1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

সঠিক পথেই আছে নির্বাচন কমিশন: সাবেক সিইসি

আওয়ামী লীগ ও বিএনপি নিজেদের মধ্যে ঠেলাঠেলির কারণে ‘কঠিন চাপে’ আছে নির্বাচন কমিশন৷ নিরপেক্ষতা প্রমাণের জন্য দফায় দফায় তাদের পরীক্ষা দিতে হচ্ছে৷ কারণে অকারণে বিরোধী দল নির্বাচন কমিশনের নিরপেক্ষতা নিয়ে প্রশ্ন তুলছে৷

কখনো কখনো সরকারি দল বা তাদের সমর্থিত প্রার্থীরা নির্বাচন কমিশনারদের বিরুদ্ধে পক্ষপাতের অভিযোগ তুলছেন৷ ফলে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে কঠিন পরীক্ষায় পড়তে হবে নির্বাচন কমিশনকে৷ তারপরও বর্তমান নির্বাচন কমিশন সঠিক পথে আছে বলেই মনে করেন সাবেক প্রধান নির্বাচন কমিশনার ড. এটিএম শামসুল হুদা৷ সর্বশেষ নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের সময় তিনি প্রধান নির্বাচন কমিশনারের দায়িত্ব পালন করেছেন৷ ডয়চে ভেলের সঙ্গে আলাপকালে শামসুল হুদা বলেন, বাংলাদেশে একটা প্রবণতা রয়েছে নির্বাচনের যেন সব দায় নির্বাচন কমিশনের৷ আসলে সবাই সহযোগিতা না করলে শুধু নির্বাচন কমিশনের পক্ষে একটা ভালো নির্বাচন অনুষ্ঠান সম্পন্ন করা সম্ভব নয়৷

Kaji Raqib Uddin Ahmed, der neue Leiter der Wahlkommission in Bangladesh

প্রধান নির্বাচন কমিশনার কাজী রকিব উদ্দীন আহমেদ

রাজনৈতিক দল, প্রশাসন, বিচার বিভাগ, সর্বোপরি সাধারণ ভোটারদেরও কিন্তু দায়িত্ব আছে৷ নিজেদের রাজনৈতিক স্বার্থের জন্য কোনোভাবেই নির্বাচন কমিশনকে টার্গেট করা উচিত নয়৷ কাউকে দোষারোপ করে ভালো ফল কখনই পাওয়া যায় না৷ সবাইকে সহযোগিতার মনোভাব নিয়ে এগিয়ে আসতে হবে৷

ড. এটিএম শামসুল হুদা বলেন, ‘‘বর্তমান নির্বাচন কমিশন তাদের দায়িত্ব সঠিকভাবেই পালন করছে বলে মনে হচ্ছে৷ ইতিমধ্যে গাজীপুরসহ পাঁচটি সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন তারা সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করতে পেরেছে বলে আমি মনে করি৷ এখন সামনে জাতীয় সংসদ নির্বাচন৷''

তিনি বলেন, ‘‘আমরা একটা ভালো সংস্কৃতি তৈরি করে দিয়ে এসেছি৷ এখন পদ্ধতি ভালো৷ আছে একটা সঠিক ভোটার তালিকাও৷'' তাঁর মতে, সবাই সহযোগিতা করলে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করা সম্ভব৷ বর্তমান নির্বাচন কমিশনের উদ্দেশ্যে শামসুল হুদা বলেন, ‘‘শেষ হওয়া সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনগুলো থেকে ভুল ভ্রান্তি শুধরে নিয়ে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠানের জন্য তাদের প্রস্তুত হতে হবে৷'' নির্বাচন কমিশনারদের ব্যাপারে তিনি বলেন, ‘‘নিজেদের নিরপেক্ষ রাখতে হবে৷ আন্তরিকতা দিয়ে কাজ করতে হবে৷ নানা অসুবিধা সত্ত্বেও সুষ্ঠু নির্বাচন করা সম্ভব৷''

Narayanganj City Corporation Wahlen Flash-Galerie

গাজীপুরের নির্বাচন সুষ্ঠু হয়েছে (ফাইল ছবি)

তিনি বলেন, দু'একটি নির্বাচন কমিশন সঠিকভাবে দায়িত্ব পালন করেনি বলেই কিন্তু এখনও নির্বাচন কমিশনকে পরীক্ষা দিতে হচ্ছে৷ বর্তমান নির্বাচন কমিশনের চ্যালেঞ্জ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, তাদের অভীষ্ট লক্ষ্য ঠিক করতে হবে৷ কাউকে ছাড় দেয়া যাবে না৷ কারণ একবার বিশ্বাসযোগ্যতা নষ্ট হলে তা আর কোনোভাবেই পুনরুদ্ধার করা যায় না৷ সঠিক পথে থাকলে ভালো নির্বাচন এই কমিশন অবশ্যই করতে পারবে৷

এদিকে, গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন হওয়ার পর প্রধান নির্বাচন কমিশনার কাজী রকিব উদ্দীন আহমেদ সবাইকে জনগণের রায় মেনে নেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন৷ তিনি বলেন, ‘‘গাজীপুরের সাধারণ মানুষ তাদের সাংবিধানিক অধিকার প্রয়োগ করেছেন৷ নির্বাচনে অংশগ্রহণকারী প্রার্থী ও তাদের সমর্থকদের কাছে অনুরোধ, আপনারা জনগণের রায় রায় মেনে নিন৷ সুস্থ রাজনৈতিক চর্চার ঐতিহ্য ধরে রাখুন৷''

সব রাজনৈতিক দলের উদেশ্যে তিনি বলেন, অযথা রাজনৈতিক স্বার্থ হাসিলের জন্য নির্বাচন কমিশনকে বিতর্কিত করার চেষ্টা করবেন না৷ তিনি বলেন, ভোটের পর গাজীপুরে আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীকে সতর্ক অবস্থায় রাখা হয়েছে৷ সবাইকে সহযোগিতা করার অনুরোধ জানান তিনি৷ বিরোধী দলের অভিযোগ প্রসঙ্গে প্রধান নির্বাচন কমিশনার বলেন, নির্বাচন চলার সময় যেসব অভিযোগ উঠেছিল সেগুলো খতিয়ে দেখা হয়েছে৷ যেখানে অভিযোগের সত্যতা পাওয়া গেছে, সেখানে ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়