1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

শিশুদের প্রতি যৌনাসক্ত সন্দেহে ৬৬০ ব্যক্তি গ্রেপ্তার

ব্রিটিশ পুলিশ পেডোফিল বা শিশুদের প্রতি যৌনাসক্ত সন্দেহে ৬৬০ ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করেছে৷ এদের মধ্যে চিকিৎসক, শিক্ষক, স্কাউট লিডার এমনকি পুলিশের সাবেক সদস্যও রয়েছে৷ দেশটির জাতীয় নিরাপত্তা সংস্থা এনসিএ জানিয়েছে এই তথ্য৷

এনসিএ জানায়, এই গ্রেপ্তার কার্যত গত ছয়মাস ধরে চলা অভিনব অভিযানের ফসল৷ ইংল্যান্ড ছাড়াও ওয়েলস, স্কটল্যান্ড এবং উত্তর আয়ারল্যান্ড পুলিশ অভিযানে সম্পৃক্ত ছিল৷

গ্রেপ্তারের ফলে চারশো শিশুকে পেডোফিলদের হাত থেকে রক্ষা করা গেছে বলেও জানিয়েছে এনসিএ৷ আর গ্রেপ্তারকৃতদের মধ্যে ৪০ ব্যক্তি আগেই যৌন অপরাধে অপরাধী ছিল৷ তবে বাকিদের কথা পুলিশ আগে জানতো না৷ গ্রেপ্তারকৃতদের সবার বিরুদ্ধে চার্জ গঠন শেষ হয়নি৷ পুলিশ জানিয়েছে, কয়েকজনের বিরুদ্ধে ইন্টারনেটে শিশু যৌনতা বিষয়ক আপত্তিকর ছবি দেখা এবং যৌন আক্রমণের অভিযোগ আনা হয়েছে৷

এনসিএ'র উপপ্রধান ফিল গোর্মলি এই বিষয়ে বলেন, ‘‘যারা ইন্টারনেটে শিশু যৌনতা বিষয়ক আপত্তিকর ছবি দেখেছেন তাদের বিরুদ্ধে সরাসরি শিশু নিগ্রহের অভিযোগ আনা হয়েছে৷'' এই গ্রেপ্তারের মাধ্যমে একটি বার্তাও দিয়েছে পুলিশ৷ তা হচ্ছে আপত্তিকর ছবি দেখার জন্য ইন্টারনেট কোনো নিরাপদ বা গোপন স্থান নয়৷ এরকম অনৈতিক কাজ যারা করছে তাদের গ্রেপ্তার এবং আইনের আশ্রয়ে আনা সম্ভব৷

তবে এনসিএ ঠিক কি পন্থায় সন্দেহভাজনদের গ্রেপ্তার করেছে তা বিস্তারিত প্রকাশ করেনি৷ গোর্মলি শুধু বলেছেন, পেডোফিলরা ‘ডার্ক-ওয়েব' ব্যবহার করেছে৷ অনেকে নিজের পরিচয় গোপন রাখতে পয়সাও খরচ করেছে৷

উল্লেখ্য, ‘পেডোফিলিয়া' একটি মানসিক রোগ৷ এই রোগে আক্রান্ত ব্যক্তিরা, যাদের ‘পেডোফিল' বলা হয়, শিশুদের প্রতি যৌনাসক্ত৷ এর আগে গতবছর একটি ডাচ মানবাধিকার সংস্থা জানায় যে, তারা একটি পরীক্ষামূলক সামাজিক যোগাযোগ সাইট ‘ভার্চুয়াল'-এর মাধ্যমে বিশ্বের কমপক্ষে ১,০০০ ‘পেডোফিল'-কে শনাক্ত করে৷ আর জাতিসংঘ এবং যুক্তরাষ্ট্রের কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা এফবিআই জানিয়েছে, বিশ্বের অন্তত সাড়ে সাত লাখ শিশু এই ধরনের হয়রানির শিকার হচ্ছে প্রতি মুহূর্তে৷

এআই / জেডএইচ (ডিপিএ, এএফপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়