1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

সংসদে ফেরার বুদ্ধি খুঁজছে বিএনপি

শেয়ারবাজারের অনিয়ম খতিয়ে দেখতে তদন্ত কমিটি গঠন, সংসদের শীতকালীন অধিবেশন শুরু ও ডিটেইলড এরিয়া প্ল্যান বা ড্যাপ বাস্তবায়ন, এসবই আজকের পত্রপত্রিকার প্রধান খবর৷

default

এই অধিবেশনে সংসদে না গেলে সদস্যপদ হারাবেন খালেদা জিয়া

শেয়ারবাজার নিয়ে কমিটি

কমিটি মোট ১১টি বিষয় খতিয়ে দেখবে বলে জানিয়েছে প্রথম আলো৷ এর মধ্যে রয়েছে, নিয়ন্ত্রক সংস্থা এসইসি'র দুর্বলতা খুঁজে বের করা৷ এছাড়া বাজার-কারসাজির ধরন ও দায়ীদেরও চিহ্নিত করবে কমিটি৷ এজন্য তিন সদস্যের কমিটি করা হয়েছে৷ তবে এখন পর্যন্ত শুধু কমিটির প্রধানের নাম ঘোষণা করা হয়েছে৷ তিনি হলেন বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক ডেপুটি গভর্নর এবং বর্তমানে কৃষি ব্যাংকের চেয়ারম্যান খোন্দকার ইব্রাহিম খালেদ৷ বাকি দুজনের নাম আজ ঘোষণা করা হবে বলে জানাচ্ছে পত্রিকাগুলো৷ এদিকে বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম ইব্রাহীম খালেদের একটি সাক্ষাৎকার প্রকাশ করেছে৷ সেখানে তিনি বলেছেন, কদিন আগে শেয়ারবাজার নিয়ে পত্রপত্রিকায় তিনি যে মন্তব্য করেছেন, তদন্ত করার সময় তিনি সেগুলো মনে রাখবেন না৷ এর কারণ হিসেবে তিনি বলেন যে, সেগুলো ছিল ‘শোনা কথা'৷ উল্লেখ্য তিনি বলেছিলেন, আওয়ামী লীগ-বিএনপির ১০-১৫ জন ব্যবসায়ী-রাজনীতিক শেয়ারবাজার থেকে ১৫ হাজার কোটি টাকা লুটে নিয়েছেন, যেটা তাঁরা আর কোনদিন বিনিয়োগ করবেন না৷

শীতকালীন অধিবেশন

গতকাল থেকে শুরু হয়েছে সংসদের শীতকালীন অধিবেশন৷ কিন্তু এবারও বিএনপি সংসদে যায়নি৷ তবে দলটি এই অধিবেশনেই সংসদে যোগ দেয়ার পথ খুঁজছে বলে জানিয়েছে কালের কণ্ঠ৷ কারণ সদস্যপদ টিকিয়ে রাখা৷ পত্রিকাটি বলছে, খালেদা জিয়া সহ বিএনপি'র অনেক সংসদ সদস্যই টানা ৫১ দিন সংসদে অনুপস্থিত রয়েছেন৷ আর ৩৯ দিন সংসদে না গেলে সদস্যপদ শূন্য হয়ে যাবে৷ এদিকে এই অধিবেশন শেষ হবে আরও ৪৩ দিন পর৷

ড্যাপ বাস্তবায়ন

প্রথম আলো এ বিষয়টা আজকে তাদের প্রধান প্রতিবেদন করেছে৷ তারা বলছে, ড্যাপ বাস্তবায়ন আটকে গেছে৷ গত ছয়-সাত মাসেও মাঠপর্যায়ে ড্যাপের কোনো কার্যক্রম শুরু করা হয়নি৷ এমনকি মাঠপর্যায়ে কাজ শুরু করার জন্য যে কর্মপরিকল্পনা করা দরকার, সে ব্যাপারেও কোনো অগ্রগতি নেই৷ প্রথম আলো বলছে, এর পেছনে প্রভাবশালী আবাসন ব্যবসায়ী, ভূমির মালিক ও সাংসদদের কারসাজি আছে বলে অভিযোগ রয়েছে৷ তবে মাঠ পর্যায়ে কার্যক্রম শুরু না হলেও রাজউক ড্যাপ অনুসরণ করেই নকশা অনুমোদন করছে বলে জানিয়েছেন নগর পরিকল্পনাবিদ ও সুশীল সমাজের প্রতিনিধিরা৷ এছাড়া তাঁরা বলেন, আদালত থেকেও ড্যাপের পরিপন্থী প্রকল্পের বিরুদ্ধে রায় পাওয়া যাচ্ছে৷

প্রতিবেদন: জাহিদুল হক

সম্পাদনা: সঞ্জীব বর্মন

সংশ্লিষ্ট বিষয়