1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

শুক্রবার আনুষ্ঠানিক কাজ শুরু করবেন ভুল্ফ

জার্মানির দশম প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ার পরদিন ক্রিস্টিয়ান ভুল্ফ ‘শ্লস বেলভ্যু’ প্রেসিডেন্ট ভবনে তাঁর নতুন কর্মস্থল ঘুরে দেখলেন৷ শুক্রবার তিনি আনুষ্ঠানিকভাবে কাজ শুরু করবেন৷

default

নতুন জার্মান প্রেসিডেন্ট ক্রিস্টিয়ান ভুল্ফ

নির্বাচনের আগে ভুল্ফ জানিয়েছিলেন, তাঁর দপ্তরকক্ষে দু'বছরের পুত্র লিনুস-এর জন্য খেলার একটা কোনা রাখবেন৷ রাজ্যপ্রধান থেকে রাষ্ট্রপ্রধান হয়েছেন ভুল্ফ৷ কিন্তু কেমন মানুষ তিনি?

একান্ন বছর বয়সে জার্মানির তরুণতম প্রেসিডেন্ট ক্রিস্টিয়ান ভুল্ফ৷ সুদর্শন তিনি৷ তাঁর স্ত্রী বেটিনা হচ্ছেন দেশের ইতিহাসে সবচেয়ে কম বয়সি ‘ফার্স্ট লেডি'৷ পরিবারমুখী মানুষ ভুল্ফ৷ রাজনীতিতে থেকেছেন৷ লোয়ার স্যাক্সনি রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর ভূমিকা পালন করেছেন সানন্দে৷ সিগারেটের নেশা নেই তাঁর৷ বাস্কেট বল খেলেন৷ শরীরটাকে ফিট রেখেছেন৷ প্রেসিডেন্টের আনুষ্ঠানিকতায় মোড়া দায়িত্ব পালন করতে তাঁর অসুবিধা হবে না মোটেও৷ তিনি বলেন, ‘‘আমি খুশি এই দায়িত্ব পালন করতে পারব বলে৷ আমার মনে হয় মানুষকে এক জায়গায় আনতে পারব৷ আমাদের সমাজের বন্ধনটাকে অটুট রাখতে কিছু করব৷ কঠিন সময়ে সাহস দেব, আশা জাগিয়ে তুলব৷''

রাজনীতির জগৎটাকে ভাল করেই চেনেন ভুল্ফ৷ আর সেই কারণেই চ্যান্সেলর আঙ্গেলা ম্যার্কেল তাঁকে প্রেসিডেন্ট পদের জন্য মনোনীত করার সিদ্ধান্ত নেন৷ পর্যবেক্ষকরা অবশ্য বলেন, এই সঙ্গে তিনি নিজের খ্রিষ্টীয় গণতন্ত্রী দলের ভিতরে একজন প্রতিযোগী থেকেও রেহাই পেলেন৷

চ্যান্সেলর ম্যার্কেল বলেন, ‘‘জার্মানির ঐক্যের সেই সময়ে ক্রিস্টিয়ান ভুল্ফ-এর সঙ্গে আমি পরিচিত হয়েছি৷ তিনি মানুষ সম্পর্কে সব সময় কৌতূহলী৷ সব সময় নতুন কিছু করতে চান৷ অত্যন্ত সৃজনশীল৷ মানুষের কাছে ছুটে যান৷''

ছেলেবেলাটা তাঁর সহজ হয় নি৷ বাবামার বিচ্ছেদ হয়ে যায়৷ মা ছিলেন খুবই অসুস্থ৷ মায়ের দেখাসোনা করেছেন৷ ছোটবোনের ভার নিয়েছেন৷ বিয়ে করেন ছাত্রজীবনের বান্ধবীকে৷ কন্যাসন্তানের বাবা হন৷ কিন্তু সে বিয়ে টেকে নি৷ আবার বিয়ে করেন৷ এবার পুত্রসন্তান৷

অসনাব্রুক শহরে জন্ম নেন ভুল্ফ৷ পড়াশোনা সেখানেই৷ কিশোর বয়স থেকেই খ্রিষ্টীয় গণতন্ত্রী দল সিডিইউ-র সঙ্গে তাঁর যোগ৷ রাজনীতিক হিসেবে সেটাই তাঁর নির্বাচনী এলাকা৷ হানোফার শহর থেকে মুখ্যমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেছেন ভুল্ফ এতদিন৷ আধুনিক ধ্যানধারণার এই মানুষটিই জার্মন কোন রাজ্যের সরকারে প্রথমবারের মত একজন মুসলিম নারীকে মন্ত্রী পদে গ্রহণ করেছেন৷ ক্রিস্টিয়ান ভুল্ফ মুখ্যমন্ত্রীর পদ ছেড়ে দিয়েছেন৷ এবার বার্লিন - শ্লস বেলভ্যু৷

প্রতিবেদন: আব্দুল্লাহ আল-ফারূক

সম্পাদনা: রিয়াজুল ইসলাম

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়