1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

সংবাদমাধ্যমের স্বাধীনতা: তথ্যমন্ত্রী বনাম সম্পাদক

তথ্যমন্ত্রীর দাবি, দৈনিক আমার দেশ-এর ছাপাখানা খুলে দেয়া এবং বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল দিগন্ত ও ইসলামিক টেলিভিশন চালুর দাবিতে ১৫ জন সম্পাদক যে বিবৃতি দিয়েছেন, তা তাঁরা না বুঝে দিয়েছেন৷

জবাবে সম্পাদকরা ডয়চে ভেলেকে বলেছেন যে, তাঁরা বুঝেশুনেই বিবৃতি দিয়েছেন

দৈনিক আমার দেশ-এর ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক মাহমুদুর রহমানকে গ্রেপ্তার করা হয় ১১ই এপ্রিল৷ আর ঐ দিনে আমার দেশ-এর ছাপাখানা বন্ধ করে দেয়ায়, পত্রিকাটি ছাপাই বন্ধ হয়ে যায়৷ বর্তমানে পত্রিকাটির শুধু অনলাইন সংস্করণ চালু আছে৷ এরপর দিগন্ত এবং ইসলামিক টিভি বন্ধ করা হয় গত ৬ই মে৷ ১৯শে মে রবিবার ১৫ জন সম্পাদক এক বিবৃতিতে আমার দেশ-এর ছাপাখানা খুলে দেয়া এবং ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক মাহমুদুর রহমানকে মুক্তির দাবি জানান৷ তাঁরা দিগন্ত ও ইসলামিক টিভি চালুরও দাবি জানান৷ শুধু তাই নয়, তাঁরা এইসব ঘটনাকে সংবাদমাধ্যমের স্বাধীনতার ওপর হস্তক্ষেপ বলেও মন্তব্য করেন৷

এর জবাবে সোমবার তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু দাবি করেন যে, সম্পাদকরা না বুঝে বিবৃতি দিয়েছেন৷ তিনি বলেন, মাহমুদুর রহমানকে সুনির্দিষ্ট ফৌজদারি মামলায় গ্রেপ্তার করা হয়েছে৷ তিনি তাঁর পত্রিকা আমার দেশ-এর মাধ্যমে ধর্মীয় উন্মদনা এবং অশান্তি ছড়িয়েছেন৷ এছাড়া, দিগন্ত এবং ইসলামিক টিভি ৫ই মে হেফাজতে ইসলামের সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডে সমর্থন এবং উস্কানি দিয়েছে৷

Mahmudur Rahman

দৈনিক আমার দেশ-এর ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক মাহমুদুর রহমান

তথ্যমন্ত্রী বলেন, সম্পাদকরা মাহমুদুর রহমানের মতো একজন কলঙ্কিত ব্যক্তির পক্ষে অবস্থান নিলে গণমাধ্যম কর্মীদের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ হয়৷ তাই তিনি দাবি করেন, সরকারের এই ব্যবস্থার সঙ্গে সংবাদমাধ্যমের স্বাধীনতার কোনো সম্পর্ক নেই৷

তথ্যমন্ত্রীর ঐ কথার জবাবে দৈনিক সংবাদের সম্পাদক মুনীরুজ্জামান ডয়চে ভেলেকে বলেন, এই ১৫ জন সম্পাদক বুঝেশুনেই বিবৃতি দিয়েছেন৷ তাঁরা বিবৃতিতে স্পষ্ট করেই বলেছেন যে, মাহমুদুর রহমানের নামে যদি কোনো সুনির্দিষ্ট অভিযোগ থাকে তাহলে তা প্রমাণ করে তাঁকে শাস্তি দেয়া যায়৷ কিন্তু কোনো অপরাধ প্রমাণ না করে মাসের পর মাস কারাগারে আটক অবশ্যই সংবাদমাধ্যমের স্বাধীনতার ওপর হস্তক্ষেপ৷ তিনি বলেন, পত্রিকাটির ছাপাখানা কি কারণে বন্ধ করা হলো তাও আইনিভাবে প্রমাণ করা হয়নি৷ অন্যদিকে, দিগন্ত ও ইসলামিক টিভি কোনো নীতিমালার লঙ্ঘন করেছে তাও সুনির্দিষ্টভাবে বলা হয়নি৷ তিনি বলেন, কোনো খবর বা সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে জড়িত কারোর বিরুদ্ধে অপরাধ প্রমাণ হলে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নিতে হবে আইনি প্রক্রিয়ার মাধ্যমে, সরকারের নির্বাহী আদেশে নয়৷ আর কোনো ব্যক্তি বা কোনো খবরের জন্য একটি গণমাধ্যম প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দেয়া যায় না৷ তা করা হলে, তা সংবাদমাধ্যমের স্বাধীনতার ওপর হস্তক্ষেপ ছাড়া আর কিছুই নয়৷ তিনি বলেন, ঐ ১৫ জন সম্পাদক মত প্রকাশ এবং সংবাদমাধ্যমের স্বাধীনতার পক্ষে দাঁড়িয়েছেন৷ অতীতেও তাদের একই অবস্থান ছিল এবং ভবিষ্যতেও থাকবে৷

রবিবার যে সম্পাদকরা বিবৃতি দেন তাঁরা হলেন, ইন্ডিপেনডেন্ট-এর সম্পাদক মাহবুবুল আলম, সমকাল পত্রিকার সম্পাদক গোলাম সারওয়ার, ডেইলি স্টার-এর সম্পাদক মাহফুজ আনাম, প্রথম আলোর সম্পাদক মতিউর রহমান, নিউজ টুডের সম্পাদক রিয়াজউদ্দিন আহেমেদ, নয়া দিগন্তের সম্পাদক আলমগীর মহিউদ্দিন, মানবজমিনের সম্পাদক মতিউর রহমান, ফিন্যান্সিয়াল এক্সপ্রেস-এর সম্পাদক মেয়াজ্জেম হোসেন, নিউ এজ-এর সম্পাদক নুরুল কবীর, ইনকিলাব-এর সম্পাদক এএমএম বাহাউদ্দীন, কালের কন্ঠ-এর সম্পাদক ইমদাদুল হক মিলন, নিউ নেশন-এর সম্পাদক মোস্তফা কামাল মজুমদার, সংবাদ-এর সম্পাদক মুনীরুজ্জামান, বাংলাদেশ প্রতিদিন-এর সম্পাদক নঈম নিজাম এবং যুগান্তর-এর নির্বাহী সম্পাদক সাইফুল ইসলাম৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়