1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

শুধু বলিউড নয়, আঞ্চলিক সিনেমাও নজর কাড়ছে

ভারতের চলচ্চিত্র শিল্প বলতে আপনার মনে শুধু বলিউডের নাম আসাটা অবান্তর নয়৷ কিন্তু কখনো কি ভেবেছেন ভারতে আর ক’টি আঞ্চলিক ভাষায় চলচ্চিত্র নির্মাণ হয়? না, এতদিন হয়তো সেটা ভাবার দরকার হয়নি৷

default

ফাইল ফটো

তবে এবার বোধহয় ভাবার সময় এসেছে৷ কারণ ভারতীয় চলচ্চিত্র শুধু আর ‘বলিউড' নামের মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকতে চাইছে না৷ বরং এর পরিধি অনেক বাড়ছে, বিশেষ করে চমৎকার কাহিনী আর কর্পোরেট বিনিয়োগের কল্যাণে এখন মারাঠি, পাঞ্জাবি এমনকি বাংলা ভাষায়ও তৈরি হচ্ছে ভালো, মানে ব্যাপক বাণিজ্যের ব্যবসা সফল ছবি৷

হালের বিনিয়োগকারী আর বড় বড় স্টুডিওগুলোও মনে করছে শুধু বলিউড নিয়ে বসে থাকলে চলবে না৷ বাড়াতে হবে বাণিজ্য আর সেজন্য নাকি আঞ্চলিক নানা ভাষার ছবির পেছনে বিনিয়োগ আসতে শুরু করেছে, জানালেন মহেশ মঞ্জরেকর৷ সাবেক বলিউড এবং বর্তমান মারাঠি চলচ্চিত্রের এই নির্মাতার কথায়, হ্যাঁ, বাজেট বাড়ছে, সেইসঙ্গে আমাদের আঞ্চলিক চলচ্চিত্রের প্রসারে প্রচারণাও বাড়ছে৷ ফলে আরো বেশি দর্শক আগ্রহী হচ্ছে এসব ছবির প্রতি৷

ড্যানি বয়েল-এর অস্কারজয়ী ‘স্লামডগ মিলিয়নেয়ার' ছবিতেও একটি ছোট্ট চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন মঞ্জরেকর৷ কিন্তু সেটা নিয়ে আলোচনায় আগ্রহী নন তিনি৷ বরং জানালেন গত সপ্তাহে মুক্তি পাওয়া মারাঠি ছবির কথা৷ মুম্বইয়ের মিল শ্রমিকদের দুর্দশা নিয়ে তৈরি ঐ ছবির পেছনে লগ্নি কত জানেন? ৬০ মিলিয়ন রুপি! হিন্দি ছবির তুলনায় এই বিনিয়োগ খুব বড় না হলেও আঞ্চলিক ছবির জন্য অনেক বড়৷

বিশেষজ্ঞরাও ভবিষ্যদ্বাণী করছেন এই বলে যে, ভালো গল্প আর সঠিক প্রচারের মাধ্যমে বলিউড দর্শকদেরও আঞ্চলিক ছবির দিকে টেনে নেয়া সম্ভব৷ আর ভবিষ্যতে আঞ্চলিক ছবির বাজারই নাকি হবে শত কোটি রুপির বড় বিনিয়োগের খাত৷

সম্ভবত সেই গন্ধ পেয়েই ইরোস এন্টারটেইনমেন্ট এবং অনিল আম্বানির রিলায়েন্স বিগ পিকচার্স বিনিয়োগ করতে শুরু করেছে দক্ষিণ ভারতের আঞ্চলিক ছবির পেছনে৷ এখন দেখা যাক, বিনিয়োগের এই ধারা ভারতবর্ষের অন্যান্য অঞ্চলের আঞ্চলিক চলচ্চিত্রের দিকেও যায় কিনা৷

প্রতিবেদক: আরাফাতুল ইসলাম

সম্পাদনা: অরুণ শঙ্কর চৌধুরী

সংশ্লিষ্ট বিষয়