ওমর আফগান সরকারের সঙ্গে আলোচনার সম্ভাবনা উড়িয়ে দিলেন৷ সপ্তাহান্তে ন্যাটো শীর্ষ সম্মেলনে আফগানিস্তান থেকে সেনা প্রত্যাহার নিয়ে আলোচনা হওয়ার কথা৷

default

মোল্লা ওমরকে স্বচক্ষে দেখেছে, এমন মানুষ বিরল

নাইন-ইলেভেনের প্রায় এক দশক পরেও মার্কিন ও কোয়ালিশন বাহিনী আফগানিস্তানে তালেবান বিদ্রোহীদের পুরোপুরি দমন করতে পারে নি৷ ইদানিং আফগান প্রেসিডেন্ট হামিদ কার্জাই সংলাপের মাধ্যমে তালেবানকে মূল স্রোতে ফিরিয়ে আনার উদ্যোগের কথা বলছেন৷ সোমবার তালেবান নেতা মোল্লা ওমর বললেন, আলোচনার দাবি গুজব ছাড়া আর কিছুই নয়৷

ঈদের ঠিক আগে সংবাদ মাধ্যমের কাছে পাঠানো এক ই-মেল বিবৃতিতে তালেবান নেতা মোল্লা ওমর কতগুলি বিষয় স্পষ্ট করে দিতে চেয়েছেন৷ প্রথমত, তালেবান এক দূর্নীতিগ্রস্ত, পুতুল প্রশাসনের সঙ্গে কোনো রকমের শান্তি আলোচনার বিরোধী৷ অতএব বর্তমানে তালেবানের সঙ্গে সংলাপ চলছে বলে যে দাবি করা হচ্ছে, তা ইচ্ছাকৃত গুজব ছাড়া আর কিছুই নয়৷ শত্রুপক্ষ তালেবান বিদ্রোহীদের হাতে নাস্তানাবুদ হয়ে এমন প্রচারণা চালাচ্ছে৷ সম্ভবত পাকিস্তানে গোপন ডেরা থেকে মোল্লা ওমর এই বার্তা পাঠিয়েছেন বলে মনে করা হচ্ছে৷ তালেবানকে যেহেতু কোনো একক শক্তি হিসেবে মনে করা হয় নি, তাই সংলাপের বিষয়টি নিয়ে বিভ্রান্তি রয়ে গিয়েছিল৷ মোল্লা ওমর এবার স্পষ্ট ভাষায় সেই বিভ্রান্তি কাটাতে চেয়েছেন৷ তাছাড়া তিনি সম্ভবত আন্তর্জাতিক বাহিনীর উদ্দেশ্যেও কড়া বার্তা পাঠাতে চেয়েছেন৷

Karsai / Afghanistan / London

তালেবানের সামনে মাথা ঝুঁকিয়েও কাজ হচ্ছে না

প্রেসিডেন্ট হিসেবে ক্ষমতায় ফিরে কার্জাই বিদেশী শক্তিগুলির থেকে নিজের একটা দূরত্ব দেখাতে চাইছেন৷ ফলে প্রায়ই তিনি আন্তর্জাতিক বাহিনীর কাজের সমালোচনা করে চলেছেন৷ সম্প্রতি তিনি আন্তর্জাতিক বাহিনীর কার্যকলাপ কমানোর – বিশেষ করে রাতে অভিযান বন্ধ রাখার যে ডাক দিয়েছেন, মার্কিন জেনারেল পেট্রেয়াস তার ফলে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন৷ কিন্তু এই অবস্থান সত্ত্বেও তালেবানের আস্থা তিনি অর্জন করতে পারছেন না৷

শুধু কার্জাই নন, অদূর ভবিষ্যতে আফগানিস্তান অভিযানের একটা ইতি টানতে চাইছে আন্তর্জাতিক বাহিনী৷ লিসবনে এই বিষয়টি প্রাধান্য পাবার কথা৷ আগামী বছরের গ্রীষ্ম থেকে শুরু করে ২০১৪ সালের মধ্যে ধাপে ধাপে পাততাড়ি গুটিয়ে নিতে চায় অ্যামেরিকা৷ আফগানিস্তানে মার্কিন বিশেষ দূত রিচার্ড হলব্রুক অবশ্য বলেছেন, ১৯৮৯ সালের মতো কোনো পরিকল্পনা ছাড়াই আচমকা ঐ অঞ্চল ছেড়ে চলে যাবে না৷ অর্থাৎ সেনা প্রত্যাহারের আগে আফগান সরকার, প্রশাসন ও নিরাপত্তা বাহিনীকে যথেষ্ট শক্তিশালী করে তুলতে হবে৷ এখন তালেবান যদি সংলাপ পুরোপুরি প্রত্যাখ্যান করে এই পরিকল্পনা বানচাল করতে চায়, সেক্ষেত্রে ন্যাটোকে নতুন করে ভাবনা-চিন্তা করতে হবে৷

প্রতিবেদন: সঞ্জীব বর্মন
সম্পাদনা: আব্দুল্লাহ আর ফারূক

সংশ্লিষ্ট বিষয়