1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

সতীত্বের মূল্য মাত্র ৫ হাজার ডলার!

বিবাহিত পুরুষ নিজেকে অবিবাহিত পরিচয় দিয়ে মন পায় এক তরুণীর৷ চীনের সেই তরুণী দেরিতে হলেও সত্যটা জেনেছেন৷ প্রতারক প্রেমিকের বিরুদ্ধে সতীত্ব নষ্ট করার ক্ষতিপূরণ দাবি করে মামলা ঠুকেছিলেন৷ মামলার রায়ে পেয়েছেন ৫ হাজার ডলার!

Symbolbild - Chat im Internet

প্রতীকী ছবি

তরুণীটির ডাকনাম চেন৷ ২০০৯ সালে অনলাইনে ‘চ্যাট' করতে করতে এক ব্যক্তিকে ভালো লাগে তাঁর৷ লোকটির ডাকনাম লি৷ টানা চার বছর ধরে চলে চেন আর লি-র অনলাইন কথোপকথন৷ এক পর্যায়ে দু'জনই চাইলেন দেখা হোক, এক সঙ্গে কাটানো যাক কিছুটা সময়৷

এ ইচ্ছা পূরণ করতে চীন থেকে সিঙ্গাপুরে গেলেন৷ বেশ আনন্দঘন, ঘনিষ্ঠ কিছু মুহূর্ত কাটালেন একসঙ্গে৷

কিন্তু দেশে ফেরার কয়েকদিন পর থেকে লি-র আর পাত্তা নেই৷ দিশেহারা হয়ে একদিন ঠিকানা খুঁজে বের করে লি-র বাসায় হানা দিলেন চেন৷ লি-কে পেলেন না, পেলেন তাঁর বিয়ে করা স্ত্রীকে!

চারবছর ধরে ভুলভাল বুঝিয়ে শয্যায় নিয়েই কেটে পড়া পুরুষটিকে তখন থেকে স্রেফ প্রতারকই মনে করেন একসময় প্রেমে হাবুডুবু খাওয়া চেন৷ ছলচাতুরী করে সতীত্ব নষ্ট করা এবং মানসিক ও শারীরিক দুর্ভোগে ফেলার ক্ষতিপূরণ হিসেবে ৮১ হাজার ডলার দাবি করে মামলাও করেছিলেন পুডং নিউ এরিয়া পিপল'স কোর্টে৷ আদালত তাঁর অভিযোগে সত্যতা খুঁজে পেলেও ক্ষতিপূরণ হিসেবে দাবি করা টাকার অঙ্কটাকে ঠিক মনে করেনি৷

নারীর সতীত্ব রক্ষার ‘নৈতিক' ও স্বাস্থ্য রক্ষার মানবিক অধিকার ক্ষুন্ন করার অপরাধে লি-কে প্রায় ৫ হাজার ডলারের অর্থদণ্ড দিয়েছে আদালত৷ মামলা চলার সময় আদালতে না এলেও লি জানিয়েছেন, তিনি এ রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করবেন৷

এসিবি/ডিজি (এএফপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন