1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

শাংহাইতে ‘‘পদচারণা’’, বেইজিং শান্ত

সুদূর টিউনিশিয়ার জুঁই ফুলের বিপ্লবের বীজ ইন্টারনেটের মাধ্যমে চীনে গিয়ে পৌঁছলেও, সেখানে তার সুরভি ছড়ানোর সম্ভাবনা কম৷

default

শাংহাইতে গত সপ্তাহান্তের প্রতিবাদ ‘‘পদচারণা’’

রবিবার শাংহাইতে অন্তত ১০০ মানুষ সাপ্তাহিক ‘‘পদাতিক প্রতিবাদের'' স্থানে জড়ো হয় বটে, কিন্তু তাদের ঘিরে থাকে শত শত উর্দ্দিধারী এবং উর্দ্দিবিহীন গোয়েন্দা পুলিশ৷ খবরটা দেন জার্মানির ‘‘স্টের্ন'' পত্রিকার এক জার্মান সাংবাদিক - এবং স্বভাবতই টুইটার ব্যবহারকারীরা৷ শাংহাই'এর ‘‘শান্তি'' সিনেমা হলের সামনে প্রায় ৪০০ মানুষের জমায়েতে ‘‘স্টের্ন'' পত্রিকার জ্যানিস ভুগিওকাস'ও ছিলেন৷

ভুগিওকাস জার্মান সংবাদ সংস্থা ডিপিএ'কে জানিয়েছেন, কে যে সাদা পোশাকের পুলিশ, আর কে আন্দোলনকারী, তা বোঝার কোনো উপায় ছিল না৷ তবে তিনি পুলিশকে এক ব্যক্তিকে আটক করতে দেখেছেন৷ পুলিশ ভুগিওকাস'কেও প্রায় তিন ঘণ্টা আটকে রাখে৷ আরো অন্তত ১৪ জন সাংবাদিক-সংবাদদাতাকে কাছের একটি সাময়িক পুলিশ ফাঁড়িতে নিয়ে যাওয়া হয়৷

চীনের এই ‘‘জ্যাসমিন ব়্যালি'' বা ‘জুঁই ফুলের প্রতিবাদ'-গুলির অনলাইন উদ্যোক্তারা অজ্ঞাত, অনামা৷ বিশে ফেব্রুয়ারি থেকে এই অভিনব সাপ্তাহিক প্রতিবাদ শুরু হয়েছে৷ এক সপ্তাহ আগেও এরকম একটি রবিবারে শাংহাইতে জড়ো হয়েছিলেন প্রায় দু'হাজার মানুষ৷ চলতি রবিবারেও সারা চীনে অন্তত এক ডজন স্থানে এ'ধরণের প্রতিবাদের ডাক দেওয়া হয়েছিল: তার মধ্যে বেইজিং'এর যানবহুল ওয়াংফুজিং এবং সিদান বাজারও ছিল৷

China Polizisten 27.02.2011

বেইজিং’এর ওয়াংফুজিং’এ গত সপ্তাহান্তেও ছিল পুলিশ

কিন্তু ওয়াংফুজিং'এর দক্ষিণ প্রান্তে তিন ধাপ পুলিশের লাইন খাড়া ছিল - একটি ম্যাকডোনাল্ডস রেস্তরাঁর ঠিক কাছে, কেননা ঐ রেস্তরাঁর সামনেই সমাবেশের ডাক দেওয়া হয়েছিল৷ বেইজিং'এর বড় বড় বিশ্ববিদ্যালয়গুলির কাছের মেট্রো স্টেশনটিও শনিবার থেকে দৃশ্যত মেরামতির জন্য বন্ধ রাখা হয়৷ অপরদিকে বেইজিং শহর কর্তৃপক্ষের এক মুখপাত্র ওয়াং হুই রবিবার বলেছেন যে, বেইজিং'এ ‘জুঁই ফুলের বিপ্লবের' ডাক ব্যর্থ হতে বাধ্য, কেননা জনগণ শান্তি এবং স্থায়িত্ব চায়, এবং সরকারের নীতিসমূহ জনপ্রিয়৷ এছাড়া তিনি আবার বলেন যে, সাংবাদিকদের এ'সব ভূতুড়ে প্রতিবাদের স্থল থেকে বিবরণ দেওয়ার আগে সরকারের অনুমতি নিতে হবে৷ তিনি বিদেশী সাংবাদিকদের প্রতি ‘‘খবর না তৈরি করার'' আহ্বান জানান৷

প্রতিবেদন: অরুণ শঙ্কর চৌধুরী

সম্পাদনা: সঞ্জীব বর্মন

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়