1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

খেলাধুলা

শনিবার মাদ্রিদে চ্যাম্পিয়নস লীগ ফাইনাল

বায়ার্ন মিউনিখ বনাম ইন্টার মিলান৷ দুটি দলই স্বদেশের লীগ এবং কাপ জিতে এখন ‘ত্রিমুকুট'-এর স্বপ্ন দেখছে৷ আছে দুই কোচের দু'ধরণের ফুটবল দর্শন৷ এবং আছে কে জিতবে, কে হারবে, তা নিয়ে অনিশ্চয়তা৷

default

গুরু-শিষ্যের বিবাদ

তবে যেই জিতুক, ইতিমধ্যেই হাত কামড়ানোর কথা রেয়াল মাদ্রিদের৷ কেননা বায়ার্নের মোক্ষম অস্ত্র আরিয়েন রবেন এবং ইন্টারের মোক্ষম অস্ত্র ওয়েসলে স্নাইডার দু'জনকেই ঐ রেয়াল মাদ্রিদ'ই কাজের নয় বলে বেচে দিয়েছে গত গ্রীষ্মে, ক্রিস্টিয়ানো রোনাল্ডো কি কাকা'র মতো তারকাদের কেনার জন্য৷ সেই তারকারা কিন্তু এখন ছুটিতে, কেননা রেয়াল এবারকার চ্যাম্পিয়নস লীগে কোয়ার্টার ফাইনালের দোরগোড়া ছুঁতে পারেনি৷ ওদিকে তাদের খারিজ করা দুই ওলন্দাজ তাদের নিজেদের দুই ক্লাবের খেলা এবং কপাল, দুই'ই পাল্টে দিয়েছে৷

রবেন যেমন ফিওরেন্তিনা, তেমনই ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড'এর বিরুদ্ধে অতীব গুরুত্বপূর্ণ চূড়ান্ত গোলগুলি করে৷ ওদিকে স্লাটান ইব্রাহিমোভিচ'এর যুগ শেষ হবার পর ইন্টারের আক্রমণে নতুন ধার এনেছে ওয়েসলে স্নাইডার৷ এবং আরো মজার কথা, দু'জনের কেউই কিন্তু রেয়াল ছাড়তে চায়নি৷ সেই অবহেলায় ফেলে দেওয়া মহামূল্য দু'টি রত্ন এবার বার্নাবেউ স্টেডিয়ামে ফিরছে অপরের মুকুটমণি হয়ে৷ সেটা রিয়াল মাদ্রিদের কর্মকর্তাদের কেমন লাগবে, কে জানে৷

Olympia 2016

বার্নাবেউ স্টেডিয়াম: ক্রীড়াঙ্গন না রণাঙ্গন?

ওদিকে ইন্টার মিলানের কোচ জোসে মুরিনহো এককালে বায়ার্ন কোচ লুই ফান গাল'এর সহকারী ছিলেন, বার্সেলোনায়৷ আরিয়েন রবেন আবার চেলসি'তে থাকাকালীন মুরিনহো'র কোচিং-এ খেলেছেন৷ তাঁর বক্তব্য: ফ্যান গাল আক্রমণাত্মক, সুন্দর খেলার পক্ষপাতী, কিন্তু মুরিনহো শুধু জিততে চান৷ রবেনের এই মন্তব্যও এখন মিডিয়ার খুঁটিয়ে বার করা, এবং তার পটভূমিতে রয়েছে ফ্যান গাল ও মুরিনহো'র এক অপ্রত্যাশিত মনকষাকষি৷

যে ফ্যান গাল কিছুদিন আগেও বলেছিলেন যে, তিনি বার্সেলোনার পরিবর্তে ইন্টারকেই ফাইনালে দেখতে চান; তাঁর আর মুরিনহো'র মধ্যে নাকি এসএমএস চালাচালি হয় - সেই ফ্যান গালই হঠাৎ মুরিনহো'র বিরুদ্ধে ‘নেতিবাচক' খেলার অভিযোগ করেছেন৷ মুরিনহো সঙ্গে সঙ্গে প্রকাশ্য সাংবাদিক সম্মেলনে তার জবাব দিয়েছেন: সান জিরো'য় বার্সেলোনার বিরুদ্ধে, কিংবা স্ট্যামফোর্ড ব্রিজে চেলসি'র বিরুদ্ধে ইন্টার এবার যেভাবে খেলেছে, তা গোটা চ্যাম্পিয়নস লীগে অন্য কোনো দল খেলতে পারেনি৷

তাহলে শনিবার বার্নাবেউ'তে কি হবে? ইন্টারের দেয়াল-তুলে-দেওয়া ডিফেন্স ভেদ করতে বার্সেলোনার দাঁত ভেঙে গিয়েছিল৷ বায়ার্নকেও তা ভেদ করতে বেগ পেতে হবে৷ ইন্টার সম্ভবত প্রথমে ঠিক ঐ পন্থায় বায়ার্নের ‘দাঁত ভাঙার' অপেক্ষা করবে, তারপর চকিতে কাউন্টারের সুযোগ নেবে৷ কিন্তু রবেন স্বয়ং একটা নতুন সন্দেহ প্রকাশ করেছেন: মুরিনহো নাকি বায়ার্নকে চমকে দেওয়ার জন্য হঠাৎ আরো বেশী আক্রমণাত্মক খেলাতে পারেন!

প্রতিবেদন: অরুণ শঙ্কর চৌধুরী
সম্পাদনা: সঞ্জীব বর্মন

সংশ্লিষ্ট বিষয়