1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

শিয়াওবোকে নোবেল প্রদানের অনুষ্ঠান নিয়ে বিভক্ত বিশ্ব

লিউ শিয়াওবোকে শান্তিতে নোবেল পুরস্কার প্রদানের প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে অসলো৷ শুক্রবারের এই অনুষ্ঠানে স্বশরীরে থাকতে পারছেন না শিয়াওবো কিংবা তাঁর কোন আত্মীয়৷ তবুও এই অনুষ্ঠান নিয়ে চীনের বিরোধিতা প্রকট৷

default

শিয়াওবো’র সমর্থনে অসলোয় বিক্ষোভ

অনুষ্ঠানে থাকছেন না নেভি পিল্লাই

অসলোতে আজকেই শান্তিতে নোবেল পুরস্কার দেওয়া হবে চীনের বিরুদ্ধবাদী মানবাধিকার কর্মী লিউ শিয়াওবোকে৷ বর্তমানে চীনে কারাবন্দি আছেন এই শান্তিপূর্ণ গণতান্ত্রিক আন্দোলনের নেতা৷ চীন সরকার তাঁকে অসলো আসার অনুমতি দেয়নি৷ এমনকি অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত অতিথিদেরকেও সেখানে যোগ না দেবার জন্য চাপ দিচ্ছে সেদেশ৷ জাতিসংঘের মানবাধিকার হাই কমিশনার নেভি পিল্লাইও এই অনুষ্ঠানে যোগ না দেবার কথা জানিয়েছেন৷ ধারণা করা হচ্ছে, চীনের চাপের কারণেই এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি৷ এই সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার ২৪টি মানবাধিকার গোষ্ঠী নেভি পিল্লাইকে অনুষ্ঠানে যেতে আবেদন জানিয়েছেন৷

Bürgerrechtler Liu Xiaobo China Flash-Galerie

২০০৯ সালের ডিসেম্বর থেকে চীনে কারাবন্দি জিয়াওবো

থাকছে না ২০ দেশ

রাশিয়া, কিউবা, ভেনিজ্যুয়েলাসহ ২০টি দেশ নোবেল শান্তি পুরস্কারের অনুষ্ঠানে অংশ নিতে অস্বীকৃতি জানিয়েছে৷ এসব দেশের অধিকাংশের সঙ্গেই চীনের বাণিজ্যগত সুদৃঢ় সম্পর্ক রয়েছে৷ নোবেল কমিটির প্রধান থরবোয়েন জাগল্যান্ড অবশ্য জানিয়েছেন, আমন্ত্রিতদের দুই-তৃতীয়াংশ শুক্রবারের অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন বলে আশা করা হচ্ছে৷ তাছাড়া এই শান্তি পুরস্কার বেইজিংয়ের বিরুদ্ধে কোন পদক্ষেপ নয় বলেও আশ্বস্ত করেন জাগল্যান্ড৷ তিনি বলেন, এটা চীনের বিরুদ্ধে কোন পুরস্কার নয়৷ বরং চীনের মানুষকে সম্মান জানাতেই এই পুরস্কার৷

অসলোর চীনা দূতাবাসের সামনে বিক্ষোভ

আসলে শুক্রবার শুধু শান্তি পুরস্কার প্রদানের দিনই নয়, এই দিনটিকে জাতিসংঘ মানবাধিকার দিবস হিসেবেও উদযাপন করা হয়৷ দিনটিকে সামনে রেখে বৃহস্পতিবার অসলোর চীন দূতাবাসের সামনে বিক্ষোভের আয়োজন করে অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল৷ এসময় লিউর সমর্থনে এক লাখ মানুষের স্বাক্ষর করা একটি আবেদনও দূতাবাসের কাছে হস্তান্তরের চেষ্টা করা হয়৷

উল্লেখ্য, চীনের গণতান্ত্রিক আন্দোলনের যোদ্ধা, মানবাধিকারের অন্যতম পথিকৃৎ প্রবক্তা লিউ শিয়াওবো ২০০৯ সালের ডিসেম্বর থেকে কারাবন্দি রয়েছেন৷ নোবেল জয়ের পর তাঁর মুক্তির আহ্বান জানান মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা৷ কিন্তু চীন সে আহ্বান আমলে নেয়নি৷

প্রতিবেদন: আরাফাতুল ইসলাম

সম্পাদনা: রিয়াজুল ইসলাম

নির্বাচিত প্রতিবেদন