1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

সংলাপের চিঠি দেবে সরকার, পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণে বিএনপি

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পর স্থানীয় সরকার মন্ত্রী বিএনপিকে চিঠি দিয়ে নির্বাচন নিয়ে আলোচনার প্রস্তাবের কথা জানালেন৷ তার জবাবে বিএনপি নেতা ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন ডয়চে ভেলেকে জানান, তারা সরকারের অবস্থান পর্যবেক্ষণ করছেন৷

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বৃহস্পতিবার সকালে বিরোধী দলীয় নেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে সংসদ বা সংসদের বাইরে যে কোনো জায়গায় আলোচনার প্রস্তাব দেন৷ এর জবাবে দুপুরে বিএনপির চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা শামসুজ্জামান দুদু সংলাপ বা আলোচনার জন্য সুনির্দিষ্ট এবং লিখিত প্রস্তাবে চান৷ তা পেলেই বিএনপি আলোচনায় রাজি বলে জানান তিনি৷

সন্ধ্যায় তার প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে শাসক দল আওয়ামী লীগ৷ স্থানীয় সরকারের মন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় জানান, বিএনপিকে আলোচনার জন্য চিঠি দেয়া হবে৷ আর এই আলোচনা হবে সুনির্দিষ্ট বিষয় নির্বাচন নিয়ে৷

সরকারি দলের এই অবস্থান নিয়ে ডয়চে ভেলের সঙ্গে কথা বলেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন৷

তিনি বলেন, সরকার তার অনঢ় অবস্থান থেকে দৃশ্যত কিছুটা সরে আসছে৷ কিন্তু বিএনপি এখনই কোনো সিদ্ধান্তে যাচ্ছে না৷ তারা সরকারের এই অবস্থান গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করছে৷ তারা সত্যিই আলোচনা চায়, না সময় ক্ষেপণের নতুন কৌশল নিচ্ছে – তা বুঝতে চায় বিএনপি৷

তিনি বলেন, বিএনপিকে সংলাপের জন্য সরকারের পক্ষ থেকে চিঠি দেয়ার পরই বিএনপির অবস্থান স্পষ্ট করা যাবে৷ কারণ চিঠিতে সরকার কি প্রস্তাব দেবে, কি বিষয় নিয়ে আলোচনা করতে চাইবে তা বিএনপির শীর্ষ নেতারা দেখে আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নেবেন৷ তাই চিঠি পাওয়ার আগে বিএনপি কোনো সিদ্ধান্ত জানাতে পারছে না৷

সৈয়দ আশরাফের আগামী নির্বাচন নিয়ে আলোচনার প্রস্তাব সুনির্দিষ্ট কিনা? জানতে চাইলে ড. মোশাররফ বলেন, সেটা তাদের জন্য সুনির্দিষ্ট হতে পারে৷ কিন্তু বিএনপির দাবি নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকার৷ আগামী নির্বাচন কোনো দলীয় সরকারের অধীনে হবে না৷ আর সেই নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের নাম তত্ত্বাবধায়ক সরকার না হয়ে অন্য কিছুও হতে পারে৷ সরকারে সঙ্গে অনানুষ্ঠানিক বা ব্যক্তিগত পর্যায়ে বিএনপির কারুর সঙ্গে সংলাপ নিয়ে কথা হচ্ছে কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, তাঁর জানা মতে এখনো না৷

এদিকে বৃহস্পতিবার ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদসহ বিএনপির ছয়জন শীর্ষ নেতা আদালত থেকে জামিনে মুক্তি পেয়েছেন৷ এটা সরকারের সদিচ্ছার ইঙ্গিত কিনা জানতে চাইলে ড. মোশাররফ বলেন, তারা আইনী লড়াইয়ের মাধ্যমে মুক্তি পেয়েছেন৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়