1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

শুরু হচ্ছে আওয়ামী লীগের প্রার্থী বাছাই

আগামী নির্বাচনের জন্য প্রার্থী বাছাই শুরু করছে আওয়ামী লীগ৷ বুধবার থেকে দলের সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাছাই প্রক্রিয়ার কাজ শুরু করবেন৷ আর সরকারের মেয়াদের শেষ ৯০ দিনে নির্বাচনের প্রস্তুতি নিচ্ছে নির্বাচন কমিশন৷

আওয়ামী লীগের নেতারা ডয়চে ভেলেকে বলেন, স্থানীয় নেতা আর তৃণমূলের সদস্যদের মতের সমন্বয়ে আগামী সংসদ নির্বাচনে প্রার্থী ঠিক করা হবে৷ অর্থাৎ, গতবারের মতো সভানেত্রীর দেয়া প্রশ্নপত্র আর সরাসরি আলোচনার মাধ্যমেই প্রাথমিকভাবে প্রার্থী বাছাই করা হবে বলে ডয়চে ভেলেকে জানান আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন৷ তিনি জানান, ২৭শে অক্টোবর থেকে ২৪শে জানুয়ারির মধ্যে নির্বাচনের কথা বলার পর সোমবার সন্ধ্যাতেই সংসদীয় বোর্ডের কয়েকজনের সঙ্গে বৈঠক করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা৷ তিনি বুধবার বিকেল থেকে প্রার্থী বাছাইয়ের কাজ শুরু করার নির্দেশনা দেন৷

Bangladesch Dhaka Wahlkommission Gebäude

নির্বাচন কমিশন

জেলা, উপজেলা, থানা, মহানগর ও প্রথম শ্রেণির পৌরসভা কমিটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের সঙ্গে প্রার্থী নিয়ে পর্যায়ক্রমে কথা বলবেন তিনি৷ স্থানীয় নেতাদের মতামতের সঙ্গে গোয়েন্দা সংস্থার প্রতিবেদন, তৃণমূল কর্মীদের মতামত নিয়ে তবেই প্রার্থী ঠিক করা হবে জানিয়েছেন আহমদ হোসেন৷

আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য নূহ-উল-আলম লেনিন ডয়চে ভেলেকে বলেন, দেশজুড়ে নির্বাচনি আবহ শুরু হয়েছে, সময় কম থাকায় জোরেশোরেই চলবে প্রার্থী ঠিক করার কাজ৷ আর এই বাছাই প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে চূড়ান্ত প্রার্থী তালিকা ঠিক করা হবে৷ আর তা ঠিক করতে নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার আগ পর্যন্ত লেগে যাবে বলে জানান তিনি৷ তিনি বলেন, প্রার্থীর গ্রহণযোগ্যতা এবং জনপ্রিয়তাই হবে প্রার্থীতার মূল ভিত্তি৷

তিনি বলেন, প্রথমদিন দিনাজপুর, রাজবাড়ি, জামালপুর, ভোলা, গাজিপুর, লালমনিরহাট জেলার উপজেলা, থানা ও প্রথম শ্রেণির পৌরসভার নেতাদের উপস্থিত থাকার আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে৷

এদিকে নির্বাচনি প্রস্তুতি বিষয়ে মঙ্গলবার দিনভর বৈঠক করেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার কাজী রকিব উদ্দিন আহমেদ, চারজন নির্বাচন কমিশনার এবং ইসি কর্মকর্তারা৷ বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে সিইসি বলেন, বৈঠকে নির্বাচনি প্রস্তুতির বিষয়গুলো খতিয়ে দেখা হয়েছে৷ সংবিধান অনুযায়ী নির্বাচন করতে প্রস্তুত ইসি৷

অবাধ, সুষ্ঠু, নিরেপেক্ষ নির্বাচন করতে যা যা করা দরকার তার সবই করা হবে বলে জানান সিইসি৷ তিনি বলেন , ৩৫ থেকে ৪০ দিন প্রচার-প্রচারণার জন্য হাতে রেখে নির্বাচনি তফসিল ঘোষণা করা হবে৷ তবে সাবেক নির্বাচন কমিশনার ছহুল হোসাইন ডয়চে ভেলেকে বলেন, আইন প্রণয়নসহ নির্বাচন আয়োনে সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করতে পেরেছে নির্বাচন কমিশন – এমনটা এখন পর্যন্ত নিশ্চিত হওয়া যাচ্ছে না৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়