1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

পাঠক ভাবনা

‘শিশু পাচার বন্ধ করতে হবে’

যারা ছোট্ট শিশুদের নিয়ে শ্রমিক হিসেবে, যৌন সম্ভোগের কাজে, ভিক্ষাবৃত্তি, অঙ্গ প্রত্যঙ্গ বিক্রি, শিশু পর্নোগ্রাফিতে কাজ করায় তাদের কি একটু মনে পড়েনা যে এই শিশুটা তাদেরও তো সন্তান হতে পারতো!

মানুষ এতটাই নির্মম হয় কি করে? আসলে জঙ্গলের পশুরা হিংশ্র নয়, মানুষরাই হিংশ্র৷ শিশুদের পাচার বন্ধ করতে হবে৷ এই ই-মেলটি পাঠিয়েছেন মিনহাজ আহমেদ, ঢাকা থেকে৷

জার্মানির বিদ্যুৎ উত্পাদনের প্রচলিত ও অপ্রচলিত শক্তির উত্স সম্পর্কে একটু আলোকপাত করার অনুরোধ রাখছি৷ আরও জানতে আগ্রহী জার্মানির নবায়নযোগ্য জ্বালানি নীতি সম্পর্কে৷ অদূর ভবিষ্যতে জার্মানিতে নবায়নযোগ্য জ্বালানির উত্স হিসাবে বায়ুশক্তি ওসৌর শক্তির ব্যবহারের সম্ভাবনা কতখানি? জার্মানির ক্ষেত্রে জল বিদ্যুতের উত্পাদন পরিবেশের ওপর তার প্রভাব সম্বন্ধেও জানার ইছা প্রকাশ করছি৷

সাম্প্রতিক সময়ে বেকারত্ব ইউরোপের জন্য সবচেয়ে কঠিন অর্থনৈতিক এবং সামাজিক সমস্যা হয়ে দাঁড়িয়েছে৷ যদিও অঞ্চল ভেদে বেকারত্বের হারের মধ্যে প্রভেদ রয়েছে, এবং যেটা খুবই স্বাভাবিক৷ বর্তমান অর্থনৈতিক মন্দা ও ঋণ ভারে জর্জরিত ইউরোজোনের কিছু দেশেই মনে হয় এই আর্থ-সামাজিক সমস্যার মুখোমুখি৷ চিত্রটি পরিষ্কার যে যতদিন না ঋণ সংকট থেকে কোনো দেশ বেরিয়ে না আসছে এবং ইউরোপের অর্থনীতি ঘুরে দাড়াচ্ছে ততদিন বেকারত্বের এই চিত্র বদলাবে না৷ যেহেতু বেকারত্ব একটি পরিবারে দুর্দশা বাড়িয়ে দেয়, আত্ম-মর্যাদাকে নীচে নামিয়ে দেয়, এবং তরুণদের ক্ষমতার অপচয় করে, তখন তাঁদের মধ্যে অসন্তোষ ও ক্ষোভ বাড়া খুবই স্বাভাবিক৷ প্রতিবেদনটি পড়ে একটা পরিষ্কার চিত্র পেয়ে গেলাম৷ সুভাষ চক্রবর্তী, নতুন দিল্লি থেকে৷

চিত্র ও কথা দিয়ে সাজানো পরিবেশ বিজ্ঞান, সংস্কৃতি ও বিনোদনের কোনো একটি ঘটনা বা আয়োজনের উপস্থাপনা আমাকে খুবই উত্সাহিত করে৷ এই দুটি পাতার চিত্র কথা কেবল আমি নই, আমার পত্নী ও স্কুলে পাঠরত দুই সন্তানকেও দেখিয়ে থাকি৷ এই মুহূর্তে না হলেও হয়ত বা একদিন ওরাও ডয়চে ভেলের পাঠোপযোগী ও অনন্য সুন্দর এই ওয়েবসাইটের প্রেমে পড়ে যাবে৷ আমি প্রতিদিনই কিছুটা সময় ওয়েবসাইটের রিপোর্টগুলো পড়ার জন্য রেখে থাকি৷ খুবই ভালো লাগে কিছুটা সময় কাটিয়ে দিতে, কিছুটা জ্ঞানও অর্জন করি৷ প্রণাম নেবেন সকলে৷ দীনেশ কুমার, গুলমোহর পার্ক, নতুন দিল্লি৷

- ধন্যবাদ সবাইকে৷ আবারো লিখবেন বন্ধুরা, কেমন?

নুরুননাহার সাত্তার

দেবারতি গুহ

নির্বাচিত প্রতিবেদন