1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

শপথ নিলেন জার্মানির দশম প্রেসিডেন্ট ভুল্ফ

শপথ গ্রহণ করলেন জার্মানির দশম প্রেসিডেন্ট ক্রিস্টিয়ান ভুল্ফ৷ তাঁর প্রথম ভাষণেই তিনি দেশের বিভিন্ন অংশের মধ্যে এক সেতুবন্ধ তৈরির কাজে ব্রতী হবার অঙ্গীকার করলেন৷

default

শপথ নিচ্ছেন জার্মানির দশম প্রেসিডেন্ট ভুল্ফ

গত বুধবার প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে তৃতীয় দফায় ভোটাভুটির পর তিনি বিজয়ী হন৷

জার্মানির ইতিহাসে ক্রিস্টিয়ান ভুল্ফ-ই হলেন সর্বকনিষ্ঠ প্রেসিডেন্ট৷ তবে জার্মানির রাজনৈতিক অঙ্গনে তিনি এক পরিচিত মুখ৷ বার্লিনে জার্মান সংসদের নিম্ন ও উচ্চ কক্ষ বুন্ডেসটাগ ও বুন্ডেসরাট-এর এক যৌথ অধিবেশনে শপথবাক্য উচ্চারণ করলেন নতুন প্রেসিডেন্ট ক্রিস্টিয়ান ভুল্ফ:

‘‘আমি শপথ করছি যে জার্মান জনগণের কল্যাণে আমার শক্তি আমি নিয়োজিত করব, তাদের ভাল করব, তাদের ক্ষতি হতে দেব না, ফেডারেল রাষ্ট্রের সংবিধান ও আইন রক্ষা করব ও সমুন্নত রাখব, বিবেকবান থেকে আমার দায়দায়িত্ব পালন করব এবং প্রতিটি মানুষের প্রতি সুবিচার করব৷ ঈস্বর আমার সহায় হোন৷''

প্রেসিডেন্ট ভুল্ফ তাঁর ভাষণে দেশের বিভিন্ন অংশের মধ্যে সেতুবন্ধ তৈরি আর জার্মানিতে বসবাসরত অভিবাসী মানুষদের এদেশের সমাজে আরও ভালভাবে সম্পৃক্ত করার ওপর জোর দেন৷ বলেন, ‘‘আমাদের বহুমুখিতা কখনও কখনও খুবই শ্রমসাধ্য হয়ে ওঠে৷ কিন্তু পরিশেষে তা শক্তি ও ধ্যানধারণার এক উৎস হয়ে দেখা দেয় এবং ভিন্ন চোখ দিয়ে ভিন্ন দৃষ্টিভঙ্গি নিয়ে জগতকে দেখার সম্ভাবনা তৈরি করে দেয়৷''

রাইখসটাগ সংসদ ভবনে উপস্থিত সবাইকে উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, আমার জন্য এটি একটি স্মরণীয় মুহূর্ত৷ আমি আনন্দিত৷ আমি জানি আমি নিতে যাচ্ছি বিশাল এক দায়িত্ব৷ প্রেসিডেন্ট হিসেবে যে সব দায়িত্ব আমার কাঁধে বর্তাবে তার প্রতিটিই আমাকে নির্ভুলভাবে পালন করতে হবে৷ আমাকে জার্মানির প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব পালনের সুযোগ দেওয়ার জন্য আমি আপনাদের সবার কাছে কৃতজ্ঞ৷ আমি আপনাদের সবাইকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি৷

প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ইওয়াখিম গাউকের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, নাগরিক অধিকার রক্ষায় আপনি যা করেছেন, যেভাবে সোচ্চার ছিলেন তা জার্মানির মানুষ দেখেছে, মনে রেখেছে৷ ভবিষ্যতেও আপনি আপনার কাজ চালিয়ে যাবেন আমরা সে প্রত্যাশাই করছি৷ শান্তি, স্বাধীনতা এবং গণতন্ত্রের জন্য আপনার ভালবাসা, আপনার উৎকন্ঠা আপনি সবার মাঝে ছড়িয়ে দিন৷

আজ রাতে প্রেসিডেন্টের বাসভবন বেলভ্যু প্রাসাদে উৎসবে মিলিত হবেন নিমন্ত্রিত কয়েক হাজার অতিথি৷ চলবে, গান, নাচ৷ পুড়বে আতশবাজি৷

প্রতিবেদন: মারিনা জোয়ারদার

সম্পাদনা: আবদুল্লাহ আল-ফারূক

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়