1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

সমালোচনার ভয়ে আগেভাগেই পুটিনের ফেরা?

জি-টোয়েন্টি সম্মেলন থেকে আগেভাগেই ফিরেছেন ভ্লাদিমির পুটিন৷ চলছে আলোচনা-সমালোচনা৷ রুশ মিডিয়ার একাংশ বলছে, সমালোচনা এড়াতেই এভাবে ব্রিসবেন ছেড়েছেন পুটিন৷ তবে রুশ প্রেসিডেন্ট এখনো ইউক্রেন সংকট নিরসনের ব্যাপারে আশাবাদী৷

অস্ট্রেলিয়ার ব্রিসবেনে অনুষ্ঠিত এবারের জি-টোয়েন্টি শীর্ষ সম্মেলন থেকে নির্ধারিত সময়ের আগেই ফিরে গেছেন ভ্লাদিমির পুটিন৷ রাশিয়ার পুটিন-বিরোধী সংবাদ মাধ্যম বিষয়টিকে ভালোভাবে নেয়নি৷ তারা মনে করে, ইউক্রেন নিয়ে পশ্চিমা দেশগুলোর সমালোচনার তোপের মুখে পড়তে হবে জেনেই আগেভাগে ব্রিসবেন ছাড়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন রুশ প্রেসিডেন্ট৷ তাতে সমালোচনা অবশ্য এড়ানো যায়নি৷ ক্রাইমিয়ায় রুশপন্থিদের মদত দিয়ে ইউক্রেন সংকট আরো ঘনীভূত করার অভিযোগে পশ্চিমা বিশ্ব রাশিয়ার ওপর যে কঠোর অর্থনৈতিক অবরোধ আরোপ করেছে, সেই অবরোধও কার্যকর আছে৷

জি-টোয়েন্টি সম্মেলনে রাশিয়ার কঠোর সমালোচনা করেছেন জার্মানির চ্যান্সেলর আঙ্গেলা ম্যার্কেল৷ সেখানে নিজের ভাষণে ম্যার্কেল বলেন,

Merkel Rede Lowy Institut in Sydney 17.11.2014

ম্যার্কেল জানিয়েছেন, পশ্চিমা বিশ্ব কূটনৈতিকভাবে ইউক্রেন সংকট নিরসনের চেষ্টা করছে

‘‘(বার্লিন) প্রাচীর পতনের ২৫ বছর পর, শীতল-যুদ্ধ অবসানের এত বছর পর, ইউরোপ থেকে বিভাজন দূর হওয়ার পর, দ্বিখণ্ডিত অবস্থা থেকে এ বিশ্ব বেরিয়ে আসার পর ইউরোপের কেন্দ্রস্থলে এমন কিছু যে হতে পারে তা কে ভেবেছিল?'' ইউক্রেনে রাশিয়ার প্রভাব দীর্ঘস্থায়ী হবেনা- এমন মত প্রকাশ করে জার্মান চ্যান্সেলর অবশ্য এ-ও জানিয়েছেন, পশ্চিমা বিশ্ব কূটনৈতিকভাবে ইউক্রেন সংকট নিরসনের চেষ্টা করছে৷

এদিকে জি-টোয়েন্টি সম্মেলন থেকে আগেভাগে বেরিয়ে এলেও জার্মান টেলিভিশন চ্যানেল এআরডি-কে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে ইউক্রেন নিয়ে কথা বলেছেন ভ্লাদিমির পুটিন৷ সেখানে সংকট নিরসনের ব্যাপারে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন তিনি৷ পুটিন এখনো মনে করেন, আলোচনার মাধ্যমেই পরিস্থিতির উন্নয়ন সম্ভব৷ রাশিয়ার ভ্লাদিভোস্তক শহরে নেয়া ৩০ মিনিটের এ সাক্ষাৎকারে রুশ-জার্মান সম্পর্ক উত্তরোত্তর উন্নয়নের বিষয়েও আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন তিনি৷ জি-টোয়েন্টি সম্মেলন উপলক্ষে ব্রিসবেনে যাওয়ার পর জার্মানির চ্যান্সেলর আঙ্গেলা ম্যার্কেলের সঙ্গে বৈঠক হয়েছে তাঁর৷ সে বৈঠকের বিস্তারিত এখনো জানা যায়নি৷

এসিবি/জেডএইচ (এএফপি, রয়টার্স)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়