1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

শান্তিকমিটি গঠনের কথা স্বীকার করেছে নিজামী

১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে আলবদর এবং শান্তি কমিটি গঠনের কথা স্বীকার করেছেন জামাতের আমির মতিউর রহমান নিজামী৷ ধানমন্ডির সেফ হোমে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইবুন্যালের কর্মকর্তাদের জিজ্ঞাসাবাদে তিনি এই স্বীকারোক্তি দেন৷

Jamaat-e-Islami Ameer Matiur Rahman Nizami. Mr. Mustafiz Mamun, photographer from Bangladesh, contributed these photos for Deutsche Welle. As he mentioned, these photos are taken by me (Mustafiz Mamun) & I permit Deutsche Welle to use them.

মতিউর রহমান নিজামী

ধানমন্ডির সেফ হোমে এই প্রথম যুদ্ধাপরাধের মামলায় গ্রেফতার হওয়া কাউকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হল৷ তাঁকে বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৮টায় কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে সেফ হোমে নেয়া হয়৷ আধঘন্টা বিরতি দিয়ে টানা বিকেল ৫টা পর্যন্ত জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়৷ ৪ জন তদন্ত কর্মকর্তা তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করেন৷ প্রথমে তাঁকে মুক্তিযুদ্ধকালীন কিছু ভিডিও চিত্র দেখান হয়৷ এসব ভিডিও চিত্র দেখে নিজামী বলেন, তাঁর অনেক কিছুই এখন মনে নেই৷ একথা জানালেন জিজ্ঞাসাবাদকারী তদন্ত কর্মকর্তাদের একজন সানাউল হক৷

এরপর আরো তথ্যপ্রমাণ সামনে রেখে নিজামীকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হলে তিনি একাত্তরে মানবতা বিরোধী অপরাধের সঙ্গে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেন৷ তিনি বলেন, হুমকির মুখে তিনি আলবদর এবং শান্তকমিটি গঠন করতে বাধ্য হন৷

ট্রাইবুন্যালের আইন অনুযায়ী, নিজামীর আইনজীবী জিজ্ঞাসাবাদের সময় পাশের কক্ষে অবস্থান করেন৷ আধঘন্টা বিশ্রামের সময় নিজামীকে তাঁর আইনজীবীর সঙ্গে কথা বলারও সুযোগ দেয়া হয়৷ আইনজীবী তাজুল ইসলাম অভিযোগ করেন, নিজামীকে নির্ধারিত সময়ের আগেই সেফ হোমে আনা হয়, যা বিধিসম্মত হয়নি৷

জিজ্ঞাসাবাদ শেষে কড়া নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে মাওলানা নিজামীকে আবার কেন্দ্রীয় করাগারে পাঠান হয়৷ আগামী রোববার সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরীকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সেফ হোমে নেয়া হবে৷

প্রতিবেদন: হারুন উর রশীদ স্বপন

সম্পাদনা: আব্দুল্লাহ আল-ফারূক

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়