1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

সমকামিতা অবৈধ রায়ে হতাশ আমির খান

ভারতে সমকামিতা অবৈধ বলে রায় দেয়ায় হতাশা প্রকাশ করেছেন বলিউড তারকারা৷ তাঁরা মনে করেন, সুপ্রিম কোর্টের রায়ে সমকামিতাকে অপরাধ হিসেবে বিবেচনা করা হয়েছে, যা মৌলিক মানবাধিকারের লঙ্ঘন৷

হলিউড তারকা এং মানবাধিকার কর্মী মিয়া ফারোও বলিউড তারকারদের সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করে আদালতের রায়ের সমালোচনা করেছেন৷ রায় ঘোষণার দিনটিকে তিনি ভারতের স্বাধীনতা এবং মানবাধিকারের আলোকে ‘‘একটি কালো দিন'' হিসেবে আখ্যা দিয়েছেন৷

এক বিবৃতিকে বলিউড তারকা আমির খান জানিয়েছেন, ‘‘আমি এই রায়ে অত্যন্ত হতাশ৷ এটা অগ্রহণযোগ্য এবং মৌলিক মানবাধিকারের লঙ্ঘন৷''

অভিনেতা জন আব্রাহাম টুইটারে লিখেছেন, ‘‘সুপ্রিম কোর্ট সমকামিতাকে অপরাধ বলছে... এটা লজ্জার কথা৷'' চলচ্চিত্র নির্মাতা অনির - যিনি সমকামীদের অধিকারের দাবিতে সোচ্চার - জানিয়েছেন, ভারতের গণতন্ত্রের ইতিহাসে এটা একটি কালো দিন হয়ে থাকবে৷

Symbolbild Valentinstag lesbisches Paar Pärchen Homosexualität

সমকামিতার বিষয়টি নিয়ে গোটা বিশ্বে বিতর্ক রয়েছে

প্রসঙ্গত, সমকামিতার বিষয়টি নিয়ে গোটা বিশ্বে বিতর্ক রয়েছে৷ নেদারল্যান্ডস হচ্ছে পৃথিবীর প্রথম দেশ যেখানে সমলিঙ্গের মধ্যে বিয়ে বৈধ ঘোষণা করা হয়৷ ২০০১ সালের এপ্রিল থেকে সেদেশে এটি কার্যকর আছে৷ ২০০৩ সালের জুন মাসে নেদারল্যান্ডসের প্রতিবেশী দেশ বেলজিয়ামে সমলিঙ্গের মধ্যে বিবাহ বৈধ করা হয়৷ অন্যদিকে আইসল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী ইওয়াহানা সিগুরডোটির এবং তাঁর সঙ্গিনী ইওহিনা লিওসডোটির সমকামীদের বিয়ে বৈধ ঘোষণার পর প্রথমেই সেই সুযোগ নিয়েছেন৷ সিগুরডোটির হচ্ছেন পৃথিবীর প্রথম মেয়ে সমকামী রাষ্ট্রপ্রধান৷

২০০১ সাল থেকে সমলিঙ্গ যুগলের বিয়ের রেজিস্ট্রেশন বৈধ করেছে জার্মানি৷ এই প্রক্রিয়ায় জার্মানিতে বিয়ের সুযোগ সুবিধার অনেকটাই পান সমকামীরা৷ কিন্তু যৌথভাবে সন্তান দত্তক নেওয়া কিংবা পূর্ণ আয়কর সুবিধা এখনো পায় না সমকামী দম্পতিরা৷ চলতি বছরের জানুয়ারিতে পরিচালিত এক জরিপে দেখা গেছে, জার্মানির ৬৬ শতাংশ জনসাধারণই সমকামীদের মধ্যে বিয়ের পক্ষে৷

উল্লেখ্য, গত জুলাইয়ে বাংলাদেশে দুই তরুণীর মধ্যে মালাবদল নিয়ে সৃষ্টি হয় ব্যাপক বিতর্ক৷ ২১ বছর বয়সি শিক্ষিকা সানজিদা আর তাঁর ছাত্রী, ১৬ বছর বয়সি শ্রাবন্তী রায়ের মধ্যকার প্রেমের সম্পর্ক মোটেই স্বাভাবিকভাবে নেয়নি সমাজ৷ এমনকি বাড়ি ছেড়ে পালিয়ে গিয়েও রেহাই পাননি তারা৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়