1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

সম্প্রচার নীতিমালা যেন সহায়ক হয়

টেলিভিশন, রেডিও সহ ইলেকট্রনিক গণমাধ্যমের জন্য সম্প্রচার নীতিমালা প্রয়োজন বলে মনে করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা৷ তবে এই নীতিমালা সম্প্রচার সাংবাদিকতার স্বাধীনতার জন্য সহায়ক হতে হবে, বলে মন্তব্য বিশেষজ্ঞদের৷

Sheikh Hasina

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রবিবার সচিবালয়ে তথ্য মন্ত্রণালয় পরিদর্শনে গিয়ে কর্মকর্তাদের উদ্দেশে দেয়া ভাষণে বলেন, ‘‘গণমাধ্যমের স্বাধীনতার অর্থ শুধু মনের মাধুরী মিশিয়ে লিখে যাওয়া নয়৷ বস্তুনিষ্ঠ, গঠনমূলক ও মননশীল চর্চার মাধ্যমে মিডিয়াকে এই স্বাধীনতা ভোগ করতে হবে৷''

তিনি বলেন, ‘‘প্রত্যেক দেশেই সম্প্রচার নীতিমালা আছে৷ সমাজের জন্য ক্ষতিকারক ও নোংরা কিছু প্রচার রোধে আমাদেরও ইলেকট্রনিক গণমাধ্যম, টেলিভিশন ও বেতারের জন্য নীতিমালা প্রয়োজন৷''

সংবাদপত্রের নীতিমালা সম্পর্কে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘‘গণমাধ্যমকে আমরা নিয়ন্ত্রণ করতে চাই না৷ তবে আশা করব সমাজ, পরিবার ও দেশের জন্য সহায়ক শক্তি হিসেবে গণমাধ্যম কাজ করে যাবে৷'' তিনি বলেন, ‘‘গণমাধ্যমের স্বাধীনতা থাকতে হবে, কিন্তু খবর ও মতামতে সব সময়ই বিবেক-বুদ্ধি এবং সমাজের প্রতি দায়িত্ববোধের পরিচয় দিতে হবে৷''

শেখ হাসিনা বলেন, ‘‘অনলাইন মিডিয়া সৃষ্টি হয়েছে এবং দ্রুত এর বিস্তার লাভ করছে৷ সামাজিক ওয়েবসাইটগুলোর ব্যবহারও দিন দিন বাড়ছে৷ তবে প্রকৃত সামাজিক সুবিধা গ্রহণে এসব ব্যবহারে আরও সচেতন হতে হবে৷ এর অপব্যবহার থেকে সমাজ, শিশু ও তরুণদের রক্ষা করতে হবে৷'' এ জন্য সামাজিক সচেতনতা বাড়ানোর তাগিদ দিয়ে তিনি তথ্য মন্ত্রণালয়কে আরও তৎপর হওয়ার নির্দেশ দেন৷

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফিল্ম অ্যান্ড মিডিয়া স্টাডিজ বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. শফিউল আলম ডয়চে ভেলেকে বলেন, ‘‘দেশে প্রিন্ট মিডিয়ার জন্য নীতিমালা থাকলেও সম্প্রচার সাংবাদিকতা মানে টেলিভিশন, রেডিওর জন্য এখনো কোনো নীতিমালা নেই৷ এটা থাকা প্রয়োজন৷ উন্নত বিশ্বে সাংবাদিক ইউনিয়নগুলো নিজেরাই কোড অব কন্ডাক্ট বা আচরণ বিধি তৈরি করে৷ আর নীতিমালা তৈরি হয় সংশ্লিষ্ট সবপক্ষের সমন্বয়ে৷ বাংলাদেশেও সেভাবেই হতে পারে৷'' তবে তাঁর কথা, ‘‘এসব যেন মুক্ত এবং স্বাধীন সাংবাদিকতার জন্য সহায়ক হয়৷ সংবাদ মাধ্যমের স্বাধীনতা খর্ব হয় এমন কিছু করা ঠিক হবে না৷'' তিনি বলেন, ‘‘সাংবাদিক এবং সংবাদমাধ্যমকেও মনে রাখতে হবে স্বাধীনতার জন্য প্রয়োজন সঠিক এবং বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ৷ স্বাধীনতাকে অবশ্যই জবাবদিহিতার মধ্য দিয়ে প্রতিষ্ঠা করতে হয়৷''

এদিকে ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সাবেক সভাপতি মোহাম্মদ ওমর ফারুক ডয়চে ভেলেকে জানান, ‘‘সম্প্রচার সাংবাদিকতার নীতিমালার জন্য সাংবাদিক ইউনিয়ন থেকেও বার বার দাবি জানানো হয়েছে৷ আর এই দাবির প্রেক্ষিতে কিছু কাজও হয়েছে৷ কিন্তু তা কোন পর্যায়ে রয়েছে তা জানা নেই৷'' তিনি বলেন, ‘‘বাংলাদেশের মুদ্রিত সংবাদপত্র একটি নীতিমালা মেনে চলে৷ টেলিভিশন এবং রেডিওর জন্যও এটা প্রয়োজন৷ এটা হলে সবার জন্যই সুবিধা৷ কিন্তু একপাক্ষিক নয়, সবার সঙ্গে আলোচনা এবং ঐকমত্যের ভিত্তিতেই নীতিমালা চূড়ান্ত করতে হবে৷'' তিনি বলেন, ‘‘সম্প্রচার সাংবাদিকতাকে অবশ্যই জবাবদিহিতার আওতায় আনতে হবে৷ তবে তা হতে হবে স্বাধীন সাংবাদিকতার জন্য৷''

অনলাইন সংবাদ মাধ্যমের ব্যাপারেও এই দু'জন নীতিমালা গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করেন৷ উল্লেখ্য, অনলাইন সংবাদ মাধ্যমের ব্যাপারে একটি খসড়া নীতিমালার কাজ চলছে৷

বাংলাদেশে এখন সরকারি তিনটিসহ মোট টেলিভিশন চ্যানেল ২৮টি৷ এরমধ্যে তিনটির সম্প্রচার বন্ধ আছে৷ এছাড়া আরো ১০টির বেশি বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল লাইসেন্স পেয়েছে৷ আর একটি সরকারি ছাড়া বেসরকারি এফএম রেডিও আছে ১৩টি৷ এর বাইরে কমিউনিটি রেডিও আছে ১৪টি৷ আছে ৬টি অনলাইন রেডিও৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়