1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

লেবাননে নতুন সরকার গঠনের আলোচনা সোমবার

সরকার পতনের পর লেবাননের রাজনৈতিক পরিস্থিতি আবারো অশান্ত হয়ে উঠছে৷ ইইউ আলোচনার মাধ্যমে বর্তমান সংকট নিরসনের আহ্বান জানিয়েছে৷ এদিকে, হারিরিকে তত্ত্বাবধায়ক প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্বে থাকার অনুরোধ কারা হয়েছে৷

default

সাদ আল-হারিরি (ফাইল ফটো)

সঙ্কট নিরসনে উদ্যোগী ইইউ

সব পক্ষের সঙ্গে আলোচনার মাধ্যমে একটি সমাধানসূত্র বেরিয়ে আসুক - এমনটাই চায় ইউরোপীয় ইউনিয়ন৷ ইইউ'র পররাষ্ট্র বিষয়ক প্রধান ক্যাথরিন অ্যাশটন এই প্রসঙ্গে বলেন, ‘‘আমি লেবাননের বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বিগ্ন৷ জাতীয় ঐক্যের সরকারের প্রতি আমি আমাদের সমর্থন আবারো পুর্নব্যক্ত করছি৷'' অ্যাশটন আরো বলেন, বর্তমান প্রেক্ষাপটে আলোচনার মাধ্যমে একটি সমাধানসূত্রে পৌঁছাতে আমি সকল শীর্ষ নেতাদের প্রতি আহ্বান জানাই৷

সঙ্কটের কারণ

মাত্র ১৪ মাস আগে শিয়াপন্থী হিজবুল্লাহ গোষ্ঠীকে সঙ্গে নিয়ে ঐক্যমত্যের সরকার গঠন করেন প্রধানমন্ত্রী সাদ আল-হারিরি৷ কিন্তু বুধবার জোট থেকে পদত্যাগ করেন হিজবুল্লাহ সমর্থিত ১১ জন মন্ত্রী৷ লেবাননের সরকার ভেঙ্গে দিতে পদত্যাগের এই সংখ্যা যথেষ্ট৷ এই প্রথম সেদেশের কোন সরকারের পতন এভাবে হলো৷

হিজবুল্লাহ'র আকস্মিক পদত্যাগ

২০০৫ সালে সাদ আল-হারিরির পিতা রফিক হারিরিকে হত্যা করা হয়৷ বর্তমানে জাতিসংঘ সমর্থিত ট্রাইব্যুনালে এই হত্যাকাণ্ডের তদন্ত চলছে৷ হিজবুল্লাহ বরাবরই এই ট্রাইব্যুনালের বিরোধী৷ তাদের ধারণা, তদন্তে হারিরির হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে হিজবুল্লাহর উধ্বর্তন নেতাদের জড়ানো হতে পারে৷ তাই, আগেভাগেই সরকার থেকে সরে দাঁড়াচ্ছে এই গোষ্ঠী৷ শুধু তাই নয়, উগ্রপন্থী এই গোষ্ঠীর হুঁশিয়ারি, হারিরি হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে কোনভাবে হিজবুল্লাহকে জড়ালে তার প্রতিক্রিয়া হবে ভয়াবহ৷

লেবাননের ভবিষ্যত

সরকার পতনের পর, আপাতত সাদ আল-হারিরিকে তত্ত্বাবধায়ক প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নেতৃত্বে থাকার অনুরোধ জানিয়েছেন লেবাননের প্রেসিডেন্ট মিশেল সোলায়মান৷ বৃহস্পতিবার এক বিবৃতিতে, সোলায়মান নতুন সরকার গঠন না হওয়া পর্যন্ত হারিরিকে এই দায়িত্বে থাকার নির্দেশ দিয়েছেন৷ শোনা যাচ্ছে, নতুন সরকার গঠনে আগামী সোমবার আলোচনা শুরু করবেন লেবাননের রাজনীতিবিদরা৷

এখানে বলে রাখা ভালো, লেবাননের সরকার গঠন প্রক্রিয়া বেশ জটিল৷ একাধিক উপদলের প্রতিনিধিত্বে তৈরি হয় সে দেশের সরকার৷ এই পন্থায় লেবাননের প্রধানমন্ত্রীকে অবশ্যই একজন সুন্নি মুসলমান হতে হবে৷

প্রতিবেদন: আরাফাতুল ইসলাম

সম্পাদনা: দেবারতি গুহ