1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

সরকারি অভিযানে দিশেহারা বোকো হারাম

জানুয়ারি থেকে শুরু হওয়া সরকারি অভিযানের কারণে বোকো হারামে বিশৃঙ্খল পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে৷ নাইজেরিয়ার ঐ জঙ্গি গোষ্ঠীর নিয়ন্ত্রণ থেকে মুক্তি পাওয়া কয়েকজন নারী এমন তথ্য দিয়েছেন৷

বোকো হারাম গত বছর প্রায় দুই হাজার নারী ও তরুণীকে অপহরণ করে৷ এর মধ্যে এখন পর্যন্ত প্রায় ৭০০ জনকে মুক্ত করতে সমর্থ হয়েছে নাইজেরিয়ার সেনারা৷ উদ্ধার হওয়া প্রায় ২৭৫ জনকে আদামাওয়া রাজ্যে সরকার পরিচালিত একটি ক্যাম্পে রাখা হয়েছে৷ সেখানেই কয়েকজন নারীর সঙ্গে কথা বলেন রয়টার্সের প্রতিনিধি৷

এঁদের মধ্যে একজন ৪৫ বছর বয়সি আয়শা আব্বাস৷ দুই সন্তানের এই জননী রয়টার্সকে বলেন, শুরুতে বোকো হারামের প্রত্যেক জঙ্গির হাতে অস্ত্র থাকলেও শেষের দিকে তা দেখা যায়নি৷ তখন অল্প সংখ্যক জঙ্গিকে অস্ত্র নিয়ে থাকতে দেখা গেছে৷ এছাড়া জঙ্গিরা প্রায়ই তাঁদের সামনে পর্যাপ্ত অস্ত্র না থাকা এবং গাড়ি চালানোর মতো পর্যাপ্ত জ্বালানি না থাকার কথা বলাবলি করেছে বলে জানান আব্বাস৷

আদামাওয়া রাজ্যের ক্যাম্পে থাকা ২৭৫ জনের মধ্যে মাত্র ৬১ জনের বয়স ১৮ বছরের উপরে বলে জানিয়েছে রয়টার্স৷ যেসব শিশু ঐ ক্যাম্পে আছে, তাদের বেশিরভাগই অপুষ্টিতে ভুগছে বলে জানিয়েছে ঐ বার্তা সংস্থাটি৷

ক্যাম্পে থাকা আরেক নারী ১৮ বছরের বিনতা ইব্রাহিম জানান, জঙ্গিরা তাদের মাঝেমধ্যে খাবার দিত আর প্রায়ই প্রহার করতো৷ ‘‘এপ্রিলের এক সন্ধ্যায় বোকো হারামের জঙ্গিরা আমাদের সামনে দাঁড়িয়ে বলতে থাকে ‘আমাদের নেতারা আমাদের পর্যাপ্ত জ্বালানি আর অস্ত্র দিতে চায় না৷ আর এখন সৈন্যরা সাম্বিসায় অভিযান চালিয়ে আমাদের কাছে চলে আসছে'৷''

উল্লেখ্য, সাম্বিসা হচ্ছে একটি বন এলাকা৷ একমাত্র সেখানেই এখন বোকো হারামের কিছু উপস্থিতি রয়েছে বলে ধারণা করা হয়৷ অথচ গত বছরও তাদের হাতে বেলজিয়ামের চেয়েও বড় অংশের নিয়ন্ত্রণ ছিল৷ আর নাইজেরিয়ার বাইরে চাড, ক্যামেরুন আর নাইজারেরও তারা হামলা চালাতো৷

চিবকের ছাত্রীরা কোথায়?

প্রায় ছয় বছর ধরে তৎপর বোকো হারামের হামলায় ইতিমধ্যে কয়েক হাজার মানুষ প্রাণ হারিয়েছে আর প্রায় ১৫ লক্ষ মানুষ ঘরবাড়ি হারাতে বাধ্য হয়েছে৷ ২০১৪ সালে চিবক গ্রামের একটি স্কুলের প্রায় ২০০ ছাত্রীকে অপহরণ করে বিশ্বব্যাপী সাড়া ফেলে দেয় বোকো হারাম৷ উদ্ধার হওয়া নারীরা চিবকের ঐ অপহৃত ছাত্রীদের দেখতে পায়নি বলে রয়টার্সকে জানিয়েছে৷ তবে জঙ্গিদের উদ্ধৃত দিয়ে আব্বাস বলেন, ‘‘তারা (জঙ্গিরা) বলেছে চিবকের ছাত্রীদের এ বছর বিয়ে করা হয়েছে৷ কাউকে দাস হিসেবে বিক্রি করে দেয়া হয়েছে৷ আর বাকিদের জঙ্গিরা বিয়ে করেছে৷ একেকজন জঙ্গি দু'জন-চারজনকে একসঙ্গে বিয়ে করেছে৷''

গর্ভবতী

জাতিসংঘের সংস্থা ইউএনএফপিএ জানিয়েছে, প্রায় ২১৪ জনকে গর্ভবতী অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে৷ ইউএনএফপিএ নাইজেরিয়ার নির্বাহী পরিচালক বলছেন, ‘‘গর্ভবতীদের অনেকেই নানা অসুখে ভুগছেন, অনেকে এইচআইভি/এইডসে আক্রান্ত হয়েছেন৷''

জেডএইচ/ডিজি (রয়টার্স, ডিপিএ)

নির্বাচিত প্রতিবেদন