1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

সরকারের পছন্দমত ফলের দিকেই এগোচ্ছে মিয়ানমার

রবিবারের বিতর্কিত নির্বাচনের পর মিয়ানমারের বিভিন্ন প্রান্তে অশান্তি ছড়িয়ে পড়ছে৷ এদিকে বিরোধী দলগুলি অনিয়মের অভিযোগ করছে৷ চীন এই নির্বাচনকে ‘অগ্রগতি’ হিসেবে আখ্যা দিয়েছে৷

default

গোটা বিশ্বে এই নির্বাচনের বৈধতা নিয়ে নানা প্রশ্ন উঠছে

সরকারের স্বস্তি

নির্বাচনের চূড়ান্ত ফলাফল এখনো প্রকাশ করা হয় নি৷ তবে সংসদের ২৫ শতাংশ আসন সামরিক সরকারের মনোনীত ব্যক্তিদের জন্য সংরক্ষিত৷ অর্থাৎ সরকারের পছন্দের দলগুলি মাত্র ২৬ শতাংশ ভোট পেলেও সংসদে সামরিক সরকারের সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিশ্চিত৷ এবারের নির্বাচনকে প্রহসন হিসেবে গণ্য করার এটাও একটা বড় কারণ৷ বাস্তবেও তেমনটাই দেখা যাচ্ছে৷ সামরিক সরকারের সমর্থক দুই প্রধান দল – ইউনিয়ন সলিড্যারিটি ও ডেভেলাপমেন্ট পার্টি সাফল্য পাবে, এমনটা ধরেই নেওয়া যায়৷ অং সান সু চি’র নেতৃত্বে প্রধান বিরোধী দল এবারের নির্বাচন বয়কট করেছে৷ তবে গণতন্ত্রপন্থী যে দলগুলি শেষ পর্যন্ত নির্বাচনে অংশ নিয়েছে, তারাও কারচুপির অভিযোগ করছে৷ এনডিএফ ও ডেমক্র্যাটিক পার্টি প্রথমে উৎসাহ দেখালেও এখন অনিয়মের অভিযোগ করছে৷

সীমান্তে অশান্তি

থাইল্যান্ড সীমান্তে সরকারি বাহিনীর সঙ্গে বিদ্রোহীদের সংঘর্ষের জের ধরে প্রায় দশ হাজার মানুষ সীমান্ত পেরিয়ে প্রতিবেশী দেশে আশ্রয় নিয়েছে৷ কারেন স্টেট’এর মিয়াওয়াদি শহরে হিংসাত্মক ঘটনার খবর পাওয়া গেছে৷ থাইল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী আপিসিত ভেজ্জাজিভা বলেছেন, সীমান্ত পেরিয়ে মিয়ানমারের যেসব শরণার্থীরা থাইল্যান্ডে প্রবেশ করেছে, তাদের জন্য মানবিক সাহায্য দিতে প্রস্তুত৷ আসলে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে সংখ্যালঘু গোষ্ঠীগুলির সঙ্গে মিয়ানমারের সামরিক সরকারের যে অস্ত্রবিরতির বোঝাপড়া চালু ছিল, নির্বাচনের পর তা নিয়ে অনিশ্চয়তা বাড়ছে৷ তাছাড়া এই সব গোষ্ঠীর নিজস্ব বাহিনীকে সরকার সীমান্তরক্ষী বাহিনীর কাঠামোর মধ্যে আনার চেষ্টা করায় উত্তেজনা বেড়ে চলেছে৷

আন্তর্জাতিক প্রতিক্রিয়া

মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা ভারতীয় সংসদে তাঁর ভাষণে মিয়ানমারের নির্বাচন ও সেদেশের সামরিক সরকারের কড়া সমালোচনা করেছেন৷ মনে রাখতে হবে, ভারত কৌশলগত কারণে মিয়ানমারের সরকারের সঙ্গে সহযোগিতার পথে চলছে৷ মিয়ানমারের সবচেয়ে বড় মদতদাতা দেশ চীন অবশ্য এই নির্বাচনকে স্বাগত জানিয়েছে৷ এক সরকারি সংবাদপত্রে এই নির্বাচনকে সঠিক দিশায় অগ্রগতি হিসেবে বর্ণনা করা হয়েছে৷

প্রতিবেদন: সঞ্জীব বর্মন
সম্পাদনা: আব্দুল্লাহ আল ফারূক

সংশ্লিষ্ট বিষয়