1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

সন্তানের মৃত্যুতে মাত্র ৫৬ ডলার!

এক সন্তান নীতি কঠোরভাবে অনুসরণ করে আসছে চীন৷ একমাত্র সন্তান মারা গেলে ‘ক্ষতি’ পোষাতে মা-কে টাকা দেয়া হয়৷ মায়েদের দাবির মুখে টাকার অঙ্কটা বাড়ানো হচ্ছে৷ এখন থেকে সন্তানহারা মা-কে প্রতি মাসে ৫৬ ডলার দেবে চীন সরকার৷

বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তান এবং এমন আরো কিছু দেশের মতো চীনের মানুষও বার্ধক্যের কষ্টের কথা ভেবেই মূলত সন্তান নিতে চায়৷ বুড়ো বয়সে সন্তান পাশে থাকবে – এই ভাবনা থেকে যার যত খুশি সন্তান নেয়ার সুযোগ কিন্তু চীনে নেই৷ বিশ্বের সবচেয়ে জনবহুল দেশটিতে কেউ চাইলেও একটির বেশি সন্তান নিতে পারেন না৷ এই ‘এক সন্তান নীতি'র কারণেই বিপুল জনসংখ্যা এখনো দেশের জন্য বোঝা হয়ে ওঠেনি, বলে মনে করে চীনের জনস্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কমিশন৷ সরকারিভাবে দাবি করা হয়, এক সন্তান নীতি অবলম্বন না করলে আশির দশক থেকে এ পর্যন্ত কমপক্ষে আরো চল্লিশ কোটি শিশু জন্ম নিতো৷

যেসব এক সন্তানের জনক-জননী একটু বেশি বয়সে সন্তান হারান তাঁদের প্রতি চীন সরকার কিছুটা সহানুভূতিশীল৷ বাবা-মায়ের উপার্জন করার মতো শারীরিক সক্ষমতা না থাকলে সন্তানদের মুখাপেক্ষী হতেই হয়৷

Familienpolitik in China Frau mit Kinderwagen

চীনে চাইলেও কেউ একটির বেশি সন্তান নিতে পারেন না

সেই বয়সে সন্তান মারা গেলে এতদিন চীন সরকার তাঁদের প্রতিমাসে নির্দিষ্ট পরিমাণের টাকা দিতো৷ কয়েকদিন আগে দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতির কারণে টাকার অঙ্ক নিয়ে অসন্তুষ্ট কয়েকজন বৃদ্ধা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কমিশনের সামনে বিক্ষোভ মিছিল করেন৷ তাতে কিছুটা কাজ হয়েছে৷ বৃহস্পতিবার কমিশনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, এখন থেকে সন্তানহারা মা-কে আগের তুলনায় তিনগুন টাকা দেয়া হবে৷ আগে শহরের মায়েদের প্রতি মাসে দেয়া হতো ১০০ ইউয়ান৷ সেই অঙ্কটা বাড়িয়ে এখন ৩৪০ ইউয়ান, অর্থাৎ ৫৬ ডলার করা হয়েছে৷ এ ছাড়া গ্রামাঞ্চলের মায়েরা প্রতি মাসে পাবেন ১৭০ ইউয়ান করে৷

প্রতি মাসে এভাবে সামান্য কিছু টাকা কিন্তু সব সন্তানহারা মা-কে দেয়া হচ্ছে না৷ মায়ের বয়স অন্তত ৪৯ বছর না হলে তাঁকে উপার্জনে অক্ষম হিসেবে মানা হবে না, সেক্ষেত্রে সন্তান মারা গেলেও তাঁকে কোনো টাকা দেবে না চীন সরকার৷

এসিবি/জেডএইচ (রয়টার্স)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়