1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

ল্যাটিন অ্যামেরিকার সবচেয়ে বড় বইমেলা ‘‘ফেরিয়া ডে লিব্রোস’’

আর্জেন্টিনার রাজধানী বুয়েনোস আইরেসে গত ২২ এপ্রিল থেকে শুরু হয়েছে ল্যাটিন অ্যামেরিকার সবচেয়ে বড় বইমেলা ‘ফেরিয়া ডে লিব্রোস’৷ চলবে ১০ মে পর্যন্ত৷ অন্যদিকে আর্জেন্টিনার স্বাধীনতাদিবস উপলক্ষে চলছে নানা রকম অনুষ্ঠান৷

default

ল্যাটিন অ্যামেরিকার সবচেয়ে বড় বইমেলা ‘ফেরিয়া ডে লিব্রোস’

আর্জেন্টিনার রাজধানী বুয়েনোস আইরেস এখন উৎসবের নগরীতে পরিণত হয়েছে৷ একেবারে প্রাণচাঞ্চল্যে ভরপুর৷ একদিকে অনুষ্ঠিত হচ্ছে ল্যাটিন অ্যামেরিকার সবচেয়ে বড় বইমেলা, অন্যদিকে আর্জেন্টিনার স্বাধীনতার দ্বিশতবার্ষিকী উপলক্ষে চলছে গান, বাজনা, থিয়েটার, সাহিত্যপাঠের আসর৷ বইমেলার পরিচালক রুডল্ফো হামাভি এ প্রসঙ্গে বলেন: ‘‘আমরা প্রতিদিন একজন করে সম্মানিত অতিথিকে আমন্ত্রণ জানাচ্ছি৷ স্বাধীনতার ২০০ বছর পর আর্জেন্টিনার সংস্কৃতিকে বিশেষভাবে সম্মান জানানো আমাদের উচিত৷ ২০ জন আর্জেন্টেনীয় লেখককে আমরা বক্তৃতা, আলোচনা অনুষ্ঠান, সংগীত ও থিয়েটার প্রদর্শনীতে এনে আমরা সেই সম্মানই দেখাতে চাই একই সঙ্গে দর্শকদের আর্জেন্টিনার সংস্কৃতির সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দিতে চাই৷''

দর্শকরা এজন্য কৃতজ্ঞ৷ তাদের কাছে বুয়োনোস আইরেসে অনুষ্ঠিত ৩৬তম এই বইমেলা যেন এক উৎসব৷ মেলা দেখতে আসা এক শিক্ষিকা উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে বলেন: ‘‘আমি একজন শিক্ষিকা৷ মেলাটি অত্যন্ত আকর্ষণীয়৷ বই পড়াকে মানুষ বেশ অবহেলা করেছে৷ এই মেলা তা কিছুটা দূর করবে, সাহিত্য ও সংস্কৃতিকে আমাদের কাছে নিয়ে আসবে৷' '

Buchmesse Buenos Aires

‘ফেরিয়া ডে লিব্রোস’-এ জার্মান বই-এর স্টল

‘‘ফেরিয়া ডে লিব্রোস'' যেন এক বিশাল, বর্ণাঢ্য ও প্রাণবন্ত গ্রন্থাগার৷ ৪০টি দেশের ১৩০০ প্রদর্শক উপস্থিত হয়েছেন এই মেলায় তাঁদের রকমারি বই পুস্তক নিয়ে৷ নতুন প্রকাশিত বই'এর পাশাপাশি রয়েছে আগেকার ঐতিহ্যবাহী গ্রন্থাবলী৷ শোভা পাচ্ছে উপন্যাস, কবিতা ও বিষয়ভিত্তিক পুস্তক৷ ফ্রাঙ্কফুর্ট বইমেলার প্রধান ইউর্গেন বোস এ প্রসঙ্গে বলেন: ‘‘এই মেলার রয়েছে সম্পূর্ণ আলাদা এক চারিত্রিক বৈশিষ্ট্য৷ এটি বিশেষ করে দর্শকদের মেলা, যে সংখ্যাটা ১২ লক্ষেরও বেশি৷ ফ্রাঙ্কফুর্ট বই মেলার তুলনায় সম্পূর্ণ ভিন্ন এক বিশালত্ব এই মেলার৷ ফ্রাঙ্কফুর্ট বইমেলায় ব্যবসা বাণিজ্যটাই হল মূল বিষয়৷ তার পাশাপাশি চলে সাহিত্যচর্চা৷ এখানে সম্পূর্ণ উল্টো৷ এটা মূলত বিশাল এক সাহিত্য উৎসব, বুয়েনোস আইরেস শহরের জন্য এক বিশেষ উৎসব৷ আর এই উৎসবকে ঘিরেই চলে ব্যবসা বাণিজ্যের কিছু আলাপচারিতা৷''

এই মেলার আর একটি বিশেষত্ব, এটি ফ্রাঙ্কফুর্ট বইমেলার জন্য যেন এক মহড়া৷ জার্মানিতে প্রতি বছরের মত এবছরও অক্টোবর মাসে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ফ্রাঙ্কফুর্ট বইমেলা, যেখানে অতিথি দেশ হিসাবে যোগ দিচ্ছে আর্জেন্টিনা৷ দেশটি সাহিত্যের পুরানো কিছু নিদর্শন ছাড়াও নতুন প্রকাশিত বইপুস্তক তুলে ধরতে আগ্রহী৷ তাই বইগুলি যথা সময়ে জার্মান ভাষায় অনুবাদ করার জন্য বিশেষ কর্মসূচি নেয়া হয়েছে৷ বোস বলেন: ‘‘আমরা গত কিছুদিন ধরে বেশ কিছু সহযোগী প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে কথা বলেছি৷ এক্ষেত্রে নানারকম কর্ম তৎপরতা চলছে, যাতে আমরা খুবই সন্তুষ্ট৷ ইতোমধ্যে ২৩০টি বই বিভিন্ন ভাষায় অনূদিত হয়েছে৷ কোনো এক অতিথি দেশের জন্য এটা একটা রেকর্ড৷''

Buchmesse Buenos Aires

বুয়োনোস আইরেসের এই ৩৬তম বইমেলা যেন এক উৎসব

বুয়েনোস আইরেসের বইমেলায় জার্মান স্টলটা নানারকমের রচনাবলীতে পরিপূর্ণ৷ এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি জনপ্রিয়তা পেয়েছে রোম্যান্টিক ধারার সাহিত্য, বিশেষ করে জার্মান লেখক ও দার্শনিক রুয়ডিগার জাফরান্সকি'র ‘‘রোম্যান্টিক - একটি জার্মান অ্যাফেয়ার'' বইটি পাঠকদের আগ্রহ জাগিয়েছে৷ রুয়ডিগার জাফরান্সকি এ প্রসঙ্গে বলেন: ‘‘আমি লক্ষ্য করেছি, যারা আমার বই'এর ব্যাপারে আগ্রহী, তারা সাহিত্যে ইউরোপীয় ধারাটা এমনভাবে গ্রহণ করেন যে, অন্য দিকটা অবহেলিত হয়ে পড়ে৷ যেমন ল্যাটিন অ্যামেরিকার খ্যাতনামা লেখক গাব্রিয়েল গার্সিয়া মার্কেসের লেখায় কল্পবাস্তববাদ কীভাবে ফুটে উঠেছে, তার ওপর আলোচনা করা যেতে পারে৷ কিন্তু না ইউরোপীয় দৃষ্টিভঙ্গির ভেতর মানুষ এমন ভাবে নিমজ্জিত হয়, যেখানে অন্য কিছুর স্থান থাকেনা৷''

প্রতিবেদক : রায়হানা বেগম

সম্পাদক : আব্দুল্লাহ আল-ফারূক

সংশ্লিষ্ট বিষয়