1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

শুরু হলো চিত্রধারণ প্রযুক্তির বৃহত্তম আসর ফটোকিনা

ফটোকিনা৷ ছবি-প্রতিচ্ছবি নিয়ে কাজ করেন এমন সব মানুষের কাছে বেশ পরিচিত একটি মেলা৷ বিশ্বের চিত্রশিল্প ভিত্তিক প্রতিষ্ঠানগুলোর বৃহত্তম আসর এটি৷

photokina, 2010, ফটোকিনা, ২০১০

ফটোকিনা ২০১০

জার্মানির কোলন শহরে প্রতি দুই বছর পর পর অনুষ্ঠিত হয় ফটোকিনা৷ সাধারণত সেপ্টেম্বর মাসকেই বেছে নেওয়া হয় চিত্রগ্রাহকদের এই উৎসবের জন্য৷ এই প্রদর্শনীর যাত্রা শুরু ১৯৫০ সালে৷ তবে সবচেয়ে আলোচিত ঘটনা হয়ে রয়েছে ১৯৫৬ সালের প্রদর্শনী৷ কারণ ঐ বছরের উৎসবে শুভেচ্ছাবার্তা টেলিগ্রাম করে পাঠিয়েছিলেন তৎকালীন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডুইট ডি আইসেনহাওয়ার৷ তবে মার্কিন প্রেসিডেন্টের কাছ থেকে এখন আর এমন শুভেচ্ছাবার্তা না আসলেও এর আকার-আয়তন আর জৌলুস দিন দিন বেড়ে চলেছে৷

এখন পর্যন্ত অনুষ্ঠিত ফটোকিনার আসরগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বড় আসরটি ছিল ২০০৮ সালে৷ সেবছর ২৬ সেপ্টেম্বর থেকে ১ অক্টোবর পর্যন্ত হয়েছিল এই ফটো উৎসব৷ কোলন বাণিজ্য মেলা চত্বরে এটিই ছিল প্রথম ফটোকিনার আসর৷ ২০০৮ সালের ফটোকিনায় নিজেদের পণ্য নিয়ে হাজির ছিল ৪৬ টি দেশের ১,৫৭৯ টি প্রতিষ্ঠান৷ আর দর্শনার্থী ছিল ১৬১ টি দেশের এক লাখ ৬৯ হাজার চিত্রপ্রেমী মানুষ৷

Photokina 2010

চিত্র গ্রহণের কিংবা ধারণের কাজে ব্যবহৃত যতোসব নতুন পণ্য সাধারণত এই মেলায় নিয়ে আসেন উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান৷ রীতিমতো এই বছরের ফটোকিনা শুরু হলো মঙ্গলবার৷ চলবে ২৬ তারিখ পর্যন্ত৷ ফটোকিনা বিশ্বের শৌখিন এবং পেশাদার চিত্রগ্রহকদের আরো সৃষ্টিশীল কাজের জন্য উৎসাহিত করে৷ কারণ বিশ্বের শ্রেষ্ঠ চিত্রগ্রাহকরা তাঁদের সেরা ছবিগুলো নিয়ে হাজির হন এই উৎসবে৷

এছাড়া চিত্র ধারণের জন্য আবিষ্কৃত সবচেয়ে আধুনিক যন্ত্রপাতি ও প্রযুক্তিগুলো হাজির করা হয়েছে এবারের আসরে৷ রয়েছে ‘ফটোকিনায় ত্রিমাত্রিক জগত’৷ সেখানে স্থিরচিত্র এবং চলচ্চিত্রে ত্রিমাত্রিক ধারার প্রয়োগ তুলে ধরা হয়েছে অত্যন্ত নিখুঁতভাবে৷ এছাড়া সর্বসাম্প্রতিক উন্নতমানের ক্যামেরাসমূহ, ডিএসএলআর ক্যামেরা, থ্রিডি ক্যামেরাসহ রয়েছে তথ্য প্রযুক্তির সর্বাধুনিক যন্ত্রপাতি৷

ফটোকিনায় হাজির হয়ে যে কেউ কিছুক্ষণের জন্য ধার নিতে পারেন অত্যাধুনিক ক্যামেরা৷ অংশ নিতে পারেন চিত্র ধারণের কাজে৷ নিজের তোলা ছবিগুলোর ডিজিটাল প্রিন্ট নিতে পারেন৷ তারপর, প্রদর্শনীর ঠিক যে জায়গাগুলো এখনও ফাঁকা রয়েছে সেগুলোতে লাগিয়ে দিতে পারেন সুন্দর কথামালায় সাজিয়ে৷ এমনকি প্রদর্শনীতে সশরীরে হাজির না হয়েও ফটোকিনার নির্ধারিত ওয়েবসাইটে যে কেউ যোগ করতে পারেন নিজের তোলা ছবি৷ এতোকিছু করা কি শুধু শুধু? না তা নয়৷ এই প্রক্রিয়ার যে কোনটিতে অংশ গ্রহণ করলে পেতে পারেন আকর্ষণীয় পুরস্কার৷

প্রতিবেদন: হোসাইন আব্দুল হাই

সম্পাদনা: আরাফাতুল ইসলাম

ইন্টারনেট লিংক