1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

জার্মানি ইউরোপ

শিশু পর্নোগ্রাফি প্রতিরোধের জোট

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং ব্রিটেনের গুপ্তচর বিভাগগুলি শিশু পর্নোগ্রাফি রোখার প্রচেষ্টায় শামিল হবে৷ গুগল আর মাইক্রোসফট-ও নাকি তা-তে সংশ্লিষ্ট থাকছে৷ এটা কি শুধুই সাম্প্রতিক আড়ি পাতা কেলেঙ্কারির পর গণসংযোগের চালাকি?

default

পেডোফিলিয়া (প্রতীকী ছবি)

পেডোফিল, অর্থাৎ যে সব প্রাপ্তবয়স্করা শিশুদের সঙ্গে যৌন সম্পর্কে আগ্রহী অথবা সে বিষয়ে কৌতূহলী, ইন্টারনেট বহুদিন আগেই তাদের বিচরণক্ষেত্রে পরিণত হয়েছে৷ কিন্তু এবার তাদের বিরুদ্ধে সংগ্রামে নামছে মাইক্রোসফট ও গুগল; সেই সঙ্গে ব্রিটেনের জিসিএইচকিউ এবং যুক্তরাষ্ট্রের এনএসএ

মাইক্রোসফট এবং গুগল ঘোষণা করেছে যে, তাদের ‘‘বিং'' এবং ‘‘গুগল'' সার্চ এঞ্জিনগুলি এক লক্ষ ‘‘টিপিকাল'' শব্দ বা শব্দসমষ্টি ফিল্টার করবে, যেগুলি দিয়ে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীরা সাধারণত শিশু পর্নোগ্রাফির খোঁজ করে থাকে৷ এটা প্রথমে শুধু ইংরিজি ভাষায় করা হবে, কিন্তু শিগগিরই সেই নিষিদ্ধ শব্দ বা বাক্যের তালিকা মোট ১৫০টি ভাষায় প্রযোজ্য হবে৷ যে সাইটগুলি খোলার চেষ্টা করা হচ্ছে, সেগুলি ব্লক করা থাকবে এবং একটি সতর্কতাবাণী দেখানো হবে যে, সংশ্লিষ্ট সাইটগুলি নিষিদ্ধ ও বেআইনি৷

অপরদিকে গুপ্তচর বিভাগগুলি ইন্টারনেটের প্রত্যন্ততম কোণে গুপ্ত প্রণালীতে লেখা সাইটগুলিও ঘেঁটে দেখবে, সেই ‘‘ডার্কনেট'' বা ‘অন্ধকার নেটে' যৌন অপরাধীরা তাদের লালসার শিকার নিরপরাধ শিশুদের নিয়ে কী ধরনের বেআইনি কার্যকলাপ চালাচ্ছে৷ অনেক সময়ে সেটা ঘটে একাধিক বার এনক্রিপশন করা সাইটে, যা সাধারণ ইন্টারনেট ব্যবহারকারীদের পক্ষে খোলা সম্ভব নয়৷ অথবা ডার্কনেটের এই সব ফোরামে শিশু পর্নোগ্রাফির ক্রেতা ও বিক্রেতাদের মধ্যে শুধু কথাবার্তা হয় – পরে পণ্যের আদানপ্রদান হয় নিষিদ্ধ বা চোরাই মাল হস্তান্তরের চিরাচরিত পদ্ধতিতে৷

অপরদিকে গুগল এবং মাইক্রোসফটের পদক্ষেপের ফলে শিশু পর্নোগ্রাফি বিক্রেতাদের ব্যবসা ৩০ শতাংশ অবধি কমে যাবে বলে বিশেষজ্ঞদের ধারণা৷ এই ব্যবসার পরিধি যে কত, একটি তথ্য থেকেই সেটা স্পষ্ট হয়ে যায়: জার্মানির লোয়ার স্যাক্সনি রাজ্যে ২০১১ সালে শিশু পর্নোগ্রাফি সংক্রান্ত অপরাধের এক হাজারের বেশি মামলা দায়ের করা হয়েছিল৷ পুলিশ ইতিমধ্যেই ইন্টারনেটে খোঁজখবর করে থাকে, কিন্তু গুপ্তচর বিভাগগুলি সেই অনুসন্ধানে যোগ দিলে, সে খবর পেডোফিল মহলে আতঙ্কের সৃষ্টি করবে বৈকি৷ অন্তত লোয়ার স্যাক্সনি পুলিশের তাই ধারণা৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন