সঙ্গীতের জগতে এক নজিরবিহীন তারকা ম্যাডোনা | সমাজ সংস্কৃতি | DW | 19.08.2010
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

সঙ্গীতের জগতে এক নজিরবিহীন তারকা ম্যাডোনা

পপ সঙ্গীত সম্রাজ্ঞী ম্যাডোনা গত তিন দশক ধরে বিশ্বের সবচাইতে জনপ্রিয় সঙ্গীত শিল্পী৷ তাঁর অ্যালবামের বাণিজ্যিক সাফল্য সব ধরনের রেকর্ড ভঙ্গ করেছে৷ বহুরুপী এই সঙ্গীত তারকা ১৬ অগাস্ট পালন করলেন তাঁর ৫২তম জন্মবার্ষিকী৷

default

১৯৮৪ সালে ম্যাডোনার অ্যালবাম ‘লাইক আ ভার্জিন' রক্ষণশীল সমাজে সমালোচিত হলেও ডিস্কো নাচের তাল এবং তাঁর সুরেলা কণ্ঠ জয় করে নেয় লক্ষ মানুষের হৃদয়৷ এই অ্যালবাম তাঁকে এনে দেয় আন্তর্জাতিক খ্যাতি৷

‘লাইক আ ভার্জিন' এর পর থেকে সঙ্গীত জগতে তাঁর সাফল্য নজিরবিহীন৷ তিনি হয়ে উঠেন পপ সঙ্গীতের প্রতীক৷ এই তিন দশকে প্রায় ৩৮০ মিলিয়ন বা ৩৮ কোটি অ্যালবাম বিক্রি হয়েছে তাঁর৷ সঙ্গীত জগতে এ এক অসাধারণ রেকর্ড৷ বিভিন্ন সময় বিভিন্ন রুপে শ্রোতাদের সামনে উপস্থিত হয়েছেন ম্যাডোনা৷ ‘লাইক আ ভার্জিন' এর অভিব্যক্তির ঠিক উল্টো ভাব প্রকাশ পেয়েছে তাঁর ‘লাইক আ প্রেয়ার' গানে৷ ভালবাসা, সঙ্গীত, ঈশ্বর, দেবদূত, একাকিত্ব, স্বর্গ আর স্বপ্ন নিয়েই এই গান৷

18.07.2006 projekt zukunft fragezeichen

এই ছবিটিকেই খুঁজছেন আপনি৷ ছবিটির তারিখ 19/8 এবং কোড:4528 পাঠিয়ে দিন bengali@dw-world.de ঠিকানায় অথবা এসএমএস করুন 0088 0173 030 2205, ভারত: 0091 98309 97232 নম্বরে৷ এই প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়ে জিততে পারেন আকর্ষণীয় সারপ্রাইজ গিফট …

ম্যাডোনার জন্ম ১৯৫৮ সালে, অ্যামেরিকার মিশিগ্যান স্টেটের বে সিটি শহরে৷ ছোটবেলায় নাচ এবং পিয়ানোয় তলিম নেন তিনি৷ ১৯ বছর বয়সে নিউ ইয়র্কে নাচের বিদ্যালয়ে শিক্ষা শুরু করেন৷ পাশাপাশি ড্রাম ও গিটার বাজানোর প্রতি উৎসাহী হয়ে ওঠেন ম্যাডোনা৷ পরিচয় হয় বেশ কিছ সঙ্গীত শিল্পীর সাথে৷এবং এ সময়ই তিনি রচনা করেন বেশ কিছু সঙ্গীত৷ নৃত্যনাট্যের পাশপাশি ডিস্কোতে সঙ্গীত পরিবেশন শুরু করেন ম্যাডোনা৷ ১৯৮২ সালে চুক্তিবদ্ধ হোন একটি রেকর্ড কোম্পানির সাথে৷ ১৯৮৩ সালে বের হয় তাঁর প্রথম অ্যালবাম ‘ম্যাডোনা'৷ বিক্রি হয় প্রায় দু লক্ষ ৫০ হাজার কপি৷ তারপর থেকে পপ সঙ্গীত জগতে তাঁর সাফল্যের অগ্রযাত্রা আর থেমে থাকেনি৷ তাঁর সঙ্গীত-জীবনে বহু পুরস্কারে ভূষিত হয়েছেন তিনি৷ ন'বার পেয়েছেন গ্র্যামি৷

বেশ কিছু ছায়াছবিতে অভিনয় করেছেন ম্যাডোনা৷ কিন্তু আন্তর্জাতিক খ্যাতি ও স্বীকৃতি পেয়েছেন অ্যানড্রু লয়েড ওয়েবারের বিশ্বনন্দিত মিউজিক্যাল চলচ্চিত্র ‘এভিটা' র মধ্যে দিয়ে৷ ১৯৯৭ সালে এই ছবির প্রধান চরিত্রে অভিনয়ের জন্য ‘গোল্ডেন গ্লোব' পুরস্কারে ভূষিত হন ম্যাডোনা৷

প্রতিবেদন: মারুফ আহমদ

সম্পাদনা: দেবারতি গুহ

ইন্টারনেট লিংক