1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিজ্ঞান পরিবেশ

শক্ত ডেঙ্গুজ্বরের কারণ আবিষ্কার করেছেন বিজ্ঞানীরা

বিশেষ করে যারা বার বার ডেঙ্গু ভাইরাসের দ্বারা আক্রান্ত হন, তাদের ক্ষেত্রে রক্তক্ষরণ যুক্ত জ্বর এবং শক ইত্যাদি গুরুতর লক্ষণ প্রকাশ পায় কেন, এমনকি জীবনাবসান ঘটায় কেন, এই ছিল বিজ্ঞানীদের প্রশ্ন৷

default

ফাইল ফটো

ডেঙ্গু জ্বর ছড়ায় মশা থেকে৷ চার ধরণের ডেঙ্গু জ্বর আছে৷ যে সব রোগীরা বার বার কোনো ভিন্ন ধরণের ডেঙ্গু দ্বারা আক্রান্ত হন, তাদের রোগ এ্যাতো কঠিন হয়ে দাঁড়ায় কেন, তা এযাবৎ অজ্ঞাত ছিল৷ এবার ব্রিটেন এবং থাইল্যান্ডের বিজ্ঞানীরা একত্রে কাজ করে খুব সম্ভবত সেই রহস্যের সমাধান করেছেন৷

সর্বাধুনিক ‘সায়েন্স' পত্রিকায় প্রকাশিত একটি প্রবন্ধে গবেষকরা বলেছেন যে, তারা রোগীদের রক্তের নমুনা পরীক্ষা করে দেখেছেন যে মানুষের শরীরের রোগ প্রতিরোধ ব্যবস্থা পিআরএম নামধারী একটি এ্যান্টিবডি সৃষ্টি করে যা ডেঙ্গু ভাইরাসগুলির সঙ্গে যোঝে৷ কিন্তু মুশকিল হল এই যে, যার একবার এক ধরণের ডেঙ্গু হয়েছে, সে যদি দ্বিতীয়বার কোনো ভিন্ন ধরণের ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়, তা'হলে তার শরীরের পিআরএম এ্যান্টিবডিগুলি নবাগত ডেঙ্গু ভাইরাসগুলিকে প্রতিরোধ না করে, তাদের জমিয়ে বসতে সাহায্য করে!

এর থেকে প্রথম শিক্ষা হল যে, ডেঙ্গুর টিকা তৈরী করার সময় যেন পিআরএম এ্যান্টিবডি ব্যবহার না করা হয়৷ কিন্তু এর চাইতে বেশী কিছু বলা এখন গবেষকদের পক্ষে সম্ভব হচ্ছে না৷ - অথচ বিশ্বে প্রতিবছর পাঁচ থেকে দশ কোটি মানুষের ডেঙ্গু সংক্রমণ ঘটছে৷ তাদের মধ্যে পাঁচ লক্ষ তথাকথিত ডেঙ্গু হেমরেজিক ফিভারে পর্যবসিত হচ্ছে৷ মারা যাচ্ছে ২২,০০০ রোগী, তাদের অধিকাংশই শিশু৷ ডেঙ্গুর চিকিৎসাও আবার বিশেষভাবে ব্যয়বহুল৷ কাজেই ডেঙ্গু গবেষণার ক্ষেত্রে প্রতিটি পদক্ষেপ এবং সব ধরণের প্রগতিই স্বাগত৷

প্রতিবেদক: অরুণ শঙ্কর চৌধুরী

সম্পাদনা: আরাফাতুল ইসলাম

সংশ্লিষ্ট বিষয়