1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

‘সরকারকে বড় খেসারত দিতে হবে’

সংবিধান সংশোধনে গঠিত বিশেষ কমিটির বৈঠক, নিউ ইয়র্কে খালেদা জিয়ার সংবাদ সম্মেলন এবং শেয়ারবাজারের তদন্ত প্রতিবেদন - এসবই আজ রবিবারের ঢাকার পত্রপত্রিকার প্রধান প্রধান খবর৷

Autor: Mr. Harun Ur Rashid Swapan Caption: Hundreds of angry investors have taken to the streets in Motijheel and Dilkusha in the capital of Bangladesh, Dhaka, after regulators halted share trading following the record fall of the prime bourse. Schlagworte: Bangladesh, Dhaka, Stoke exchange, the Securities and Exchange Commission, Investor of Bangladesh.

সংবিধান সংশোধন

শনিবার বিশেষ কমিটি বৈঠকে বসে৷ সেই বৈঠক সম্পর্কে যুগান্তর বলছে, তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থার ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবেন প্রধানমন্ত্রী, এরকম একটি সিদ্ধান্ত নিয়েছেন কমিটির সদস্যরা৷ কারণ তাঁরা মনে করছেন বিষয়টি রাজনৈতিক, তাই এ ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রীরই সিদ্ধান্ত নেয়া উচিত৷ এজন্য কমিটি আজ রবিবার সন্ধ্যায় প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকে বসতে পারে বলে জানিয়েছে পত্রিকাটি৷ এই বৈঠকের পর আবারও মিলিত হয়ে কমিটির সদস্যরা তাদের প্রতিবেদন চূড়ান্ত করবে বলে জানা গেছে৷ এদিকে বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম বলছে আগামী দুই মেয়াদের পর নির্বাচন কমিশনের অধীনে নির্বাচন করতে একমত হয়েছেন কমিটির সদস্যরা৷ সমকাল বলছে বিশেষ কমিটি নির্বাচন কমিশনকে স্বাধীন ও শক্তিশালী করার সুপারিশ করবে৷ এছাড়া কমিশনকে আর্থিক স্বাধীনতা দেয়ার ব্যাপারেও কমিটির সদস্যরা একমত হয়েছেন বলে জানিয়েছে পত্রিকাটি৷

খালেদা আজ দেশে ফিরছেন

মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিলারি ক্লিন্টন ও ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরনের সাক্ষাৎ না পাওয়ায় খালেদা জিয়ার যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্য সফর সফল হয়েছে কি না তা নিয়ে দল ও দলের বাইরে বেশ আলোচনা চলছে৷ এ ব্যাপারে দলের ভাইস চেয়ারম্যান শমসের মবিন চৌধুরী, যিনি খালেদার অন্যতম সফরসঙ্গী, নিউ ইয়র্কে এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন হিলারি ক্লিন্টন ইউরোপ সফরে না থাকলে তাঁর সঙ্গে খালেদা জিয়ার বৈঠক হতে পারত৷ এছাড়া তিনি বলেন হিলারির সঙ্গে খালেদা জিয়ার বৈঠক হবে, এমন ঘোষণা দল থেকে দেওয়া হয়নি৷

শেয়ারবাজার

কালের কন্ঠ একটি গোয়েন্দা প্রতিবেদনের উল্লেখ করে বলেছে শেয়ার কেলেঙ্কারির সঙ্গে জড়িতদের বিচার না করলে এবং বাজার স্থিতিশীল না করলে সরকারকে বড় ধরনের খেসারত দিতে হতে পারে৷ এছাড়া নিঃস্ব বিনিয়োগকারীরাও এক্ষেত্রে ক্ষোভে-দুঃখে সরকারবিরোধী তৎপরতায় জড়িয়ে পড়তে পারেন বলে ঐ গোয়েন্দা প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে৷ ইতিমধ্যে প্রতিবেদনটি সরকারের বরাবর পাঠানোও হয়েছে বলে পত্রিকাটি জানিয়েছে৷

গ্রন্থনা: জাহিদুল হক

সম্পাদনা: রিয়াজুল ইসলাম

সংশ্লিষ্ট বিষয়