1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

অন্বেষণ

শিল্পকলার ব্যবসার জায়গা আর্ট বাসেল

সুইজারল্যান্ডের বাসেল শহরের আর্ট ফেয়ার বা শিল্পকলার প্রদর্শনীতে এমন অনেক কলাপ্রেমী এসে থাকেন, যাঁদের মূল উদ্দেশ্য হল, পুঁজি বিনিয়োগের একটি নিরাপদ ও নিশ্চিন্ত পথ খুঁজে পাওয়া৷

মডার্ন আর্ট বা ক্ল্যাসিক্যাল মডার্ন – ‘আর্ট বাসেল' প্রদর্শনীতে সবরকমের চিত্রকলাই কিনতে পাওয়া যায়৷ ঐতিহ্যপূর্ণ এই আর্ট ফেয়ার-এ সবচেয়ে বেশি অঙ্কের চিত্রকলা কেনা-বেচা করা হয়৷ প্রতি বছর এই কলা প্রদর্শনীতে আসেন প্রায় নব্বই হাজার দর্শক৷

জোয়েল রম্বা ইতিপূর্বে বহু আর্ট গ্যালারি এবং অকশন হাউস, অর্থাৎ যেখানে শিল্পকলা নিলাম করা হয়, তেমন সব সংস্থায় কাজ করেছেন৷ তিনি ও তাঁর স্বামী এরিক গত দশ বছর ধরে সমসাময়িক চিত্রকলা সংগ্রহ করে আসছেন৷ জোয়েল বলেন, ‘‘বলতে কি, আর্ট বাসেল-এ শিল্পকলার বাজারদর নির্ধারিত হয়৷ অন্যান্য আর্ট ফেয়ার-এর সঙ্গে আর্ট বাসেল-এর পার্থক্য সম্ভবত এই যে, এখানে বহু দর্শক আসেন, যাদের কাছে শিল্পকলা হল একটি বিনিয়োগের ক্ষেত্র৷ অন্যান্য শিল্পকলা প্রদর্শনীতে মূলত কলাপ্রেমীরা আসেন৷''

ART Basel 2015

ছবি দেখতে এসেছেন অনেকে...

মনের মতো ছবি

জোয়েল ও এরিক রম্বা বহু ছবির মধ্যে থেকে ঠিক সেই ছবিগুলি খুঁজছেন, যেগুলি তাঁদের সংগ্রহের সঙ্গে মানাবে৷ ফিলিপ দেক্রজা-র আরো একটি ছবি পেলে ভালো হতো – দাম দেখা যাচ্ছে পঁয়ত্রিশ হাজার ইউরো৷ এরিক বললেন, ‘‘পেলে খুব মানাতো – দুঃখের কথা, আমাদের শোবার ঘরে শিল্পীর একটি অনুরূপ ছবি ঝুলছে, সেই সঙ্গে একটি অপেক্ষাকৃত ছোট শিল্পকর্ম, একটি রঙিন ছবি৷ এই ছবিটা অন্য দু'টোর সঙ্গে খুব ভালো মানাতো৷''

ART Basel 2015

কেউ হয়তো এসেছেন কিনতে...

প্রদর্শনীর প্রথম দিনেই জোয়েল রম্বা একটি ছবি আবিষ্কার করেছেন, যা তিনি তাঁর স্বামীকে অবশ্যই দেখাতে চান৷ রম্বা দম্পতির কাছে ইতিমধ্যেই টিলো হাইনৎসমান-এর একটি সাদা-কালো ছবি আছে৷ হাইনৎসমান বর্তমানে জাপান থেকে আনা উচ্চমানের কমলা রং নিয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করেছেন৷ জোয়েল বললেন, ‘‘একমাত্র গোলযোগ হল, সাত বছর আগে আমরা যখন হাইনৎসমান-এর ছবিটা কিনি, তখন তার দাম ছিল ছবিটার আজকের দামের এক-চতুর্থাংশ৷ আর এই ছবিটার দাম ধরুন আজ বাইশ হাজার ইউরো৷''

প্রদর্শনীর যে অংশে পাবলো পিকাসো, ক্লোদ মোনে অথবা মার্ক রথকো-র মতো নামী-দামী চিত্রকরদের ছবি বিক্রি হচ্ছে, সেখানে এমন সব সংগ্রাহকদের পাওয়া যাবে, যারা একটি ছবির জন্য কোটি-কোটি ডলার বা ইউরো খরচ করতে রাজি৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

ইন্টারনেট লিংক