1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বাংলাদেশ

শফিক রেহমানের বিদেশ যাওয়ায় বাধা

প্রধানমন্ত্রীর ছেলেকে হত্যা পরিকল্পনার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগের মামলায় জামিনে থাকা এক সম্পাদককে বিদেশে যেতে বাধা দেয়ার অভিযোগ উঠেছে৷ উচ্চ আদালতের অনুমতিপত্র নিয়ে লন্ডনে চিকিৎসারত স্ত্রী-কে দেখতে যেতে চেয়েছিলেন তিনি৷

শফিক রেহমান (ফাইল ছবি)

শফিক রেহমান (ফাইল ছবি)

সম্পাদক শফিক রেহমানের ব্রিটিশ পাসপোর্টও রয়েছে৷ বার্তা সংস্থা এএফপিকে তিনি জানান, ঢাকা থেকে লন্ডনগামী একটি বিমানে উঠতে তাঁকে বাধা দেয়া হয়েছে৷ ‘মৌচাকে ঢিল’-এর সম্পাদক আরো জানান, তাঁর স্ত্রী লন্ডনে লিউকিমিয়ার চিকিৎসা নিচ্ছেন৷ ৮১ বছর বয়সি রেহমান গত সেপ্টেম্বরে পাঁচমাস কারাভোগের পর জামিনে মুক্তি পান৷ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছেলে সজীব ওয়াজেদ জয়কে হত্যা পরিকল্পনার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়৷ তবে একাধিক মানবাধিকার সংস্থা মনে করে, সেটি গণমাধ্যমের উপর কঠোর হস্তক্ষেপের অন্যতম উদাহরণ৷

গত সপ্তাহে হাইকোর্ট শফিক রেহমানকে তাঁর অসুস্থ স্ত্রী-কে দেখতে যাওয়ার অনুমতি দেয়ার পর কর্তৃপক্ষ তাঁকে তাঁর জব্দ করা ব্রিটিশ পাসপোর্ট ফিরিয়ে দেয়৷ ‘‘পুলিশ আমার কাছে হাইকোর্টের অর্ডার দেখাতে বলে, যা আমি ইতিমধ্যে একটি নিম্ন আদালতে জমা দিয়েছি৷ আমি তাদেরকে নির্দেশের ফটোকপি দিয়েছি, কিন্তু তারা বলেন যে, তাদের আমার ফ্লাইট সংক্রান্ত ক্লিয়ারেন্সের কথা জানানো হয়নি,’’ বলেন রেহমান৷

তিনি আরো বলেন, ‘‘এটা অত্যন্ত অন্যায়৷ আমি কাউকে দোষ দিচ্ছিনা, কিন্তু অত্যন্ত হতাশ বোধ করছি৷ আমার স্ত্রী মৃত্যুপথযাত্রী আর তাঁর এখন আমাকে সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন৷’’

এদিকে, ইমিগ্রেশন কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, তাদের রেহমানের কাগজপত্র পরীক্ষা করা দরকার৷ নামপ্রকাশ না করার শর্তে এক পুলিশ কর্মকর্তা জানান, আমরা প্রয়োজনীয় প্রক্রিয়া শেষ করার পর পরবর্তী ফ্লাইটে তিনি বিদেশে যেতে পারবেন৷

একসময় বাংলাদেশের মূল বিরোধী দলীয় নেত্রী খালেদা জিয়ার বক্তব্য লিখে দিতেন শফিক রেহমান৷ গত এপ্রিলে যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী জয়কে হত্যা পরিকল্পনায় জড়িত সন্দেহে তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল৷ তিনি অবশ্য এই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন৷ গতবছর গ্রেপ্তারকৃত তিনজন ‘প্রো-অপজিশন’ সম্পাদকের একজন তিনি৷ এই সম্পাদকদের গ্রেপ্তারকে ‘‘স্বাধীন গণমাধ্যমের উপর পরিকল্পিত হামলা’’ হিসেবে আখ্যা দিয়েছিল মানবাধিকার সংগঠন হিউম্যান রাইটস ওয়াচ৷

উল্লেখ্য, শফিক রেহমান দীর্ঘদিন ‘যায়যায়দিন’ নামের একটি জনপ্রিয় পত্রিকার সম্পাদক ছিলেন৷ বর্তমানে তিনি মৌচাকের ঢিল নামের একটি মাসিক পত্রিকার সম্পাদক৷

এআই/এসিবি (এএফপি)

প্রিয় পাঠক, এই বিষয়ে আপনার মন্তব্য জানতে চাই আমরা৷ লিখুন নীচে মন্তব্যের ঘরে... 

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়