1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

অন্বেষণ

লেজার দিয়ে তৈরি হচ্ছে যন্ত্রাংশ

নিখুঁত যন্ত্রাংশ তৈরি করতে জার্মানির এক সংস্থা কাজে লাগাচ্ছে ধাতুর গুঁড়া ও লেজার প্রযুক্তি৷ ফলে অনেক নতুন সম্ভাবনার দ্বার খুলে যাচ্ছে৷ লেজার মেল্টিং প্রযুক্তির চাহিদাও বাড়ছে৷

উপর থেকে ধাতুর গুঁড়া পড়ে, যা অত্যন্ত সূক্ষ্ম ও ক্ষুদ্র৷ ধাতুর পাউডার এমন এক প্লান্টে ভরে দিলে তারপর কী তৈরি করতে হবে, তা স্থির করা যায়৷ যেমন কাজের যন্ত্রপাতি অথবা অন্য যন্ত্রের অংশবিশেষ৷ যেমন প্লাস্টিকের অংশ তৈরি করার ছাঁচ৷ প্রায় ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে তা প্রস্তুত হয়ে যাবে৷ একটার পর একটা স্তরে ধাতু গলানো হয়৷ লেজারের নিখুঁত চালনায় পাউডার ধীরে ধীরে নির্দিষ্ট রূপ পায়৷ পড়ে থাকা পাউডার-ও আবার নতুন করে কাজে লাগানো যায়৷ তৈরির পর যন্ত্রাংশটিকে ক্রেতার জন্য প্রস্তুত করা হয়৷ তারপর সেটি দিয়ে প্লাস্টিকের বোতলের ছিপি তৈরি হবে৷

‘টুলক্রাফট' কোম্পানির প্রধান ক্রিস্টফ হাউক জানালেন, যে সব ক্ষেত্রে সাধারণ পদ্ধতি কাজ করে না, সেখানে তাঁরা লেজারের মাধ্যমে ধাতু গলানোর এই ‘লেজার মেল্টিং' পদ্ধতি প্রয়োগ করেন৷ যেমন একটি যন্ত্রাংশ, যেটি কাজের সময় গরম হয়ে ওঠে না৷ হাউক বলেন, ‘‘বাইরে থেকে দেখলে সাধারণ প্লান্ট মনে হলেও ভেতরে ঠাণ্ডা রাখার জটিল পদ্ধতি রয়েছে৷ এটা দিয়ে এমন সব জ্যামিতিক ফর্ম তৈরি করা যায়, যা এতকাল অন্য কোনো প্রযুক্তির মাধ্যমে সম্ভব ছিল না৷''

অর্থাৎ নতুন ফর্ম বা আকার তৈরি করতে পারায় নতুন সব সম্ভাবনার দরজা খুলে যাচ্ছে৷ ফলে ধাতুর ব্লক থেকে মিলিং মেশিন কী তৈরি করবে, তার উপর আর নির্ভর করতে হচ্ছে না৷ কাজেই ‘টুলক্রাফট' কোম্পানির উৎপাদন প্রক্রিয়ার গুরুত্ব বাড়ছে, আরও নতুন ধাতু গলানোর যন্ত্র আনতে হচ্ছে৷ এক একটির দাম কমপক্ষে ৪ লাখ ইউরো, বাড়তি গুণাগুণ থাকলে দাম দ্বিগুণও হতে পারে৷ ক্রিস্টফ হাউক বললেন, ‘‘আমরা আপাতত প্রাথমিক পর্যায়ে রয়েছি৷ পরের যন্ত্রটি আসতে ৩ থেকে ৬ মাস সময় লাগবে৷ আমরা এই প্রযুক্তিতে বিশ্বাস করি৷ তাই কাজ চলতেই থাকবে৷''

বলা বাহুল্য, লেজার মেল্টিং যন্ত্র প্রস্তুতকারী কোম্পানির প্রতিনিধি টর্স্টেন হ্যার্বার্ট এমন কথা শুনে খুশি৷ তিনি জানালেন, ২০১২ সালে ৫০টি যন্ত্র বিক্রির রেকর্ড করেছে কোম্পানি৷ কারা আগ্রহ দেখাচ্ছে – এই প্রশ্নের উত্তরে তিনি বললেন, বিমান চলাচল, চিকিৎসা ক্ষেত্র, দাঁতের ডাক্তার, গাড়ি তৈরির কোম্পানির কাছ থেকেই বেশি বায়না আসছে৷

অনেক শিল্পক্ষেত্রই লেজার দিয়ে ধাতুর গুঁড়া গলানোর প্রক্রিয়ার দৌলতে নতুন ফর্ম নিয়ে পরীক্ষা চালাচ্ছে৷ কোম্পানির প্রধান আরও সম্প্রসারণের কথা ভাবছেন৷ হাউক বললেন, ‘‘এখানে কারখানা আরও বাড়ানো হবে৷ ধাতু ও কাচ দিয়ে নতুন এই অংশ তৈরি হবে৷ লেজার পদ্ধতিতে গলানোর কাজে আরও শ্রমিক নিয়োগ করা হবে৷ আরও লেজার মেল্টিং প্লান্ট কিনে এখানে বসানো হবে৷''

বিনিয়োগের অঙ্ক যে কয়েক লক্ষ ইউরো হবে, সে কথাও জানিয়ে দিলেন তিনি৷ নতুন প্রযুক্তিতে ৩০ থেকে ৪০ লক্ষ ইউরো ঢালা হচ্ছে৷ জার্মান অর্থনীতি জগতে লেজার মেল্টিং প্রযুক্তির গুরুত্ব বাড়ছে৷

ইন্টারনেট লিংক

সংশ্লিষ্ট বিষয়